Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৯ সোমবার, নভেম্বার ২০১৮ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

মাল্টিস বাংলাদেশের সাথে আরও বেশি কাজ করতে আগ্রহী: মাল্টা পররাষ্ট্রমন্ত্রী

কূটনৈতিক প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৯ অক্টোবর ২০১৮, ০৬:৫৭ PM
আপডেট: ১৯ অক্টোবর ২০১৮, ০৬:৫৭ PM

bdmorning Image Preview
মাল্টিসের পররাষ্ট্রমন্ত্রী কারমোলো আবেলা ও বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী


মাল্টিসের পররাষ্ট্রমন্ত্রী কারমোলো আবেলা বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীকে জানিয়েছেন যে, মাল্টা বাংলাদেশের সাথে আরও বেশি কাজ করতে আগ্রহী। কারণ উভয় পক্ষের সম্পর্ককে উচ্চতর স্তরে নিয়ে যেতে হলে সহযোগিতা বৃদ্ধি করা প্রয়োজন।

১৮ ও ১৯ অক্টোবর ব্রাসেলসে অনুষ্ঠিত ১২তম আসেম সম্মেলনে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী ও মাল্টিসের পররাষ্ট্রমন্ত্রী কারমোলো আবেলার সাথে অনুষ্ঠিত বৈঠকে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি মুলতুবি দ্বিপক্ষীয় চুক্তিগুলোর বিষয়েও কথা বলেন। সে চুক্তিগুলো নবায়নে বাংলাদেশের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

তা ছাড়া রাজনৈতিক পরামর্শ ও বিভিন্ন সমঝোতা বিষয়ক এবং বিদেশী পরিষেবা প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট বিষয়েও আগ্রহ প্রকাশ করেন তিনি।

মাল্টিসের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাল্টা সফরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আলীকে তার আমন্ত্রণটি পুনর্ব্যক্ত করেন।

২০২৩-২৪ মেয়াদে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী আসনের জন্য মাল্টার প্রার্থীতার জন্য তিনি বাংলাদেশের সমর্থন আশা করেন।

জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলী জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে তাদের প্রার্থীতার সমর্থনের জন্য মাল্টিসের অনুরোধ যথাযথ বিবেচনা করার আশ্বাস দেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলী ২০১৫ সালের নভেম্বরে সরকারি সফরে কমনওয়েলথ প্রধানদের প্রতিনিধিদলের প্রধান হিসেবে মাল্টা সফরের কথা স্মরণ করেন এবং মুলতুবি সরকারি দ্বিপক্ষীয় সফর গ্রহণের আশ্বাস দেন।

ইউরোপীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী আন্না পাওলা জাকারিয়াস ও বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী

এদিকে ইউরোপীয় পররাষ্ট্রবিষয়ক পররাষ্ট্রমন্ত্রী আন্না পাওলা জাকারিয়াস বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে বৈঠক করেন। বৈঠকে বাংলাদেশ ও পর্তুগালের মধ্যে 'ঐতিহাসিক' ৫০০ বছরের সম্পর্কের কথা স্মরণ করেন।

পর্তুগিজ সেক্রেটারি অফ স্টেট মহাসাগরীয় বিষয়সমূহ, জলবায়ু পরিবর্তন এবং পুনর্নবীকরণযোগ্য শক্তির দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতা শক্তিশালী করার ব্যাপারে গভীর আগ্রহ প্রকাশ করেন।

তিনি বহুমুখী ফোরামে উন্নত সহযোগিতার বিষয়ে পর্তুগিজদের আগ্রহের কথাও জানান।
 
পর্তুগালে বসবাসরত প্রায় ৩৫০০জন 'ভালোবাসা এবং সম্মানিত' বাংলাদেশি অভিবাসীদের কথা উল্লেখ করে রাষ্ট্রদূত জাকারিয়া বলেছেন, 'মাইগ্রেশনের জন্য' খোলা থাকা দেশগুলির মধ্যে ক্রমাগত সহযোগিতার ওপর জোর দেওয়া হয়েছে।

তিনি আগামী মাসে লিসবনে অনুষ্ঠিতব্য পর্তুগালের সিনিয়র অফিসিয়াল স্তরের প্রথম রাজনৈতিক সিদ্ধান্তের বিষয় নিয়ে উচ্চ আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

বৈঠকে পারস্পরিক স্বার্থসহ দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ককে আরও বিস্তৃত করার লক্ষ্যে আলোচনা করা হয়।

বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চলীয় নিচুস্থানে বসবাসরত লোকেদের ওপর সমুদ্রতলির উত্থানের সম্ভাব্য প্রতিকূল প্রভাব উল্লেখ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আলী পর্তুগিজ সেক্রেটারি অব স্টেটের সাথে বিভিন্ন দ্বিপাক্ষিক বিষয় নিয়ে কথা বলেন।

লিসবন পরিদর্শনের আমন্ত্রণের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আলী শীঘ্রই তা গ্রহণের আশ্বাস দেন।

Bootstrap Image Preview