তিন সন্তানকে রেখে টিকিটের জন্য সকাল থেকে দাঁড়িয়ে আছেন ছানা বেগম

প্রকাশঃ নভেম্বরে ৮, ২০১৭

মেজবা মিলন।।

‘সেই সহাল ৮টা বাজে দাঁড়িয়ে আছি এহন বেলা ১২টা বাজে তার পরেও টিকিট পাইতুননি’ সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের মেইন গেইটের সামনে থেকে এ ভাবেই কথা গুলো বললেন ছানা বেগম।

ছানা বেগমের বয়স চল্লিশের কোঠায়। বাড়ি সিলেট শহরেই।পেশায় তিনি একজন গৃহিণী।ঘরে তার তিন সন্তান আছে।সন্তাদের বাসায় রেখে এসেছেন বিপিএল খেলা দেখতে।কিন্তু দুর্ভাগ্য কোন টিকিট তিনি ক্রয় করতে পারছেন না।

একটি  টিকিটের জন্য ছানা বেগম দীর্ঘ সময় দাঁড়িয়ে থেকে পায়ে বল পাচ্ছিলেন না।তাইতো একবার মাটিতে বসে পড়ছিলেন আবার উঠে দাঁড়াচ্ছিলেন।তার পরেও তার চোখে মুখে ছিলো আনন্দের হাসি।মাঠে বসে প্রথম বারের মতো খেলা দেখার দেখবে।

ক্রিকেট খেলা কেমন লাগে বলতেই হেসে উঠলেন তিনি।পরের উত্তর গুলো একটু হেসেই দিলেন বললেন,অনেক ভালো লাগে।যতটুকু বুঝি অনেক মজা পায়।

এই প্রথম কী মাঠে বসে খেলা দেখতে এসেছেন এমন প্রশ্নের জবাবে বলেন,হ্যাঁ এর আগে মাঠে বসে খেলা দেখিনি।এই প্রথম এসেছি তাও টিকিট পাবো কি না জানি না।একটা টিকিট থাকলে দেন।

ছানা বেগমের এমন ক্রিকেটপ্রেম দেখে জিজ্ঞাসা করলা টিকিটের দাম কত জানেন তো?উত্তরে তিনি জানান,জানিন ২০০, ৪০০, ৫০০ আর ২০০০ হাজার টাকার।

এমনিতেই টিকিটের হাহাকার তার পর এই স্বল্প টাকার টিকিট খেলা শুরু হওয়ার আগে পাওয়া অনেক কষ্ট কর।

জানতে চাইলাম কত টাকার টিকিট কিনতে এসেছেন জবাবে তিনি বলেন, ৪০০ আর ৫০০ হলে কিনতাম এর বেশি হলে কিনতে পারতুননি।

শুধু ছানা বেগম নয় এই রকম অনেক নারীই খেলা বিপিএল খেলা দেখার জন্য সিলেট স্টেডিয়ামের সামনে দাঁড়িয়ে ছিলেন।কিন্তু আদৌ কী মাঠে বসে খেলা দেখতে পারবেন সেটা নিশ্চিত ভাবে বলা যাচ্ছে না। কারণ টিকিটের দার পর্যন্ত পৌছাতে পারলেও টিকিটের দাম যায় পালটিয়ে তখন খেলা দেখার সেই স্বপ্ন স্বপ্নই থেকে যায়।

কমেন্টস