কবর থেকে কাফনে পেঁচানো শিশুর মরদেহ নিয়ে পালাচ্ছিলো লোকটি!

প্রকাশঃ মে ২৬, ২০১৮

নরসিংদী প্রতিনিধি।।

নরসিংদীর মাধবদীতে গভীর রাতে কবর খুড়ে এক শিশুর মরদেহ চুরি করে পালানোর সময় এক ব্যক্তিকে আটক করে গণধোলাই দিয়েছে স্থানীয়রা। অভিযুক্ত ওই ব্যক্তির  নাম মো. রেজাউল।রেজাউল নরসিংদীর ঘোড়াদিয়ার বাসিন্দা বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

শুক্রবার মাধবদী বাসস্ট্যান্ড এলাকা থেকে স্থানীয়রা শিশুর মরদেহসহ ওই ব্যক্তিকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে দেয়।উদ্ধারকৃত মরদেহটি মহিষাশুড়া ইউনিয়নের আটপাইকা গ্রামের পারভেজ মিয়ার ছেলের বলে জানা গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাত দেড়টার দিকে মাধবদী বাসস্ট্যান্ড এলাকায় গায়ে কাদামাখা অবস্থায় সাদা কাপড় পেঁচানো কোনকিছু নিয়ে এক ব্যক্তি পালাচ্ছিল।

স্থানীয়দের সন্দেহ হলে তাকে আটক করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে কাফনে পেঁচানো এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। পরে তাকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করা হয়। তবে পুলিশ তাকে পাগল দাবি করে ছেড়ে দেয়।

এলাকাবাসী জানায়, শুক্রবার পারভেজ মিয়ার চার মাস বয়সী এক ছেলে শিশু মারা যায়। একই দিন সন্ধ্যায় আটপাইকা কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। দাফনের পর থেকেই চোরটি কবরস্থানের পাশে অবস্থান নেয়। পরে গভীর রাতে ওই শিশুর মরদেহ চুরি করে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মাধবদী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আবুল কালাম জানান, মাধবদী শহরের বাসস্ট্যান্ডে এক ব্যক্তি মরদেহ চুরি করে পালানোর সময় স্থানীয়রা তাকে আটক করে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে জানতে পারে সে পাগল। পরে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়।

কমেন্টস