নববধূ পড়শীর প্রেম-বিরহ-ভালবাসায় জুয়েলের ফিরে আসা 

প্রকাশঃ এপ্রিল ১৩, ২০১৭

Advertisement

শাহরিয়ার নিশান।।

বিয়ের কিছু দিনের মাঝে যখন স্বামীকে কাজের সন্ধানে দূর দেশে চলে যেতে হয়, তখনতার প্রত্যাগমনের আগ পর্যন্ত স্ত্রীরচোখে সহজে ঘুম আসে না। স্বামীর চিন্তায় তখন মনেআর কিছুই বিরাজ করে না। দিন যত যায় স্ত্রীরচিন্তা তত অস্পষ্ট এবংআবেগ-নির্ভর হয়ে ওঠে। তখন চিন্তায় যতটা কল্পনা থাকে তার চেয়ে হতাশা বেশি থাকে। আর হতাশা তার মনকে অন্তরমুখী করে দেয়। এমন বিরহ যন্ত্রণায় আক্রান্ত ‘নববধূ পড়শী’।

‘স্বামী জুয়েলে’র বিরহ ঘিরেই যেন তার বসবাস। ভালোবাসার নিদারুণ এ প্রেমে একটি অসুস্থ মন ঘুমাতে ব্যর্থ হয়। প্রতিটি মুহূর্তে মন তখন সন্ধান করে প্রিয় মানুষটিকে। তাকে অনুভব করতে পারে না বলে অনুভবের কথা অতীতের তথ্যভাণ্ডার থেকে স্মরণ করে প্রতিনিয়ত। প্রিয় মানুষটির অনুপস্থিতিতে যে শূন্যতা সৃষ্টি হয়েছে তারসন্ধান চলতে থাকে ক্ষণে ক্ষণে।

অপর দিকে ‘নববধূ পড়শী’র বিরহ যন্ত্রনায় কোন কিছুতেই মন বসাতে পারে না ‘স্বামী জুয়েল’। খাওয়া থেকে কাজ সবকিছুতেই যেন তার কাছে শূন্যতা সৃষ্টি করে। ঘুরে ফিরে মনটি হারিয়ে যায় অসীম দিগন্তে। মন যত চিন্তা মুখর হয় তত সে নিজের মধ্যে লুকিয়েযেতে থাকে। কারণ সে বুঝে এ সত্য আপাতত তার পক্ষে নেই। নিজেকে রক্ষা করার জন্য আত্মগোপনই তার একমাত্র পথ।

অপর দিকে নববধূ তার বিরহ কাতরে এদিক থেকে ওদিকে ছুটে চলে প্রতিক্ষণে। স্বামীর চিন্তার আবরণ ভেদ করে মনেরমধ্যে ঘুমের প্রশান্তি প্রবেশ করার সুযোগ এখন আর নেই তার। সে যা ভাবে তা ঘটেনা। কিন্তু যা ঘটে বলে তার মনে হয়, দেখা যায় যে তা আসলে ঘটেনি, সে তা ভেবেছিল মাত্র। সব কষ্ট মন যখন নিজের মধ্যে জমা করে তখন সেনিজেকে নিয়ে ব্যস্ত হয়ে যায়। দেহের ক্লান্তির কারণে চোখের পাতা ভারি হয়ে আসা সত্ত্বেও তার ঘুম নয় বরং চিন্তাগুলোই ভর করে। কারণ স্বামীর ফিরে আসার সময়টা আর কোনোভাবেই দূরবর্তী হতে পারে না। তাকে আসতেই হবে, তার চলে আসাই উচিত। তার মন স্বামীর জন্য ব্যাকুল হয়ে উঠেছে… এলো চুল পানিতে ছড়িয়ে নিজেকে বিলিয়ে দেয় নদীর জলে।

হঠাৎ একদিন হাজির হয় প্রিয় মানুষটি। আনন্দে আত্মহারা নববধূদৌড়েছুটে গিয়ে জড়িয়ে ধরে তাঁকে। অবশেষেঘটে তাদের প্রেম-বিরহ-ভালবাসার গল্পের মধুর সমাপ্তি…

সবুজ অরণ্য, মেঠো পথ, উদাস মনেরই এক প্রতিরূপ। বাসের চাকায় পিচ ঢালা পথ মাড়িয়ে গেলেও মন পড়ে রয় সেই ঝিলের ধারের মেঠো পথটিতে। যেখানে মিশে আছে বিরহ গাঁথা সুতার টান। এই টানেই নববধূর স্পর্শ জড়িয়ে আছে। তাইতো ঘরে ফেরার জন্য চাতক পাখির মত অপেক্ষায় থাকে স্বামীর মন। কখন সে বাড়ি ফিরবে বউয়ের আলতা মাখা পায়ে ভালোবাসার শিকল জড়াবে। নিজের সাথে বেঁধে রাখবে প্রেমময় মায়ায়। এ বাঁধন এক অলৌকিক মায়া। যার শুরু-শেষ শুধু দু’জনায়।

আসলে ঘটনাটি কী? না পড়শী-জুয়েলের যে মধুর বিরহ প্রেম কাহিনী তুলে ধরা হয়েছে সেটি আসলে তাদের নতুন মিউজিক ভিডিও‘মন ভুইলা’র। সিডি চয়েজের ব্যানারে ভিডিওটি ইতোমধ্যে প্রকাশ পেয়েছে ইউটিউবে।তানজিব সারোয়ারের কথা ও সুরে গানটি গেয়েছেন পড়শী ও জুয়েল মোর্শেদ। শাহরিয়ার পলকের পরিচালনায় গ্রামীণ প্রেক্ষাপটে নির্মিত এই ভিডিওটিতে নিজেরাই স্বামী-স্ত্রীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন তারা।ঢাকা, পুবাইল,  নারায়ণগঞ্জ ও পদ্মা নদীর পাড়ে মিউজিক ভিডিওটির দৃশ্যধারণ করা হয়েছে।

দেখে নিন ভালোবাসাময় ‘মন ভুইলা’র ভিডিওটি-

Advertisement

Advertisement

কমেন্টস