বাংলাদেশের সীমান্তে মিয়ানমারের হেলিকপ্টার ও জাহাজ, রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন বৃদ্ধি

প্রকাশঃ আগস্ট ২৮, ২০১৭

তামিরুল ইসলাম, কক্সবাজার প্রতিনিধিঃ

মিয়ানমার আরাকান রাজ্যের (রাখাইন স্টেট) বিরোধপূর্ণ এলাকার সীমান্তে সামরিক হেলিকপ্টার ও জাহাজ যাতায়াত করছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

গত শনিবার ২৬ আগস্ট এবং রবিবার ২৭ আগস্ট বিকালে মিয়ানমার আরাকান রাজ্যের (রাখাইন স্টেট) বিরোধপূর্ণ উত্তরাঞ্চলীয় এলাকায় হেলিকপ্টার যাতায়াত করে বাংলাদেশের সীমান্ত এলাকায় বসবাসকারী প্রত্যক্ষদর্শী বাসিন্দাগণ জানান।

মিয়ানমার থেকে সীমান্ত অতিক্রম করে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গারা সাংবাদিকদের জানান, সামরিক হেলিকপ্টারটি মিয়ানমার উত্তরাঞ্চলীয় এলাকায় একটি ক্যাম্পে নামে। ঘন্টা দেড়েক পর আবার চলে যায়। হেলিকপ্টারটি চলে যাওয়ার পর মিয়ানমার সেনারা নির্যাতন আরও বৃদ্ধি করেছে।

সেন্টমার্টিন দ্বীপে ইউনিয়ন পরিষদ, কোস্টগার্ড ও নৌ বাহিনীর বরাত দিয়ে মাইকিং করে সাগরে মাছ ধরার ট্রলার সমূহ যেতে নিষেধ করা হয়েছে। পরবর্তী নিদের্শ না দেওয়া পর্যন্ত বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরা বন্ধ থাকবে বলে মাইকে প্রচারণা চালানো হয়।

এ তথ্য নিশ্চিত করে সেন্টমাটিন দ্বীপ ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নুর আহমদ জানান, সেন্টমার্টিনের দক্ষিণে মিয়ানমারের মেরুল্লা ও হাইসসুরাতা এলাকায় ব্যাপক আগুনের লেলিহান শিখা দেখা গেছে।

বঙ্গোপসাগরে দেখা গেছে মিয়ানমার নৌ-বাহিনীর ৩টি জাহাজ। এ কারণে কোন মাছ ধরা নৌকাকে পরবর্তী নিদের্শ না দেওয়া পর্যন্ত সেন্টমার্টিনের দক্ষিণ ও পূর্বে না যেতে বলা হয়েছে।  

কমেন্টস