Advertisement

২ মাস ধরে তিব্র গ্যাস সংকটে মিরপুরবাসী

প্রকাশঃ এপ্রিল ২১, ২০১৭

Advertisement

বিডিমর্নিং ডেস্ক-

আজ শুক্রবার সকাল থেকে গ্যাস নেই রাজধানীর মিরপুর এলাকায়। অন্যান্য দিন গ্যাস আসে গভীররাতে। সকাল থেকেই এলাকার অনেক বাসায় গ্যাস আসেনি। ফলে রান্না-বান্নাও হয়নি। আর ছুটির থাকায় সংকটে আরও চরমে আকার ধারণ করেছে।

গত দুই মাস ধরেই রাত ৪টার দিকে গ্যাস আসে আর সকালে চলে যায়। দুপুরে ৩টার দিকে আবার গ্যাস আসে। তবে সন্ধ্যা ৬টা না বাজতেই গ্যাস চলে যায়। সাধারণরত গ্যাস না থাকার ঘোষণা আগে থেকেও দেওয়ার কথা থাকলেও এখন ঘোষণাও দেওয়া হয় না।

স্থানীয় বাসিন্দা আনিসা ইসলাম বলেন, ‘গত দুইমাস ভোর বেলা উঠে রান্না করি। আজ উঠে গ্যাস পাইনি। দুই সন্তান নিয়ে ১০ নম্বরে মুসলিম বিরিয়ানি খেতে এসে দেখি তাও শেষ। এখন ফাস্টফুড কিনে বাসায় ফিরছি।’

গ্যাস না থাকায় মানুষজন হোটেল থেকে খাবার কিনে খাচ্ছে। স্থানীয়দের অভিযোগ, মেট্রো রেল আর ওয়াসার খোঁড়াখুড়ির চলছে দুই মাস ধরে। রাস্তা খোঁড়াখুড়ির কারণে চলাচলের সমস্যায় সঙ্গে এখন গ্যাসের সমস্যাও যুক্ত হয়েছে, বলেও জানান তারা।

মিরপুর ১৪ নম্বরের বাসিন্দা শামীম আরা বলেন, ‘গত দুই মাস থেকে রাত ৪টার দিকে গ্যাস আসে সকালে চলে যায়। পরে দুপুরে ৩টার দিকে আসে ৬টার দিকে চলে যায়। এসব দেখার কেউ নাই। বাড়িওয়ালাকে জিজ্ঞেস করলে বলেন, রাস্তায় কাজের জন্য এলাকায় গ্যাস বন্ধ।’

গার্মেন্টস কর্মী হাসান জানান, ‘আজ ছুটির দিন। বাসায় আরাম করে খাবো তার উপায় নাই। অন্যদিন আমাদের বাসায় খালা সন্ধ্যা ৬টার সময় গ্যাস পান। সে সময়কার রান্না আমরা পরের দিন খাই। শুক্রবার ভোররাতে উঠে নিজেরাই রান্না করি কিন্তু আজ ভোরে গ্যাস না আসায় এই অবস্থা।’

তিতাস গ্যাসের জনসংযোগ বিভাগের ব্যবস্থাপক মো. ওয়াহেদুজ্জামান বলেন, ‘মেট্রো রেলের কারণে মিরপুর এলাকায় গ্যাস লাইন নতুন করে স্থানান্তর করা হচ্ছে। এ কারণে গত রাত ১০টা থেকে গ্যাস লাইন বন্ধ রাখা হয়েছে। বড় পাইপের ভেতরের জমা গ্যাস বের করতে কিছুটা সময়ে লাগে। এজন্য সকাল ৮টার পরিবর্তে বেলা দেড়টার পর পাইপে গ্যাস সরবরাহ করা হয়।’ দেড়টার পর পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়েছে বলেও জানান তিনি।

Advertisement

 

Advertisement

কমেন্টস