বাংলাদেশে এই প্রথম ২০এমপি ফ্রন্ট ক্যামেরার ফোন আনছে ওয়ালটন

প্রকাশঃ আগস্ট ১৭, ২০১৭

বিডি মর্নিং ডেস্ক:

নিজের ছবি নিজে তোলাকে বলা হয় সেলফি। বর্তমান সময়টাকে বলা চলে সেলফি যুগ। হাল আমলে মোবাইল ফোনের সবচেয়ে কাক্সিক্ষত ফিচার এটি। সেলফিপ্রেমিদের জন্য ওয়ালটন দিচ্ছে নতুন চমক। প্রথম দেশীয় ব্র্যান্ড হিসেবে ২০ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরার স্মার্টফোন আনছে ওয়ালটন। জেডএক্স সিরিজের নতুন এই ফ্ল্যাগশিপ ফোনের মডেল ‘জেডএক্স-থ্রি’। যাকে বলা হচ্ছে ‘সেলফি কিং’।

বৃহস্পতিবার (১৭ আগস্ট) ওয়ালটনের নিজস্ব কার্যালয়ে নতুন এই হ্যান্ডসেটের মোড়ক উন্মোচন করা হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটন গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক ও বিপণন বিভাগের প্রধান সমন্বয়ক ইভা রিজওয়ানা, নির্বাহী পরিচালক এমদাদুল হক সরকার, হুমায়ূন কবির ও এসএম জাহিদ হাসান, সিনিয়র অপারেটিভ ডিরেক্টর উদয় হাকিম ও এসএম রেজওয়ান আলম, অ্যাডিশনাল ডিরেক্টর ফিরোজ আলম, ওয়ালটন সেল্যুলার ফোন বিপণন বিভাগের প্রধান আসিফুর রহমান খান, ডেপুটি ডিরেক্টর আরিফুল হক রায়হান, মিডিয়া উপদেষ্টা এনায়েত ফেরদৌস প্রমূখ।

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ‘সেলফি কিং’ খ্যাত এই ফোনের ফ্রন্ট ক্যামেরার অ্যাপারচার সাইজ এফ২.০। এতে আছে ৪ সেলের লাইট সেন্সর প্রযুক্তি। ফলে যে কোনো পরিবেশ ও আলোতে তোলা যাবে নিখুঁত ছবি। এর পিডিএএফ প্রযুক্তি ০.১ সেকেন্ডেই স্বয়ংক্রিয়ভাবে ক্যামেরার ফোকাস সেট করবে। রয়েছে ‘বোকেহ সেলফি মোড’। যার মাধ্যমে সাবজেক্টকে ফোকাস করে আশেপাশের সবকিছুকে ব্লার করে সেলফি তোলা যাবে। প্রতিটি ছবি হবে উজ্জ্বল ও প্রাণবন্ত।

নতুন এই ফোনের পেছনে রয়েছে ডুয়াল ক্যামেরা। যার একটিতে আছে ১৩ মেগাপিক্সেল লেন্স, অন্যটিতে ৫ মেগাপিক্সেল লেন্স। ১৩ এমপির মেইন ক্যামেরা ধারণ করবে ছবির ডিটেইলস। আর ৫ এমপির সেকেন্ডারি ক্যামেরা ধারণ করবে ছবির ডেপথ-অব-ফিল্ড ইনফরমেশন, যা ডিএসএলআর-এর মতো প্রফেশনাল ব্যাকগ্রাউন্ড ও ইফেক্ট দেবে। যাকে বলা হয় ‘পোর্টরেইট মোড’। সব ক্যামেরায় রয়েছে মাল্টিলেয়্যার লেন্স। যাতে ছবি হবে নিখুঁত ও ভাইব্র্যান্ট। ক্যামেরায় নরমাল মোড ছাড়াও ফেস বিউটি, এইচডিআর, টাইম ল্যাপস, শ্লো মোশন, প্যানোরমা, স্মার্ট সিন, নাইট মোড এবং জিফের মতো আকর্ষণীয় অপশন তো থাকছেই। রয়েছে প্রফেশনাল ক্যামেরা মোডে ছবি তোলার সুবিধা।

নতুন এই ফ্ল্যাগশিপ ফোনে ব্যবহৃত হয়েছে ৬ ইঞ্চির আইপিএস প্রযুক্তির ফুল এইচডি ডিসপ্লে। ফলে বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহারে এবং ভিডিও দেখা, গেম খেলা, বই পড়া বা ইন্টারনেট ব্রাউজিং হবে আরো প্রাণবন্ত ও গতিময়। ২.৫ডি কার্ভড গ্লাস ডিসপ্লে প্যানেল ব্যবহারের ফলে স্ক্রিন টাচে গ্রাহক আরো বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করবেন।

ফ্ল্যাগশিপ ফোনটির উচ্চগতি নিশ্চিত করতে রয়েছে ৬৪ বিট সম্পন্ন ২.৫ গিগাহার্জের কোর্টেক্স-এ৫৩ অক্টাকোর প্রসেসর। উন্নতমানের গেমিং ও স্পষ্ট ভিডিওর অভিজ্ঞতা দিতে গ্রাফিক্স হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে মালি-টি ৮৮০।

স্বাচ্ছন্দ্যে বিভিন্ন অ্যাপস ব্যবহার, ইন্টারনেট ব্রাউজিং, থ্রিডি গেমিং এবং দ্রুত ভিডিও লোড ও ল্যাগ-ফ্রি ভিডিও স্ট্রিমিং সুবিধা দেবে দ্রুতগতির ৪ জিবি এলপিডিডিআর৪এক্স র‌্যাম। আছে ৬৪ গিগাবাইট অভ্যন্তরীণ মেমোরি। যা মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে ২৫৬ গিগাবাইট পর্যন্ত বাড়ানো যাবে। ফলে অনেক বেশি ছবি, ভিডিও, ডকুমেন্টস ইত্যাদি সংরক্ষণ করা যাবে।

জেডএক্স-থ্রি’র অন্যতম ফিচার এর শক্তিশালী ব্যাটারি। ৪ হাজার ৫৫০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি দীর্ঘক্ষণ পাওয়ার ব্যাকআপ দেবে। ১৮ ওয়াট আল্ট্রা ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তি থাকায় খুব কম সময়ে পূর্ণ চার্জ হবে।

দুটি ন্যানো সিম ব্যবহারের সুবিধাসম্পন্ন ফোনটি থ্রিজি, ফোরজি এবং সিডিএমএ নেটওয়ার্ক সমর্থন করে। এটি অ্যান্ড্রয়েডের সবচেয়ে আকর্ষণীয় ও উন্নত সংস্করণ নূগাট ৭.০ অপারেটিং সিস্টেমে পরিচালিত। ফোনের তথ্য সুরক্ষায় রয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। আঙ্গুলের ছোঁয়ায় মাত্র ০.২ সেকেন্ডেই ফোনটি আনলক করা যাবে। অনলাইন কেনাকাটা বা অ্যাপ এক্সেসেও ফিঙ্গারপ্রিন্ট কাজ করবে। ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর হিসেবে পাঁচ আঙ্গুলের ব্যবহার করা যাবে।

বৃহস্পতিবার উন্মোচিত হলেও ওয়ালটনের সেলফি কিং এখনই হাতে পাচ্ছেন না স্মার্টফোনপ্রেমিরা। ওয়ালটন কর্তৃপক্ষ জানায়, আগামি মাসের মাঝামাঝি বাজারে আসছে ফোনটি। আকর্ষণীয় ডিজাইনের ফোনটি পাওয়া যাবে ধূসর ও মকা রঙে। দাম হবে ৩২ থেকে ৩৩ হাজার টাকার মধ্যে। তবে এখন থেকেই দেশের সকল ওয়ালটন প্লাজা ও ব্র্যান্ড আউটলেটে প্রি-অর্ডার নেয়া হবে। প্রি-অর্ডারে ক্রেতাদের জন্য থাকছে বিশেষ ছাড়।

উল্লেখ্য, দেশের সকল ওয়ালটন প্লাজা ও ব্র্যান্ড আউটলেটে ০% ইন্টারেস্টে ৬ মাসের ইএমআই সুবিধায় কেনা যাবে ‘সেলফি কিং’সহ ওয়ালটনের যেকোনো মডেলের স্মার্টফোন। রয়েছে ১২ মাসের কিস্তি সুবিধাও।

যা থাকছে ওয়ালটনের ‘সেলফি কিং’-এ

মডেল: ওয়ালটন প্রিমো জেডএক্স-থ্রি

ডিসপ্লে: ৬ ইঞ্চি ফুল এইচডি আইপিএস, ২.৫ডি কার্ভড গ্লাস

প্রসেসর: ২.৫ গিগাহার্জ কোর্টেক্স-এ৫৩ অক্টাকোর

গ্রাফিক্স: মালি-টি ৮৮০

র‌্যাম: ৪ জিবি ডিডিআর৪

স্টোরেজ: ৬৪ জিবি, মাইক্রো এসডি ২৫৬ জিবি

ফ্রন্ট ক্যামেরা: বিএসআই ২০ মেগাপিক্সেল, এলইডি ফ্ল্যাশ

রিয়ার ক্যামেরা: ডুয়াল বিএসআই ১৩ ও ৫ মেগাপিক্সেল, এলইডি ফ্ল্যাশ

ব্যাটারি: ৪,৫৫০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার লি-পলিমার

অপারেটিং সিস্টেম: অ্যান্ড্রয়েড নূগাট ৭

অন্যান্য: ফিঙ্গারপ্রিন্ট, মাল্টি ফাস্ট চার্জিং, ইন্টিগ্রেটেড পাওয়ার সেভিং মোড, মাল্টি উইন্ডো।

কমেন্টস