‘চমকে উঠার মতোই সংবাদ ছিলো’

প্রকাশঃ মার্চ ১৫, ২০১৭

চমকে উঠার মতোই সংবাদ ছিলো! কি করবো বুঝতে পারছিলাম না? এই খুশি কি ভাবে সবাইকে বোঝাবো সেই ভাষা আমার কাছে ছিলো না। বিশেষ করে ফোন করে সবাই যখন শুভেচ্ছা জানাচ্ছিলেন। এমনই কথা গুলো হাসিমাখা মুখে বললেন শ্রীলংকার বিপক্ষে টাইগারদের ওয়ানডে দলে ডাক পাওয়া বাঁ-হাতি স্পিনার সানজামুল।

গত মাসে চট্টগ্রামে বিসিএলের ম্যাচে বিসিবি উত্তরাঞ্চলের হয়ে ওয়ালটনে মধ্যাঞ্চলের বিপক্ষে ৮০ রানে ৯ উইকেট নিয়ে বাংলাদেশের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ইনিংস-সেরা বোলিংয়ের রেকর্ড গড়েন তিনি।।এবার সেই ৯ উইকেটের পুরুষ্কার মনে হয় পেলেন তিনি। প্রথম বারের মতো টাইগার বাহিনীতে খেলা নিয়ে এবং সার্বিক অবস্থা নিয়ে কথা বলেছেন বিডিমর্নিং এর সাথে। সাক্ষাতে ছিলেন মেজবা মিলন।

প্রশ্নঃ বর্তমান সময়ের এত পারফর্মারের মধ্যে নিজেকে টিকিয়ে রাখার যে চ্যালেঞ্জ সেই চ্যালেঞ্জ নিতে আপনি কতটুকু প্রস্তুত এবং কেমন লাগছে আপনার ব্যাক্তিগতভাবে?

সানজামুলঃ আসলে সবারই স্বপ্ন থাকে জাতীয় দলে খেলার। এদিক থেকে দুটি ধাপের মধ্যে একটি হল জাতীয় দলে চান্স পাওয়া এবং দ্বিতীয়টি হল অর্জিত জায়গাটি ধরে রাখা। তাই আমার লক্ষ্য থাকবে ভাল কিছু করার মাধ্যমে আমার জায়গাটি ধরে রাখা।

প্রশ্নঃ ঘরোয়া ক্রিকেটে আপনি ধারাবাহিক পারফর্মেন্স করে গেছেন সেই ধারাটাই কি আমরা শ্রীলংকার বিপক্ষে দেখতে পাবো?

সানজামুলঃ হ্যাঁ, সেটাই আমার চেষ্টা থাকবে। আমি মনে করি যে ঘরোয়া পারফর্মেন্সটা ধরে রাখতে পারলেই আমি সাকসেস হব।

প্রশ্নঃ জাতীয় দলে একেবারেই প্রথম আপনি। অনুভূতিটা কি একটু শেয়ার করা যাবে?

সানজামুলঃঅনুভুতি আসলে কিভাবে শেয়ার করব বুঝতে পারছি না তবে যখন কল পেলাম যে আমি জাতীয় দলে সুযোগ পেয়েছি তখন আমি খুশীতে আত্মহারা হয়ে গিয়েছিলাম এবং যখন আত্মীয়-স্বজনরা আমাকে ফোন করছিল তখন খুব ভাল লাগছিল।

প্রশ্নঃ এ পর্যন্ত কি আপনার শ্রীলংকায় খেলার কোন অভিজ্ঞতা হয়েছে?

সানজামুলঃ না, এবারই প্রথম।

প্রশ্নঃ যেহেতু শ্রীলংকার উইকেটে খেলার কোন অভিজ্ঞতা নেই আপনার তাই এই সিরিজকে সামনে রেখে বিশেষ কোন পরিকল্পনা আছে কি?  

সানজামুলঃ পরিকল্পনা বলতে শ্রীলংকার উইকেট বাংলাদেশের মতই। ওখানে প্র্যাকটিস ম্যাচ দেখে একটু অবজার্ভ করে ম্যানেজমেন্টের প্ল্যান অনুযায়ীই খেলতে চাই।

প্রশ্নঃ ব্যক্তিগত কোন টার্গেট?

সানজামুলঃ ব্যক্তিগত টার্গেট হল শুধু টিমে জায়গা করে নেওয়া।

প্রশ্নঃ প্রধান নির্বাচক নান্নু ভাই বলছিলেন যে আপনাকে এইচপি(হাই পারফর্মেন্স)এ খেলানো হচ্ছিল সামনে খেলানোর জন্য, তো সব মিলিয়ে কষ্টটা কেমন ছিল?  

সানজামুলঃ অবশ্যই এইচপি ক্যাম্পটা খুব কষ্টের ছিল। আমার নিজের জন্য খুব কাজে দিয়েছে সেটা। এবং ডোমেস্টিকের জন্যও খুবই উপযোগী ছিল।

প্রশ্নঃ  আপনি বিসিএলে ৯উইকেট পেয়েছিলেন, তো সেটা আপনার এ পর্যন্ত আসার ক্ষেত্রে কতটুকু কাজে দিয়েছে?সানজামুলঃএটা অবশ্য সাহায্য করছে আমাকে টিমে আনার ক্ষেত্রে। আমার আসলে সেখানে একটি উইকেটের লক্ষ্য ছিলনা। শুরুতেই একটি দুটি থেকে পাঁচটির জন্য লক্ষ্য স্থির করেছিলাম। পরে অবশ্য সেখান থেকেই আল্লাহ্‌র রহমতে নয়টি হয়ে গেছে। একরকম প্ল্যান ছাড়াই এটা হয়ে গেছে।

 

Advertisement

কমেন্টস