Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১০ সোমবার, ডিসেম্বার ২০১৮ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

প্রয়োজনে পদত্যাগ করবেন ভিকারুননিসার গভর্নিং বডির চেয়ারম্যান

মেরিনা মিতু
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ০২:৫২ PM
আপডেট: ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ০২:৫৮ PM

bdmorning Image Preview


রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির ছাত্রী অরিত্রী অধিকারীর আত্মহত্যার ঘটনায় বৃহস্পতিবার অরিত্রির পরিবারের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির বর্তমানে দায়িত্বরত গভর্নিং বডি। তাতেও যদি তারা সন্তুষ্ট না হন তাহলে প্রয়োজনে পদত্যাগ করবেন বলে জানান ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের গভর্নিং বডির চেয়ারম্যান গোলাম আশরাফ।

গভর্নিং বডির চেয়ারম্যানের এমন ঘোষণার পরেও আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। তাদের দেওয়া ৬ দফা দাবি পূরণ  না হওয়া পর্যন্ত তারা আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে। আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ছয়দফা দাবির ৬ নম্বর দফা ছিল এটি।

উত্থাপিত দাবিগুলো হলো- অধ্যক্ষসহ অন্য শিক্ষকদের পদত্যাগের লিখিত আদেশ জনসম্মুখে দেখাতে হবে এবং আত্মহত্যার প্ররোচনার দায়ে প্রচলিত বিধান অনুযায়ী তাদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে, ভিকারুননিসা স্কুলে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন বন্ধ করতে হবে, কথায় কথায় বহিষ্কারের ভয় দেখানো যাবে না এবং অপরাধ অনুযায়ী শাস্তির জন্য ডিটেনশন পলিসি চালু করতে হবে, মানসিক সুস্থতার জন্য শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মানসিক চিকিৎসক দিয়ে কাউন্সিলিং করতে হবে, গভর্নিং বডির সবাইকে অপসারণ করতে হবে, ঘটনার জন্য অরিত্রীর বাবা-মায়ের কাছে জনসম্মুখে ক্ষমা চাইতে হবে।

এই ঘটনায় ডিবির কাছে মমলা হস্তান্তর করা হয়েছে। ডিবির এক উর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানিয়েছে, ভিকারুননিসার বরখাস্ত ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৌস, শাখা প্রধান জিনাত আখতারকে গ্রেপ্তার করা হতে পারে। আজকের মধ্যে তারা আদালতে আত্মসমর্থন না করলে আইনি প্রক্রিয়া অনুযায়ী গ্রেপ্তার করা হতে পারে।

এছাড়া এ মামলায় অভিযুক্ত আরেক শিক্ষক হাসনা হেনাকে গ্রেপ্তারের বিষয়ে ডিবির (পূর্ব) উপকমিশনার খন্দকার নুরুন্নবী জানান, আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশনা পাওয়ার পর থেকেই অভিযুক্ত শিক্ষকদের গ্রেপ্তারে তৎপরতা শুরু করেন গোয়েন্দারা। শিক্ষিকা হাসনা হেনার অবস্থান নিশ্চিত হয়ে রাত ১১টার দিকে উত্তরায় অভিযান চালানো হয়। সেখান থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে আসা হয় মিন্টো রোডের ডিবি কার্যালয়ে। আজ আদালতে পাঠানো হবে তাকে। তার বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়া অনুযায়ী কার্যক্রম চালানো হচ্ছে।

সোমবার দুপুরের দিকে রাজধানীর শান্তিনগরে গলায় ফাঁস দিয়ে অরিত্রী অধিকারী (১৫) নামে ভিকারুননিসার এক ছাত্রী আত্মহত্যা করে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে রাজধানীর পল্টন থানায় ‘আত্মহত্যার প্ররোচণাকারী’ হিসেবে তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন অরিত্রীর বাবা। মামলার আসামিরা হচ্ছেন অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৌস, প্রভাতী শাখার প্রধান জিনাত আক্তার ও শ্রেণি শিক্ষিকা হাসনা হেনা।

Bootstrap Image Preview