মুস্তাফিজ নয় ম্যাচ হারে মুম্বাই সমর্থকের কাঠগড়ায় বুমরা

প্রকাশঃ এপ্রিল ২৪, ২০১৮

বিডিমর্নিং স্পোর্টস ডেস্ক-

চলতি আইপিএল একে বারেই ভাল কাটছে না মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের জন্য। শুধু মুম্বাইয়ের দলটিরই নয়, দলের ক্রিকেটারদের জন্যও সময়টা বিশেষ সুবিধার নয়। গত বারের চ্যাম্পিয়নরা এখনও পর্যন্ত পাঁচটি ম্যাচ খেলে হেরেছে চারটিতে। গত ম্যাচে রাজস্থান রয়্যালসের বিরুদ্ধে জেতার সহজ সুযোগ থাকলেও, সেই সুযোগ হাতছাড়া হয়েছে বোলারদের ব্যর্থতায়। এতেই বাধ ভেঙেছে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের সমর্থকদের ধৈর্যের। দলের অন্যতম সেরা বোলার যশপ্রীত বুমরা-ই এখন ভিলেন তাঁদের নজরে। তবে এক্ষেত্রে ম্যাচ হারের জন্য মুস্তাফিজকে দায়ী করছে না মুম্বাই সমর্থকরা।

রাজস্থানের বিরুদ্ধে প্রথম তিন ওভার দুর্দান্ত বল করেন জাতীয় দলের এই পেসার। নিজের প্রথম ৩ ওভারে মাত্র ১০ রান খরচ করে বুমরা তুলে নেন দুই উইকেট। কিন্তু পুরো হিসেবটাই বদলে যায় তাঁর শেষ ওভারে অর্থৎ মুম্বইয়ের বোলিংয়ের ১৯তম ওভারে। শেষ দু’ওভারে জয়ের জন্য রাজস্থানের তখন প্রয়োজন ২৮ রান। কিন্তু বুমরার অনিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে সেই ১৯ তম ওভারে ওঠে ১৮ রান। প্রিয় দলের জয় দেখার আশা ওখানেই শেষ হয়ে যায় মুম্বাই সমর্থকদের।

রাজস্থানের বিরুদ্ধে হারের পর সমর্থকদের একের পর এক টুইট আছড়ে পড়ে বুমরার পারফরম্যান্স নিয়ে। যার অধিকাংশটিই ছিল ব্যাঙ্গার্থক।

এক সমর্থক টুইটে লেখেন, ‘নো বল করা এবং নিজের দলকে হারানোই যশপ্রীত বুমরার শখ।’ বুমরাকে ট্যাক্সি চালকের সঙ্গে তুলনা করে আর এক সমর্থক লেখেন, ‘ড্রাইভারের নাম যশপ্রীত বুমরা জানা মাত্রই আজ ওলা ক্যাব বাতিল করলাম। সিগন্যাল পার করার রিস্ক নিতে চাই না’

আর এক সমর্থক লেখেন, ‘রাজস্থান রয়্যালসের যখন ম্যাচ জিততে প্রয়োজন ১২ বলে ২৮ রান তখন নো বল বিশেষজ্ঞ যশপ্রীত বুমরা এক ওভারে ১৮ রান দিয়ে বিপক্ষ দলকে ম্যাচ জিতিয়ে দেন।’

রোমিও-জুলিয়টের প্রেমকাহিনীর সঙ্গেও তুলনা করা হয় শেষ ওভারে বুমরার করা নো বলকে। এক সমর্থক লেখেন, ‘রোমিও-জুলিয়টের থেকেও নিঃসন্দেহে ভাল প্রেম কাহিনী বুমরা এবং তাঁর নো বলের।’

উল্লেখ্য একই ম্যাচে কিন্তু মুস্তাফিজ তার প্রথম তিন ওভারে ২০ রান দিয়েছিলেন। কিন্তু বুমরার আগের ওভারে অথাৎ ম্যাচের ১৭ তম ওভারে বল করে ১৫ রান নিয়ে ১ নিয়েছিলেন। এ ওভারে মুস্তাফিজ মুস্তাফিজ একটি চার ও ছয়ের মার খেলেছিলেন। তা সত্বেও মুস্তাফিজকে ম্যাচ হারের জন্য দাযী করছেন না মুম্বাইয়ের সমর্থকরা।

কমেন্টস