বিয়ের দাবিতে প্রেমিকার অনশন; অন্য প্রেমিকা নিয়ে পালালো প্রেমিক 

প্রকাশঃ ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০১৮

বিডিমর্নিং ডেস্ক-

জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে টানা ১১ দিন ধরে অনশন করছিল এক কলেজ ছাত্রী। এরই মধ্যে এক পর্যায়ে আতিক হাসান বাবু নামের ওই প্রেমিক অনশনরত ওই প্রেমিকাকে ফেলে অন্য এক কলেজ ছাত্রীকে নিয়ে উধাও হয়ে যান।

এমনই চাঞ্চল্যকর খবর স্থানীয়দের আলোচনার বিষয়বস্তু হয়ে উঠেছে। এ ঘটনায় অভিযোগের ভিত্তিতে প্রেমিকের বাবা আলতাফ হোসেনকে আটক করে জেলহাজতে পাঠিয়েছে দেওয়ানগঞ্জ থানা পুলিশ।

জানা যায়, দেওয়ানগঞ্জের দিঘলকান্দি গ্রামের আলতাফ হোসেনের বাড়িতে তার কলেজপড়ুয়া পুত্র আতিক হাসান বাবুর সাথে বিয়ের দাবিতে শেরপুর উপজেলা শহরের এক কলেজ ছাত্রী টানা ১১ দিন ধরে অনশন করছিল। এরই মধ্যে এক পর্যায়ে আতিক হাসান বাবু অনশনরত শেরপুরের প্রেমিকাকে ফেলে ১০ ফেব্রুয়ারি ইসলামপুরের মোশারফগঞ্জ গ্রামের অন্য এক কলেজ ছাত্রীকে নিয়ে উধাও হয়ে যার। এই মেয়েটিও তার প্রেমিকা বলে জানা যায়।

ভালোবাসার দিবসের চার দিন আগেই অর্থাৎ ১০ ফেব্রুয়ারি থেকে দুজন নিখোঁজ। তবে ওই দ্বিতীয় প্রেমিকাকে অপহরণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তার বাবা।

এ ঘটনার দুদিন পর কন্যাকে অপহরণের অভিযোগে দেওয়ানগঞ্জ থানায় একটি অপহরণ মামলায় দায়ের করেন। ওই মামলায় দেওয়ানগঞ্জ থানা পুলিশ গত বৃহস্পতিবার প্রেমিক আতিক হাসান বাবুর পিতা আলতাফ হোসেনকে আটক করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করে।

তবে ‘অপহৃতা’ কলেজ ছাত্রী এবং ‘অপহরণকারী’ প্রেমিককে আজও উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। এদিকে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা শেরপুরের প্রেমিকার অনশন ভাঙাতে সক্ষম হয়েছেন বলে জানা গেছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে দেওয়ানগঞ্জ থানার ওসি একে এম আমিনুল হক জানান, অপহরণ মামলায় অভিযুক্ত হিসেবে প্রেমিকের বাবা আলতাফ হোসেনকে আটক করে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। অপহৃত কলেজ ছাত্রীকে উদ্ধারের চেষ্টা চলছে এবং মামলার প্রধান বিবাদি আতিক হাসান বাবুকে গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

কমেন্টস