১টি বইয়ে মিলবে ৩জন পথশিশুর খাবার

প্রকাশঃ ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৮

রায়হান শোভন ।।

বর্তমান প্রতিযোগিতার যুগে সবাই চায় কিভাবে অধিক মুনাফা অর্জন করা যায়। অর্জিত মুনাফা দিয়ে মানব কল্যাণকর কাজ করার নমুনা বর্তমান বাস্তবতায় খুবই নজিরবিহীন। অমর একুশে গ্রন্থমেলায় পাওয়া গেছে বিদ্যানন্দ প্রকাশনী নামের এমনই একটি প্রতিষ্ঠানের নির্দশন। যারা তাদের অর্জিত মুনাফার পুরো টাকাই ব্যয় করছেন সমাজের অবেহেলিত ও সুবিধাবঞ্চিত শ্রেণীর মানুষদের জন্য। যাদের বিক্রিত একটি বইয়ের লভ্যাংশের টাকায় একবেলা খাবার খাবে ৩ জন পথশিশু।

বিদ্যানন্দ একটি শিক্ষা সহায়ক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। বর্তমানে তাদের ৪০ জন কর্মকর্তা এবং কয়েকশ স্বচ্ছাসেবক আর আটটি আঞ্চলিক শাখা নিয়ে স্বপ্ন দেখছে নিজস্ব ক্যাম্পাসে নবনির্মিত অনাথাশ্রম নিয়ে একটি পরিপূর্ণ স্কুলের। বিদ্যানন্দের প্রতিষ্ঠাতা কিশোর কুমার দাশ নিজেই ছিলেন একজন সুবিধাবঞ্চিত শ্রেণীর মানুষ। প্রতিষ্ঠার নিজ উদ্যেগে প্রতিষ্ঠানটির সূচনা হলেও বর্তমানে অজস্র মানুষের সহায়তায় বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটি তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করছে। বাংলা একাডেমির মূল ফটক দিয়ে প্রবেশ করে সোজা গিয়ে হাতের ডান দিকে দেখা মিলবে বিদ্যানন্দ নামের ৫৪ নম্বর স্টলটির।

সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মৌলিক জ্ঞান দানের জন্য তারা নিয়েছেন নানা ধরণের উদ্যোগ। বর্তমানে তাদের ৮টি শাখাতে ১২০০ এর অধিক শিক্ষার্থীদের পাঠদান করা হচ্ছে। স্কুল শিক্ষার্থীদেরে ঝরে পরা প্রতিরোধ এবং পথশিশুদের শিক্ষা নিশ্চিত করার জন্য তারা শুরু করেছেন এসব সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য “এক টাকায় আহার” কার্যক্রম। বিদ্যানন্দ প্রতিদিন ৩ হাজার পথশিশুর খাবারের সংস্থান করে আসছে দীর্ঘদিন ধরে। তরুণ প্রতিশ্রুতিশীল লেখক ও সাহ্যিতিকদের জন্য তাদের প্রকাশনী সংস্থা ‘বিদ্যানন্দ’।

মেহেদী হাসান জনি নামের বিদ্যানন্দের একজন স্বেচ্ছাসেবক বিডিমর্নিংকে বলেন, আমরা এখানে সম্পূর্ণ বিনা পারিশ্রমিকে কাজ করছি বিদ্যানন্দ স্টলে। আমরা আমাদের নিজস্ব অবস্থান থেকে কাজ করছি। আমরা একটা উদ্দেশ্য নিয়েই কাজ করছি। আমরা চাই আমরা যেমন সমাজেরসুবিধাবঞ্চিতদের নিয়ে কাজ করছি আমাদের দেখে যাতে সমাজের অন্যরা অনুপ্রাণিত হয়ে সমাজের এসব অবেহেলিত শ্রেণীর পাশে দাঁড়াতে পারে।

আরফাত নামের বিদ্যানন্দের এক স্বেচ্চছাসেবক বিডিমর্নিংকে বলেন, আমরা আমাদের সংগঠন থেকে প্রতিদিন প্রায় ৩ হাজার পথশিশুর খাবারের ব্যবস্থা করে থাকি। প্রতিদিন এসব শিশুদের সবজি খিচুরি দিয়ে থাকি আমরা ১টাকার বিনিময়ে। আমারা তাদের কাছে ১টাকা নেই যাতে তারা না মনে করে যে তাদের যে খাবারটা দেওয়া হচ্ছে সেটা বিনামূল্যে দেওয়া হচ্ছে। এবারের মেলায় আমরা পাঠকদের জন্য দিচ্ছি বিশেষ উপহার। পাঠকারা আমাদের স্টল থেকে ১হাজার টাকার বই কিনলে সাথে পাচ্ছেন ১টি টি-শার্ট ও একটি মগ।

এছাড়া ৫০০ টাকার বই কিনলে দেওয়া হবে পথশিশুদের জন্য একটি কুপন। যে কুপনটি দেখালেই পথশিশুরা পাবেন চানখারপুল ক্যান্ডেল লাইট থাই এন্ড চাইনিজ রেস্তোরায় একবেলা খাবারের সুযোগ। তিনি আরো বলেন,আমাদের মূল লক্ষ্যেই হচ্ছে সমাজ থেকে বৈষম্য দূর করে একটি সুন্দর সমাজ গড়ে তোলা।

কমেন্টস