Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২২ শনিবার, সেপ্টেম্বার ২০১৮ | ৬ আশ্বিন ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

‘নেতা কর্মীদের অনেকের অনেক মতামত থাকতে পারে’

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২ আগস্ট ২০১৮, ০২:৫৬ PM আপডেট: ১২ আগস্ট ২০১৮, ০২:৫৬ PM

bdmorning Image Preview


নতুন করে দল গোছাচ্ছে জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)। সেই আঙ্গিকে কক্সবাজার জেলার পেকুয়া উপজেলাও বিএনপির নবগঠিত আংশিক কমিটি ঘোণা করা হয়েছে।  পূর্ণাঙ্গ কমিটি না হয়ে কেন আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হলো তা নিয়ে একটি সাক্ষাৎকার নিয়েছেন বিডিমর্নিং এর কক্সবাজার জেলার চকরিয়া থানার প্রতিনিধি রিদুয়ান হাফিজ।

বুধবার ৯ আগস্ট রাত ৯ টার সময় কক্সবাজার জেলার অন্তর্গত পেকুয়া উপজেলা বিএনপির নবগঠিত আংশিক কমিটির সম্পর্কে বিশেষ সাক্ষাৎকার দেন পেকুয়া উপজেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন সিকদার।

 

রিদুয়ান হাফিজ: পেকুয়া উপজেলা বিএনপির আংশিক কমিটিটি কয় সদস্য বিশিষ্ট ঘোষণা করা হয়েছে?
আনোয়ার হোসেন সিকদার: ছয় সদস্য।

রিদুয়ান হাফিজ: মনে হয় একজন পদত্যাগ করেছে?
আনোয়ার হোসেন সিকদার: শুনেছি, কিন্তু যেহেতু বিধি মোতাবেক সভাপতি বরাবর পদত্যাগপত্র জমা দেননি সেহেতু সেটা গ্রহণযোগ্য নয়।

রিদুয়ান হাফিজ: আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এ কমিটি কি ধরনের ভূমিকা রাখতে পারে?
আনোয়ার হোসেন সিকদার: এরা তো পরীক্ষিত, আমি আশা করি আগের অভিজ্ঞতার আলোকে এ কমিটি খুব ভাল ভূমিকা রাখতে পারবে।

রিদুয়ান হাফিজ: পেকুয়া উপজেলা বিএনপির নবগঠিত আংশিক কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও পেকুয়া উপজেলা যুবদলের সাবেক সভাপতি, উপজেলা চেয়ারম্যান শেফায়ত আজিজ রাজু ফেইজবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে বলেন, আমি যুবদল পরিচালনা করতে ব্যর্থ হয়েছি সেজন্য পেকুয়া উপজেলা যুবদলের কমিটি ভেঙে দেওয়া হয়েছে, ফলে আমি কিভাবে আমি উপজেলা বিএনপির দায়িত্ব পালন করতে পারব? এ উক্তিটি কি যৌক্তিক মনে করেন?
আনোয়ার হোছেন সিকদার: বিএনপি নিঃসন্দেহে একটা বড় দল, এখানে নেতা কর্মীদের অনেকের অনেক মতামত থাকতে পারে এটা যৌক্তিক। তিনি অনেক অভিজ্ঞ মানুষ, এ বিষয়ে তিনি আমার চেয়ে অনেক ভাল বলতে পারবেন। আমি কোন মন্তব্য করতে পারলাম না, দুঃখিত।

রিদুয়ান হাফিজ: পেকুয়া উপজেলা বিএনপির আংশিক কমিটির নবনির্বাচিত সভাপতি বাহাদুর শাহ আগের কমিটির দীর্ঘদিন সভাপতি ছিলেন, অনেকদিন সভাপতি থাকার পর দলের কেমন অগ্রগতি হয়েছে?
আনোয়ার হোসেন সিকদার: তিনি বিএনপি’র হাল ধরে আছেন বলেই পেকুয়া বিএনপি টিকে আছে, আমি উনার শুভ কামনা করছি।

রিদুয়ান হাফিজ: পেকুয়া উপজেলা বিএনপির নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক মাস্টার ইকবাল হোছাইন আগের কমিটিতে দীর্ঘদিন সাধারণ সম্পাদক ছিলেন তিনি বিএনপিকে সুসংগঠিত করতে কতটুকু ভূমিকা রাখতে সক্ষম হয়েছেন?
আনোয়ার হোসেন সিকদার: ইকবাল সাহেব অনেক ভাল এবং সাংগঠনিক অভিজ্ঞ লোক বলেই তো আমার মনে হয়। তাঁকে আবারও সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। আসলে উনি অনেক Successful man।

রিদুয়ান হাফিজ: পেকুয়া উপজেলা হচ্ছে বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব সালাহ উদ্দিন আহমদের হাতের গড়া উপজেলা। তিনি পেকুয়া উপজেলার সবকমিটি দেখাশুনা করে থাকেন, দীর্ঘদিন তিনি ভারতের শিলং এ অবস্থান করছেন ফলে বিএনপির কোন ধরণের সমস্যা হচ্ছে কি?
আনোয়ার হোসেন সিকদার: কোন সমস্যা নাই, চকরিয়া-পেকুয়াতে প্রিয় নেতা সালাউদ্দিন আহমদ সাহেবের ছায়াই যথেষ্ট।

রিদুয়ান হাফিজ: পেকুয়া উপজেলা যুবদলের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ইউছুপ রুবেলকে পেকুয়া উপজেলা বিএনপির নবগঠিত কমিটিতে সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক করা হয়েছে, তিনি কি অনুভূতি প্রকাশ করেছেন?
আনোয়ার হোসেন সিকদার: ফেসবুকে তে তো দেখলাম উনি শুকরিয়া আদায় করছেন।

রিদুয়ান হাফিজ: পেকুয়া উপজেলা বিএনপির পূর্ণাজ্ঞ কমিটি কয় সদস্য বিশিষ্ট হতে পারে?
আনোয়ার হোসেন সিকদার: সরি ভাই, পেকুয়া উপজেলা একজন জাতীয় নেতার এলাকা তাই আমার কোন মন্তব্য নাই।

রিদুয়ান হাফিজ: সময় দেওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।
আনোয়ার হোসেন সিকদার: আপনাকে ও বিডিমর্নিং এর পরিবারের সকলকে ধন্যবাদ ও শুভ কামনা।

Bootstrap Image Preview