Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২০ বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বার ২০১৮ | ৫ আশ্বিন ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

সাংবাদিকরাই শিক্ষার লক্ষ্য অর্জনের সহযাত্রী : শিক্ষামন্ত্রী

আসাদুল্লা লায়ন
রিপোর্টার
প্রকাশিত: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০৯:৫১ AM আপডেট: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০:০৬ AM

bdmorning Image Preview


বিশ্বমানের শিক্ষা ব্যবস্থা গড়ে তোলার যে কার্যক্রম এটা একটা দীর্ঘ সংগ্রাম ও লড়াইয়ের প্রক্রিয়া এই সংগ্রমে আমাদের একসাথে হাতে হাত রেখে চলতে হবে বলে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, সাংবাদিকরাই আমাদের এই শিক্ষার লক্ষ্য অর্জনের সহযাত্রী।

রবিবার (৯ সেপ্টেম্বর) আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট এর মিলানায়তনে এডুকেশন রিপোর্টস অ্যাসোসিয়েশন এর অভিষেক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সংগঠনটিকে উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের ভুল ত্রুটি তুলে ধরে আপনারা যদি কোন সংবাদ প্রকাশ করেন তাহলে আমরা কখনোই সেটার প্রতিবাদ করি না বরং আমাদের ভুল শুধরাতে আপ্রাণ চেস্টা করি। কারণ যে ভুল ধরিয়ে দেয় সেই প্রকৃত বন্ধু বলে মনে করি আমি।

তিনি বলেন, সংবাদপত্র হল একটা সমাজের দর্পণ, এটা সমাজের ময়লা আবর্জনা পরিস্কার করে সমাজকে আলোকিত করার চেষ্টা করে। তবে সংবাদ হতে হবে সত্য ও বস্তুনিষ্ঠ তাতে সমাজ উপকৃত হবে। কিন্তু ভুল সংবাদ প্রকাশে একজন মানুষের জীবন বিপন্ন হতে পারে তাই এমন কোন সংবাদ প্রকাশ করা যাবে না যেটার জন্য কাউকে হেয় প্রতিপন্ন হতে হয়।

 ‘আমি যদি মন্দ হই তাহলে আমি সরে যাবো, কারণ আমি প্রকৃত শিক্ষার বিস্তার চাই যেটা সমাজের কাজে দিবে এবং একটা কলুষমুক্ত শিক্ষা ব্যবস্থাই আমার কাম্য। দেশের শিক্ষা ব্যবস্থায় আমি সামান্য একজন কর্মীমাত্র, মুল নিয়ামক হল শিক্ষক। যে শিক্ষা আপনি বাস্তব জীবনে প্রয়োগ করতে পারবেন না সেটা অর্থহীন’ যোগ করেন শিক্ষামন্ত্রী।

তিনি আরো বলেন, আমার অনেক সমালোচনা করা হয় বিভিন্ন সময় কিন্তু আমি কখনো এটার প্রতিবাদ দেইনা বরং যে আমার ভুল ধরিয়ে দেন তার জন্য আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করি তার জন্য যে তিনি খুব ভাল কাজ করেছেন। কারণ ওই ভুলটা আমি যেন আর না করি। শুধু সংবাদ সংগ্রহ করা প্রকাশ করার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকলে হবে না জ্ঞানের পরিধিটাও বাড়াতে হবে। সেজন্য সঠিক শিক্ষা অর্জনের প্রয়োজন আছে।

এর আগে এডুকেশন রিপোর্টস অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ এর সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান খান বাংলাদেশ যে সমুদ্রসীমা জয় করেছে তার গভীরে যেসব সম্পদ রয়েছে তা সম্পর্কে অবগত হতে ব্যাপকভাবে পড়াশোনার সুযোগ সৃষ্টি করতে শিক্ষামন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানান। জবাবে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, এর জন্য আমাদের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। আরো ব্যাপকভাবে সুযোগ সৃষ্টি করা হয়ে এর জন্য প্রয়োজন দক্ষ শিক্ষক।

এসময় মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো: সোবহান হোসাইন বলেন, কারো একক প্রচেষ্টায় নয়, সম্মিলিত প্রচেষ্টাই পারে দেশকে লক্ষ পূরণে এগিয়ে নিতে। এজন্য আমাদেরকে শিক্ষা ব্যবস্থাসহ সকল অঙ্গনে একযুগে কাজ করে যেতে হবে।

এতে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান বলেন, শিক্ষা খাতই বাংলাদেশে সবচেয়ে গুরুত্বপুর্ন। ৩৮ লক্ষ ছেলে মেয়ে পড়াশুনা করছে। আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থাকে আরো গুরুত্ব দেয়া দরকার। আর সাংবাদিকরা ভালো-মন্দ গুরুত্ব সহকারে তুলে ধরুন। অতিরঞ্জিতও যেনো না হয়।

Bootstrap Image Preview