ঢাকা টেস্টে মোসাদ্দেকের জায়গায় কতটা যোগ্য সাব্বির

প্রকাশঃ ফেব্রুয়ারি ৭, ২০১৮

শোভন সাহা।।

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আগামীকাল শুরু হবে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের শেষ ম্যাচ। এই ম্যাচে একাদশে থাকতে পারেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান সাব্বির রহমান এবং অভিজ্ঞ স্পিনার আব্দুর রাজ্জাক।

সাকিব ইনজুরিতে থাকার কারণে ঢাকা টেস্টের পিচের কথা ভেবে রাজ্জাকে দলে জায়গা দিতে পারে বিসিবি। অপরদিকে দ্বিতীয় টেস্টে দলে জায়গা পেতে পারেন সাব্বির রহমান। তাকে আনা হতে পারে অলরাউন্ডার মোসাদ্দেক হোসেনের জায়গায়।

সাব্বির নিয়ে বিসিবির বক্তব্য সাব্বির দ্রুতু রান তুলতে সক্ষম এছাড়া ব্যাটিং লাইনআপ লম্বা করার জন্য তাকে দলে সুযোগ দেওয়ার পক্ষে নির্বাচকরা। যদিও সাব্বির রহমানের টেস্ট ক্যারিয়ারের পারফরম্যান্স খুব বেশি উজ্জল। তাই তার টেস্টে খেলার মতো টেপপারমেন্ট আছে কিনা তা নিয়ে সকলেরই প্রশ্ন?

সাব্বির রহমান শেষ কয়েকটি টেস্টে তেমন ভালো করতে পারেননি। তিনি এখন পর্যন্ত দশটি দশটি টেস্ট ম্যাচ খেলে করেছেন ৪৮০ রান। যার মধ্যে রয়েছে চারটি হাফ সেঞ্চুরি। সর্বোচ্চ ৬৫ রান।

অন্যদিকে বিগত বছরে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে কলম্বোর প্রেমাদারা স্টেডিয়ামে অভিষেক হয় মোসাদ্দেকের। সেই ম্যাচেই প্রথম ইনিংসেই খেলেছিলেন ৭৫ রানের ইনিংস। দ্বিতীয় ইনিংসে ৩১ বলে থেকে ১৩ রান করেই। সে ম্যাচেই প্রথম বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কার মাটিতে দ্বিতীয়  টেস্ট জিতে সিরিজ  ড্র করে ইতিহাস গড়ে।

এরপর নিয়মিত চোখের সমস্যায় দল থেকে বাদ পড়েন। আন্তর্জাতিক দুই টেস্ট ম্যাচে মোসাদ্দেক চার ইনিংসে সংগ্রহ ১০৪ রান। ব্যাটিং গড় ৩৪.৬৬। বিপরীতে সাব্বিরের গড়  ২৬.৬৬।

এছাড়া ঘরোয়া লিগে মোসাদ্দেকের পরিসংখ্যার উজ্জল। ফাস্ট ক্লাস ক্যারিয়ারে ৬৭.৪১ গড়ে তুলেছেন ২৪৫৯ রান। সেখানে সাব্বিরের ফাস্ট ক্লাস ক্যারিয়ারে ৩২.২২ গড়ে সংগ্রহ ২৩.২০ রান।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মোসাদ্দেক প্রথম ইনিংসে ব্যর্থ ছিলেন। ৮ রানে প্যাভিলনে ফেরেন। কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসে লিটন ও মমিনুলের দ্রুত বিদায়ের পর মাহমুদুল্লার সঙ্গে ক্রিজে ধৈর্য ধরে ক্রিজে ছিলেন। খেলেন ৫৩ বল। করেন ৮ রান।  দীর্ঘদিন পর টেস্টে ফিরে ১ ম্যাচ খেলিয়ে আবারে তাকে সাইডবেঞ্চে বসানো কতটা সমর্থন যোগ্য।

টেস্ট ক্রিকেট দ্রতু রান তোলার ব্যাস্ততা থাকে না। এখানে ব্যাটসম্যানদের সেশন বাই খেলার জায়গা। সেখানে সাব্বিরের মতো হার্ড হিটার ব্যাটসম্যান স্কোয়ার্ডে কতটা যুক্তিযুক্ত সেই প্রশ্নটা থেকেই যাচ্ছে।

কমেন্টস