পাঁচ মাস পর দর্শক পেটানোর আসল ঘটনা বললেন সাব্বির রহমান

প্রকাশঃ এপ্রিল ২৫, ২০১৮

বিডিমর্নিং স্পোর্টস ডেস্ক-

প্রায় পাঁচ মাস হয়ে গিয়েছে । গত  বছর ডিসেম্বরে ঘরোয়া লিগ খেলার সময় দর্শক পেটানোর অভিযোগ উঠে সাব্বির রহমানের বিরুদ্ধে।শুধু তাই নয়,সেই ঘটনায় ম্যাচ রেফারি জানতে চাইলে, তাকেও নাকি হুমকি দেন সাব্বির।এরপর কতই না কি।সাব্বিরকে নিয়ে একের পর আলোচনা হতে থাকে।অবশেষে পহেলা জানুয়ারি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বিসিবি জরিমানা সহ সাব্বিরকে ছয় মাসের জন্য সকল ধরনের ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ করেন।এই প্রসঙ্গ নিয়ে এতো দিন কোন কথা বলেনি সাব্বির রহমান। দীর্ঘ পাঁচ মাস পর সেই বিষয়ে মুখ খুললেন সাব্বির।

তিনি বলেন, এক হাতে তালি বাজে না! যে ছেলেকে মেরেছি বলে শোনা গেছে, সে আমার অপরিচিত নয়। আমার বাড়ির পাশেই থাকে। দরিদ্র পরিবারের ছেলে। নানাভাবে তাকে আমি সহায়তা করি। পড়াশোনা যাতে করতে পারে বা ঈদের সময় আর্থিক সহায়তা করি। জামাকাপড় থেকে শুরু করে নানাভাবে সহায়তা করি। আমার সঙ্গে অনুশীলনও করেছে অনেক সময়।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘সে বিরক্ত করেনি, বিরক্ত করেছিল দর্শকেরা। এটা নিয়ে বিস্তারিত বলতে চাইছি না। হুট করে তো একজনকে মারধর করা যায় না। ইয়ার্কি-ফাজলামো করে হয়তো দু-একটা চড়-থাপ্পড় মারা যায়। এটাই হয়েছে। কিন্তু সবাই তো অনেক গুরুতরভাবে নিয়েছে বিষয়টা। আমার পরিচিত, তাকে ও তার পরিবারকে অনেক সহায়তা করি। যেভাবে ঘটনাটা ছড়িয়েছে, এটা পুরোপুরি সত্য না-ও হতে পারে, তিলকে তাল করা হতে পারে। ঘটনার সময়ে আমার সতীর্থরা, কাছের বন্ধুরাও ছিল।’

ওই ঘটনার পর নিজের ভুল বুঝতে পেরেছেন সাব্বির। সবার সামনে ঘটনা ঘটেছে বলেই বিষয়টি চোখে পড়েছে বেশি জানিয়েছেন জাতীয় দলের এই তারকা ক্রিকেটার। ওই ঘটনার জন্য দুঃখপ্রকাশ করেছেন সাব্বির।

‘সবার সামনে একজনের গায়ে হাত তুলেছি, এটা হয়তো চোখে পড়েছে অনেকের। এভাবে মারধর করাটা বড় ভুল হয়েছে। বুঝতে পারছি, ইয়ার্কি-ফাজলামো করেও কাউকে মারা ঠিক না। পরে বুঝতে পেরেছি, অনেক বড় ভুল হয়ে গেছে। এই ভুল দ্বিতীয়বার হবে না। ওই সময়ে ঘটনার আকস্মিকতায় ঘটে গেছে। এ ঘটনা নিয়ে আমি দুঃখিত।’

কমেন্টস