Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৯ সোমবার, নভেম্বার ২০১৮ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

মানুষের ভালোবাসার অক্সিজেন নিয়ে বেঁচে থাকবে এলআরবি; বলেছিলেন বাচ্চু

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৮ অক্টোবর ২০১৮, ০৩:৩১ PM
আপডেট: ১৮ অক্টোবর ২০১৮, ০৩:৩১ PM

bdmorning Image Preview


পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে সবাইকে ছেড়ে চলে গেছেন এলআরবির প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ও লিড ভোকাল ও গিটারিস্ট আইয়ুব বাচ্চু। আজ সকালে নিজ বাসভবনে হৃদরোগে আক্রান্ত হন আইয়ুব বাচ্চু। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল মাত্র ৫৬ বছর।

গত বছর এপ্রিলে গণমাধগ্যমে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, ১০০ বছর বাঁচতে চাই না। কারণ যত বাঁচব তত সমস্যা আসবে।মানুষের যত বয়স বাড়ে সমস্যাও তত বাড়ে।  সুতরাং, এ পর্যায়ে আমরা এসেছি, ব্যান্ড হিসেবে ২৮টি বছর পার করেছি। সব কৃতিত্বই শ্রোতাদের জন্য। শ্রোতাদের ভালোবাসার অক্সিজেন নিয়েই এলআরবি বাকি সময় পার করবে।

সেসময় একটি অনুরোধও জানিয়েছিলেন কিংবদন্তী এ ব্যান্ড সঙ্গীতশিল্পী, আমার ভক্ত ও শ্রোতাদের কাছে একটি অনুরোধ করতে চাই ‘আপনারা আপনাদের বাবা-মাকে কোনো দিন বৃদ্ধাশ্রমে পাঠাবেন না।

১৯৯১ সালের ৫ এপ্রিল আনুষ্ঠানিকভাবে ব্যান্ডদল হিসেবে এলআরবি যাত্রা করে।  আইয়ুব বাচ্চু বলেন, আমরা ১৯৯১ সালে শুরু করেছিলাম পথচলা। সে সময় অনেকে আমাদের পাগল বলত।

কিন্তু এতটা বছর পথ পাড়ি দেওয়ার পর আজ প্রশ্ন জাগে আসলে আমরা পাগল ছিলাম, নাকি যারা আমাদের বলত তারা? কারণ এলআরবি সব সময় শ্রোতাদের ব্যান্ড। মিউজিশিয়ানদের আসলে কোনো খাদ্য দরকার হয় না। তাদের কোনো পাকস্থলি নেই। শ্রোতাদের ভালোবাসাই মিউজিশিয়ানদের ক্ষুধা মেটায়। শ্রোতাদের ভালোবাসাই আমাদের বাঁচার শক্তি। সুতরাং আমি অনুরোধ করব মিউজিশিয়ানদের তাদের যোগ্য সম্মানটা দিতে। 

মিউজিশিয়ানদের অবস্থা কেমন বলে মনে হয় আপনার কাছে এমন প্রশ্নে আইয়ুব বাচ্চু বলেন, ব্যান্ড একটি সংসারের মতো। একটি সংসারে যেমন সুখ-দুঃখ থাকে, তেমননি একটি ব্যান্ডের মধ্যেও থাকে। এটি ব্যান্ডের মধ্যে সমস্যা থাকতেই পারে। কিন্তু আমরা তা বাইরে প্রকাশ করব কেন?’ 

তিনি আরও বলেন, শীর্ষ ব্যান্ডগুলোর পাশাপাশি নতুন ব্যান্ডের প্রচার, প্রসারও দরকার। সুতরাং মিডিয়াসহ সবাইকে এ বিষয়ে এগিয়ে আসার আহ্বান জানাচ্ছি। আমাদের দেশে অনেক তরুণ মেধাবী মিউজিশিয়ান রয়েছে। তাদের প্লাটফর্ম গড়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে।

Bootstrap Image Preview