ঢাকায় বেড়েই চলছে যানজট, ট্রাফিকের ভরসা এখন রঙ্গিন দড়ি

প্রকাশঃ অক্টোবর ১৩, ২০১৭

লাল বৃত্তের ভিতরে দড়ি

ইয়াসিন অভি, ঢাবি প্রতিনিধি-

রাজধানী ঢাকার ট্রাফিক ব্যবস্থাপনায় সিগন্যালে এখন দড়ির ব্যবহার বেড়েই চলছে। ট্রাফিক বিভাগ বলছে, দুর্ঘটনা ঠেকাতে ও যানজট কমাতে এ ব্যবস্থা।

রাজধানীর বিজয় সরণিতে বৃহস্পতিবার বিকেলে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় দক্ষিণ ও পশ্চিম দিকে সিগন্যাল পড়লেই দড়ি বাঁধা হয়। এসআই সেলিম আহমেদ তখন ট্রাফিক ব্যবস্থাপনায় সহযোগিতা করছিলেন।

তিনি বলেন, মূলত মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণের জন্য দড়ি লাগানো হয়। অফিস শুরু ও শেষের সময়টাতে যানবাহনের প্রচুর চাপ থাকে। কিন্তু মোটরসাইকেলগুলো ট্রাফিক পুলিশকে ছাড়িয়ে বেশ কিছু দূর সামনে চলে যায়। আর সুযোগ পেলে সিগন্যালও অতিক্রম করে। দুর্ঘটনাও ঘটে। দড়ি দিয়ে বেঁধে দিলে তা হয় না।

বিজয় সরণিতে সিগনালে বসে থাকা ঢাবি শিক্ষার্থী ফয়সাল বলেন, বেশ কিছু দিন ধরে দেখছি সিগনালে দড়ি ব্যাবহার করা হচ্ছে। এতে করে ভালোই হচ্ছে। আমরা রাস্তা পার হতে সমস্যা থাকবে না। এতে করে কিছু মোটরচালকদের দৌরাত্য কমবে, তারা হুট করেই সিগনাল অমান্য করতে পারবে না।

আজ শুক্রবার সকালে পান্থপথে ও দেখা যায় একই রকম চিত্র। দড়ির ব্যবহার সম্পর্কে জানতে চাইলে দায়িত্বরত ট্রাফিকের টিআই খাদেমূল ইসলাম বলেন, ঢাকা শহরে দিন দিন যানজট বেড়েই চলছে। যাহা নিয়ন্ত্রণ করা কষ্টসাধ্য। দেখাযায় সিগনালের মধ্যেও কিছু গাড়ি সিগনাল না মেনে রাস্তা ক্রস করে, এতে করে দুর্ঘটনা ঘটার সম্ভবনা অনেক বেশি। তাই সিগন্যাল গুলোতে এখন দড়ি ব্যাবহার করা হয়।

পান্থপথ থেকে যাত্রাবাড়ি যাওয়ার পথে এক মোটরবাইক চালক বলেন, এটা মূলত ভালো হয়েছে। এতে করে কিছুটা হলেও ট্রাফিক ব্যাবস্থা উন্নত হয়েছে।

ট্রাফিক পশ্চিম বিভাগের উপ-কমিশনার লিটন কুমার সাহা এ দড়ি ব্যবস্থা সম্পর্কে এ প্রতিবেদককে বলেন, শৃঙ্খলা বজায় রাখতে নাইলনের দড়ি ব্যবহার করা হচ্ছে। তাঁরা রঙিন দড়ি বাঁধেন। এতে দূর থেকে দেখা যায়। রং উঠে গেলে আবার নতুন করে দড়ি লাগানো হয়। তিনি আরও বলেন, বেশ কয়েক মাস ধরেই এ পদ্ধতি চালু হয়েছে। অটো সিগন্যাল ব্যবস্থা চালু হলে এটা বন্ধ হয়ে যাবে।

Advertisement

কমেন্টস