বনানীতে ধর্ষণ মামলার আসামি সাফাতের বাবার ব্যাংক হিসাব তলব

প্রকাশঃ মে ১২, ২০১৭

বিডিমর্নিং ক্রাইম ডেস্ক-

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতর বনানীতে দুই তরুণীকে ধর্ষণের ঘটনায় দায়ের করা মামলার আসামি সাফাত আহমেদ ও তার বাবা আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদের সব ব্যাংক হিসাব তলব করেছে।শুল্ক গোয়েন্দা অধিদফতরের মহাপরিচালক মইনুল খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

বৃহস্পতিবার সিলেট থেকে সাফাত আহমদ ও সাদমান সাকিফকে গ্রেফতার করে ঢাকায় নিয়ে আসে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। শুক্রবার সাফাত আহমেদের ছয় ও সাদমান সাকিফকে পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালত।

উল্লেখ্য, ধর্ষণের অভিযোগ এনে গত ৬ মে বনানী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন দুই তরুণী। মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, ২৮ মার্চ পূর্বপরিচিত সাফাত আহমেদ ও নাঈম আশরাফ ওই দুই তরুণীকে জন্মদিনের দাওয়াত দেয়। এরপর তাদের বনানীর ‘কে’ ব্লকের ২৭ নম্বর সড়কের ৪৯ নম্বরে রেইনট্রি হোটেলে নিয়ে যায়।

এজাহারে আরও অভিযোগ করা হয়েছে, সেখানে দুই তরুণীকে হোটেলের একটি কক্ষে আটকে রেখে মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে ধর্ষণ করে সাফাত ও নাঈম। এই দৃশ্য সাফাতের গাড়িচালক বিল্লালকে দিয়ে ভিডিও করানো হয় বলেও উল্লেখ করা হয় এজাহারে।

ধর্ষণ মামলার আসামিরা হলো সাফাত আহমদ, নাঈম আশরাফ, সাদমান সাকিফ, সাফাতের গাড়িচালক বিল্লাল ও দেহরক্ষী আবুল কালাম আজাদ।

শুল্ক গোয়েন্দা অধিদফতরের মহাপরিচালক মইনুল খান বলেন, ‘সাফাত আহমেদ ও তার বাবা দিলদার আহমেদের সব ব্যাংক হিসাব তলব করে চিঠি দেওয়া হয়েছে। তাদের অর্থের উৎস জানতে বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ব্যাংকে চিঠি দেওয়া হয়। এছাড়া তাদের ব্যবসায়িক লেনদেনে স্বচ্ছতা আছে কিনা, তা জানার জন্য আপন জুয়েলার্সেরও হিসাব চাওয়া হয়েছে।’

Advertisement

কমেন্টস