আইসিসিতে অনুমোদন পাওয়া টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ও ওয়ানডে লিগের খুটিনাটি

প্রকাশঃ অক্টোবর ১৩, ২০১৭

বিডিমর্নিং স্পোর্টস ডেস্ক–

আইসিসির সভায় অনুমোদন পেল টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ও ওয়ানডে লিগ। নিউজিল্যান্ডের অকল্যান্ডে চলমান আইসিসির বোর্ড সভায় শুক্রবার এই অনুমোদন দেওয়া হয়। আইসিসি প্রধান নির্বাহী ডেভিড রিচার্ডসন বহুল প্রতীক্ষিত টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ও ওয়ানডে লিগ অনুমোদনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

টেস্ট ক্রিকেটের জনপ্রিয়তা বাড়াতে আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অনুমোদন দিয়েছে। তবে এই লিগ টুর্নামেন্টের পয়েন্ট পদ্ধতি ও সূচির ধরন এখনও চূড়ান্ত হয়নি। ২০১৯ বিশ্বকাপের পর থেকে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ শুরুর কথা বলা হয়েছে। যাতে অংশ নেবে টেবিলের শীর্ষ ৯টি টেস্ট খেলুড়ে দেশ। লিগ পদ্ধতিতে খেলা এগোনোর পর ২০২১ সালের এপ্রিলে টেবিলের শীর্ষ দুটি দল চ্যাম্পিয়নশিপের জন্য ফাইনালে লড়বে।

অংশ নেওয়া প্রতিটি দেশ নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ৬টি টেস্ট সিরিজ খেলবে। যার তিনটি হবে দেশের মাটিতে, বাকি তিনটি অ্যাওয়ে। প্রতিটি সিরিজে দলগুলোকে অন্তত দুটি টেস্ট খেলতেই হবে। তবে অ্যাশেজের মতো ঐতিহ্যবাহী সিরিজগুলোর কথা বিবেচনা করে সেটি ৫ টেস্টের সিরিজ পর্যন্ত টেনে নেওয়ার সুযোগ রাখা হয়েছে।

অন্যদিকে ওয়ানডে লিগ শুরু হবে ২০২০ সালে। এতে ১৩টি সীমিত ওভারের দেশ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে। তিন বছরের লিগে রূপান্তর হওয়ার আগে ২০২৩ ওয়ার্ল্ডকাপ সামনে রেখে এটি দু’বছর ধরে চলবে। দু’টি বিশ্বকাপের মাঝে এটি পরিচালিত হবে। প্রতি চার বছরে পঞ্চাশ ওভারের শ্রেষ্ঠত্বের আসরে কারা কোয়ালিফাই করবে সেটিতেও এই প্রক্রিয়া ব্যবহৃত হবে।

নির্ধারিত সময়ের মধ্যে দলগুলো ৮টি সিরিজ খেলার সুযোগ পাবে। সিরিজগুলো তিন ম্যাচের হবে। এই ওয়ানডে লিগ বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব হিসেবেও কাজ করবে। তবে টেস্টের মত ওয়ানডে লিগেরও পয়েন্ট পদ্ধতি এবং সূচি পরিকল্পনা ঠিক হয়নি এখনও।

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ম্যাচগুলো প্রথাগত ৫ দিনেরই রেখেছে আইসিসি। তবে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের বাইরে পরীক্ষামূলকভাবে ২০১৯ সালে থেকে দ্বিপাক্ষিক সিরিজে চারদিনের টেস্ট ম্যাচ আয়োজনের অনুমোদন দিয়েছে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা। দ্রুতই ঠিক করা হবে চারদিনের টেস্টের নিয়মকানুন। সাউথ আফ্রিকা চলতি বছর নিজেদের ‘বক্সিং ডে’ টেস্টটি জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে চারদিনের ম্যাচ হিসেবে খেলবে।

Advertisement

কমেন্টস