অধিনায়কের দ্বায়িত্ব নিতে আগ্রহী ফিঞ্চ

প্রকাশঃ এপ্রিল ১৬, ২০১৮

বিডিমর্নিং স্পোর্টস ডেস্ক-

বল টেম্পারিংয়ের ঘটনায় অভিযুক্ত হয়ে অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়কত্ব হারিয়েছেন স্টিভেন স্মিথ। অধিনায়ক স্মিথ, ডেপুটি ওয়ার্নারকে ১ বছর ও তরুণ ব্যানক্রপ্টকে ৯ মাসের জন্য সকল ধরনের ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ করে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ড। সংকটকালে দলের নতুন অধিনায়ক হন টিম পেইন। তবে এখন অধিনায়করে পদটি রয়েছে শুন্য। এ পদেই দ্বায়িত্ব নেওয়ার আগ্রহ জানিয়েছে অসি ব্যাটসম্যান অ্যারন ফিঞ্চ।

২০১৯ বিশ্বকাপের আগে স্মিথের দলে ফেরার সুযোগ পেলেও নেতৃত্বের সুযোগ নেই। বহিষ্কৃত আরেক ক্রিকেটার ওয়ার্নার কখনোই অধিনায়কের পদের জন্য মনোনীত হবেন না। তাই আপাতত স্মিথের প্রত্যাবর্তনের আগ পর্যন্ত অভিজ্ঞ কাউকেই অধিনায়ক করতে চাইবে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। কারণ নির্বাচীত অধিনায়ক অস্ট্রেলিয়াকে বিশ্বকাপে প্রতিনিধিত্ব করবে। তাই অস্ট্রেলিয়ার ম্যানেজমেন্ট অধিনায়ক নির্বাচন করার আগে ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে খেলার কথা মাথায় রাখবে।

এদিকে সম্প্রতি ইএসপিএন ক্রিকইনফোকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে অজি ওপেনার ফিঞ্চ অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়কত্ব করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছন। ফিঞ্চ বলেন,‘অধিনায়কত্বের দায়িত্ব পেলে খারাপ হয় না। দায়িত্ব পেলে আমি পালন করব। তবে এটি নিয়ে আমি তেমন চিন্তা-ভাবনা করছি না। সামনের দিনগুলো অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের জন্য সহজ হবে না।”

স্মিথ ও ওয়ার্নারের প্রসঙ্গে ফিঞ্চ বলেন, “স্মিথ-ওয়ার্নারদের মতো বিশ্বসেরাদের হারানো খুব বড় একটা ক্ষতি আমাদের জন্য। তাদের অভাব বোধ করতেই হবে। যা হয়েছে তা হতাশাজনক। তবে পাইপলাইনে আরও অনেক যোগ্য ক্রিকেটার আছে আমাদের। খুব বেশি সমস্যা হবে না আশা করি।”

ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে দলের নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান ফিঞ্চ। এই দুই ফরম্যাটে দেশকে অল্প বিস্তর নেতৃত্ব দেওয়ার অভিজ্ঞতা। যৌক্তিক কারণ আছে ওই পদে ফিঞ্চকে বেছে নেওয়ার। ওয়ানডে সিরিজ খেলতে ইংল্যান্ডে যাবে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট দল। এরপর দুবাইয়ে পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলবে টেস্ট সিরিজ। তাই শীঘ্রই ঘোষণা হতে পারে নতুন অধিনায়কের নাম।

কমেন্টস