Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২১ বুধবার, নভেম্বার ২০১৮ | ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

খালেদার নির্দেশে ৬০ আসনে প্রার্থী পাল্টাচ্ছে বিএনপি

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৫ ডিসেম্বর ২০১৭, ০২:০৮ PM
আপডেট: ২৫ ডিসেম্বর ২০১৭, ০২:০৮ PM

bdmorning Image Preview


বিডিমর্নিং ডেস্ক-

আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৬০টি আসনে প্রার্থী পরিবর্তনের তালিকা করছে বিএনপি। বার্ধক্য, নিষ্ক্রিয়তা কিংবা অজনপ্রিয়তার কারণে এসব আসনে বিকল্প প্রার্থীর কথা ভাবা হচ্ছে বলে বিএনপির একাধিক নেতার কাছ থেকে জানা গেছে।

সূত্রে জানা গেছে, চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নির্দেশে স্থায়ী কমিটির এক সদস্যের নেতৃত্বে নির্বাহী কমিটির বেশ কয়েকজন সম্পাদক পর্যায়ের নেতা এ কাজটি করছেন। ইতিমধ্যে একটি খসড়া তালিকাও তাঁরা  তৈরি করেছেন।

দলীয় সূত্রে আরো জানা গেছে, আইনি জটি লতার কারণে নবম সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে না পারলেও রাজশাহী-৫ আসন থেকে অ্যাডভোকেট নাদিম মোস্তফা, নাটোর-২ থেকে অ্যাডভোকেট রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, সিরাজগঞ্জ-২ থেকে ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু এবং ঢাকা-২ আসন থেকে আমানউল্লাহ আমানকে মনোনয়ন দেওয়া হতে পারে। সিরাজগঞ্জ-৫-এ মেজর (অব.) মঞ্জুর কাদেরের স্থানে সিরাজগঞ্জ জেলা বিএনপির সহসভাপতি ও তরুণ শিল্পপতি রকিবুল করিম খান পাপ্পুকে মনোনয়ন দেওয়া হতে পারে।

তা ছাড়া ব্যারিস্টার শাজাহান ওমরকে ঝালকাঠি-১ আসনে নতুন প্রার্থী হিসেবে রাখা হয়েছে। আর ঢাকা-১৮ আসনে মেজর (অব.) কামরুল ইসলাম ও বিকল্প হিসেবে বাড্ডার কমিশনার এম এ কাইয়ুম এবং ফরিদপুর-৩ আসনে চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ ও বিকল্প হিসেবে মাহবুবুল হাসান পিংকুকে তালিকায় রাখা হয়েছে।

ফজলুর রহমান পটলের মৃত্যুতে নাটোর-১ আসনে তাঁর স্ত্রী অধ্যক্ষ কামরুন্নাহার শিরিনকে রাখা হয়েছে তালিকায়। আর স্থায়ী কমিটির সদস্য এম কে আনোয়ার মারা যাওয়ায় কুমিল্লা-২ আসন এবং মোজাহার হোসেন মারা যাওয়ায় পঞ্চগড়-২ আসনে নতুন প্রার্থীর খোঁজ চলছে। এই দুই আসনে এখনো যোগ্য কাউকে পাওয়া যায়নি বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

সাবেক সংসদ সদস্য প্রয়াত নাসির উদ্দিন আহম্মেদ পিন্টুর আসন ঢাকা-৭-এ তাঁর স্ত্রী নাসিমা আক্তার কল্পনাকে প্রার্থী ভাবা হচ্ছে। আর খুলনা-৪ আসনে সাবেক সংসদ সদস্য নুরুল ইসলাম দাদুভাই অসুস্থ থাকায় এবং নবম সংসদ নির্বাচনে মনোনয়ন পাওয়া শাহ শরিফ কামাল তাজ রাজনীতিতে সক্রিয় না থাকায় সেখানে ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি আজিজুল বারী হেলালের নাম রাখা হয়েছে।

এ ছাড়া নিখোঁজ ইলিয়াস আলীর আসন সিলেট-২-এ তাঁর স্ত্রী তাহসীনা রুশদী লুনাকে প্রার্থী তালিকায় রাখা হচ্ছে। আর মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় ফাঁসি হওয়া সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরীর আসন চট্টগ্রাম-২-এ তাঁর স্ত্রী ফরহাদ কাদের চৌধুরী অথবা ছেলে হুম্মাম কাদের চৌধুরীকে মনোনয়ন দেওয়া হতে পারে। তবে এ আসনে সাংবাদিক নেতা কাদের গনি চৌধুরীও আগ্রহী।

পাবনা-১ আসনে খালেদা জিয়ার বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাসকে মনোনয়ন দেওয়ার বিষয়ে বলা হলেও জামায়াত এ আসনে ছাড় দেবে না বলে মনে করছে বিএনপি। এই আসনে জামায়াতের সাবেক আমির, মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় ফাঁসি হওয়া মতিউর রহমান নিজামী নির্বাচন করতেন।

এদিকে সাখাওয়াত হোসেন বকুল, নজির হোসেন, জহির উদ্দিন স্বপন দলে ফিরে আসায় তাঁদের মনোনয়নের বিষয়ে নতুন করে ভাবতে হচ্ছে বিএনপিকে। বরিশাল-১ আসনে স্বপন ও বিকল্প হিসেবে উত্তর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আকন কুদ্দুসুর রহমানকে; নরসিংদী-৪ আসনে বকুল ও বিকল্প হিসেবে স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েল; সুনামগঞ্জ-১ আসনে নজির হোসেন ও বিকল্প হিসেবে ডা. রফিক চৌধুরীকে রাখা হয়েছে। তা ছাড়া যশোর-৬ আসনে সংস্কারপন্থী নেতা মফিকুল হাসান তৃপ্তি, ময়মনসিংহ-৪ আসনে আরেক সংস্কারপন্থী দেলোয়ার হোসেন দুলুর নাম রাখা হলেও সেখানে অন্য কোনো যোগ্য প্রার্থী খোঁজা হচ্ছে বলে উল্লেখ করেছে কমিটি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, আন্দোলনে যাঁরা ভূমিকা রেখেছেন এবং ভবিষ্যতেও থাকবেন তাঁদের মধ্যে যোগ্য, ত্যাগী ও জনপ্রিয়দের মনোনয়ন দেওয়া হবে।

Bootstrap Image Preview