Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৮ রবিবার, নভেম্বার ২০১৮ | ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

নরসিংদীতে অপরাধ দমনে প্রতিনিয়তই কঠোর ভূমিকা পালন করছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী

সাইফুল ইসলাম রুদ্র, নরসিংদী প্রতিনিধিঃ
প্রকাশিত: ২০ অক্টোবর ২০১৮, ১২:৩৭ PM
আপডেট: ২০ অক্টোবর ২০১৮, ১২:৩৭ PM

bdmorning Image Preview


জঙ্গিবাদ দমনে ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলের ১৪টি দেশের পুলিশ প্রধানরা একযোগে কাজ করার ঘোষণা দিয়েছেন। তেমনই নরসিংদীতে জঙ্গিবাদসহ বিভিন্ন অপরাধ দমনে এই জেলার ১৪ শত পুলিশ সদস্যরা একসঙ্গে কাজ করার ঐকমত্য এই জেলার জন্য সুখবর হিসেবে বিবেচিত হওয়ার দাবি রাখে। জঙ্গি, সন্ত্রাসবাদসহ মাদক ও সাইবার ক্রাইম অপরাধ দমনে নরসিংদীর পুলিশ সুপার সাইফুল্লাহ আল মামুন এর নেতৃত্বে প্রতিটি থানাগুলোতে বিশেষ অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে।

ইতিমধ্যেই নরসিংদী জেলার পুলিশ সদস্যরা নরসিংদীর ৭৩ টি ইউনিয়নের মানুষের মধ্যে আস্থা অর্জন করতে পেরেছেন।

বিভিন্ন প্রেস কাউন্সিলে জঙ্গি দমন, মানবপাচার, অর্থনৈতিক অপরাধ, সন্ত্রাসী অর্থায়ন, মাদকপাচার রোধ, অবৈধ অস্ত্র চোরাচালান প্রতিরোধ, গোয়েন্দা তথ্য আদানপ্রদান এবং সাইবার অপরাধ নিয়ন্ত্রণ সম্পর্কে আলোচনা হয়। কাউন্সিল শেষে জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদসহ নরসিংদী জেলার অপরাধ দমনে পুলিশ কর্মকর্তাদের যৌথ ঘোষণাকে একটি বিরাট অর্জন হিসেবে দেখা হচ্ছে।

জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদ একটি বিশ্বজনীন সমস্যা। দুনিয়ার কোনো জাতিই এ সমস্যা থেকে মুক্ত নয়। সেহেতু এ জেলাকে বিপদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ লড়াইয়ের যে তাগিদ সৃষ্টি করেছে নরসিংদী সকল পুলিশ সদস্যদেরকে তা আরও এগিয়ে নিতে হবে। বিভিন্ন সময়ে প্রেস কাউন্সিলে পুলিশ সুপার সদর দফতরে পারস্পরিক যোগাযোগ বিশেষত অপরাধ দমনে একসঙ্গে কাজ করার যে ঐকমত্য প্রতিষ্ঠিত হয়েছে তা একটি গুরুত্বপূর্ণ অর্জন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের বৈশিষ্ট্যে ব্যত্যয় না ঘটিয়ে কীভাবে এ প্রচার মাধ্যমকে অপরাধীদের কাছ থেকে দূরে রাখা যায় তা উদ্ভাবনে তাই নিয়ে নরসিংদী গোয়েন্দা শাখা কর্মকর্তাগণ কাজ করছে বলে একটি সূত্র জানায়।

স্বাধীনতার পর বাংলাদেশ পুলিশ নামে সংগঠিত হয়। বাংলাদেশ পুলিশ পৃথিবীর অন্যান্য দেশের পুলিশ বাহিনীর মতো আইনশৃঙ্খলা রক্ষা, জনগণের জানমাল ও সম্পদের নিরাপত্তা বিধান, অপরাধ প্রতিরোধ ও দমনে প্রধান ভূমিকা পালন করে থাকে। মুক্তিযুদ্ধ বাংলাদেশ পুলিশের ট্রাডিশনাল চরিত্রে বিরাট পরিবর্তন এনে দিয়েছে।

শুধু আইন পালন আর অপরাধ প্রতিরোধ বা দমনই নয়, দেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতির ধারা অব্যাহত রাখতে বাংলাদেশেল অন্যান্য জেলার মতো নরসিংদীর পুলিশ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। পুলিশের সদস্যরা তাদের উদ্ভাবনী ক্ষমতা আর পেশা দায়িত্ব দিয়ে অপরাধ মোকাবেলায় প্রতিনিয়ত সৃজনশীলতার পরিচয় দিচ্ছেন। ঘুষ দুর্নীতির কারণে একসময়ে অভিযুক্ত এই বাহিনী তার পেশা দায়িত্ব আর জনগণের প্রতি দায়িত্ববোধের পরিচয় দিয়ে জনগণের গর্বের বাহিনীতে পরিণত হয়েছে।

বাংলাদেশ পুলিশের ইতিহাসে সবচেয়ে গৌরবোজ্জ্বল সময় হলো ১৯৭১ সাল। মহান মুক্তিযুদ্ধে একজন ডেপুটি ইন্সপেক্টর জেনারেল, বেশ কয়েকজন এসপিসহ প্রায় সব পর্যায়ের পুলিশ সদস্য বাঙালির মুক্তির সংগ্রামে জীবন দান করেন। ১৯৭১ সালের মার্চ মাস হতেই প্রদেশের পুলিশ বাহিনীর ওপর কর্তৃত্ব হারিয়েছিল পাকিস্তানের প্রাদেশিক সরকার। পুলিশের বীর সদস্যরা প্রকাশ্যেই পাকিস্তানের বিরুদ্ধে অবস্থান নেন। যে কোনো অপরাধ নির্মূল করতে হলে পুলিশ ও জনতা মিলে কাজ করতে হবে। তাহলে সমাজে আর কোনো অপরাধ থাকবে না।

Bootstrap Image Preview