Advertisement

বাবার সাথে এবার অসুস্থ ‘শাকিবপুত্র’ আব্রাহাম

প্রকাশঃ এপ্রিল ১৩, ২০১৭

Advertisement

বিডিমর্নিং ডেস্ক-

হঠাৎ অসুস্থ হয়ে রাজধানীর ধানমন্ডির ল্যাব এইড হাসপাতালের জরুরি বিভাগে যান ঢালিউডের জনপ্রিয় নায়ক শাকিব খান। এরপর সেখানে তাঁর ইসিজি সম্পন্ন শেষে হাসপাতালের ভিআইপি ক্যাবিনে ভর্তি করা হয়।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে তিনি রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি হন। এদিকে স্বামীর অসুস্থতার খবর নিয়ে দুশ্চিন্তায় পরে যান স্ত্রী অপু বিশ্বাস।

স্ত্রী অপু বিশ্বাস মুঠোফোনে জানান, কিছু কেনাকাটা করতে বের হয়েছি। হঠাৎ করেই আমি শাকিবের অসুস্থতার খবর পাই। শাকিবের অবস্থার খবর রাখছি। আমি এখন বাসায় যাচ্ছি। কারণ আমার বাচ্চাও অসুস্থ। বাচ্চার কন্ডিশন (অবস্থা) দেখে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে হাসপাতালে যাব।’ এ সময় অপু বলেন, সবাই দোয়া করবেন শাকিব যেন সুস্থ হয়ে আবার সবার মাঝে ফিরে আসতে পারে।

ভর্তির পরপরই শাকিব খানকে দেখতে হাসপাতালে যান পরিচালক শামীম আহমেদ রনি। তিনি বলেন, ‘গতকাল রাতেই শাকিব খানের শরীর খারাপ হয়। কিন্তু তখন দেখে মনে হয়নি যে ডাক্তার দেখাতে হবে। আজ সকালে তাঁর পাকস্থলীর অবস্থা খারাপ হয়। এখন ডাক্তার দেখানোর পর অবস্থার আগের থেকে একটু ভালো।’ পরিচালক রনি আরো বলেন, ‘ভাইয়ার (শাকিব) মানসিক অবস্থা খুব একটা ভালো নেই।’

এদিকে, বেলা ১টার দিকে শাকিব খানকে হাসপাতালে ভর্তির পর খবর ছড়িয়ে পড়লে হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্স, স্টাফ কর্মকর্তা-কর্মচারীরা তাঁকে দেখতে শাকিবের রুমের সামনে ভিড় করছেন। তাঁরা নিজেদের পরিচয়পত্র দেখিয়ে রুমে প্রবেশের চেষ্টা করছেন। কিন্তু রুমের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা শাকিব খানের ব্যক্তিগত সহকারী ও নিরাপত্তাকর্মীরা তাঁদের প্রবেশ করতে দিচ্ছেন না। পরিচয়পত্র দেখে শুধুমাত্র অনুমোদিত চিকিৎসক ও নার্সরা ভেতরে প্রবেশ করতে পারছেন।

এর আগে গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় শাকিবের ঘনিষ্ঠ বন্ধু ও প্রযোজক মো. ইকবাল জানান, আগামী শুক্রবার পয়লা বৈশাখ। ওই দিন জুমার নামাজের পর রাজধানীর নিকেতনের বাসা থেকে অপুকে গুলশানের বাসায় তুলে নেবেন শাকিব।

ইকবাল বলেন, ‘আগামী শুক্রবার বাদ জুমা শাকিব নিজের পরিবার নিয়ে অপুর নিকেতনের বাসায় যাবেন। সেখান থেকে অপুকে তাঁর পরিবারের কাছ থেকে নিয়ে গুলশানে নিজের বাসায় যাবেন। ওই দিন থেকেই তাঁদের আনুষ্ঠানিকভাবে সাংসারিক জীবন শুরু হবে।’

শাকিব খানের এই ঘনিষ্ঠ বন্ধু আরো বলেন, ‘শাকিবের ইচ্ছা ছিল ছেলের প্রথম জন্মদিনে নিজের বিবাহিত জীবন সম্পর্কে সবাইকে জানাবেন। তাই টেলিভিশন চ্যানেলের সরাসরি (লাইভ) অনুষ্ঠানে হঠাৎ অপু ও ছেলেকে ওভাবে দেখে রেগে গিয়েছিলেন শাকিব।’

পয়লা বৈশাখে অপুকে ঘরে তোলার কথা গণমাধ্যমে প্রচারিত হলেও অপুর ঘনিষ্ঠ সূত্র জানায়, এ বিষয়ে অপুর সঙ্গে সরাসরি শাকিব খানের কোনো কথা হয়নি।

এর আগে গত সোমবার (১০ এপ্রিল) বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল নিউজ২৪-এর সরাসরি অনুষ্ঠানে অপু বলেন, ‘শাকিবের সঙ্গে আমার বিয়ে হয়েছিল ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল। বিয়ের সময় আমার নাম পরিবর্তন করা হয়েছিল। আমার নাম রাখা হয়েছিল অপু ইসলাম খান। বিয়ের সময় শাকিবের ভাই ও একজন প্রযোজক উপস্থিত ছিলেন। তাঁর কারণেই বিয়ের বিষয়টি গোপন রাখা হয়েছিল।’

অপু বিশ্বাস বলেন, ‘আমি কাল থেকে আজ পর্যন্ত একটা কথাই বলব। আমার সন্তানের স্বীকৃতি, আমার স্বীকৃতি পেয়ে গেছি এবং দশজন মানুষের কাছে আমি মুখ উঁচু করে চলতে পারব। এর থেকে বড়, মানে এর থেকে ভালো বলার আমার আর কোনো ভাষা নেই।’ তিনি বলেন, ‘আমার সন্তান, আমার সংসার, আমার স্বামী, আমার পরিবার এবং আমার সামাজিক মর্যাদা সবকিছু আমি পেয়ে গেছি। আমার এখানে কোনো ষড়যন্ত্র কাজ করবে না, কারণ এখানে আমি খুব বেশি ভালোবাসি আমার পরিবারকে।’

অপু বিয়ের কথা বললেও এই বিষয়টি প্রথমে স্বীকার করেননি শাকিব। পুরো বিষয়টিকে তিনি বাংলা ছবির ইন্ডাস্ট্রি এবং তাঁর তারকা ইমেজকে ধ্বংস করে দেওয়ার বিশাল চক্রান্ত হিসেবে দাবি করেছিলেন।

তবে পরদিন সঙ্গে আলাপকালে শাকিব খান বলেন, ‘চিত্রনায়িকা অপু আমার স্ত্রী আর আব্রাহাম আমারই সন্তান। অপুকে কেউ ভুল বুঝিয়ে আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করার চেষ্টা করেছে। এখন আমাদের সম্পর্ক স্বাভাবিক। গতকাল আমি রাগের মাথায় গণমাধ্যমে অনেক কথা বলেছি।’

Advertisement

 

Advertisement

কমেন্টস