‘বাংলাদেশ ফেস্টিভ্যাল’ উপলক্ষে কানাডার প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছাবার্তা

প্রকাশঃ এপ্রিল ২০, ২০১৭

সদেরা সুজন, কানাডা প্রতিনিধি-

কানাডার সর্বাধিক পঠিত বাংলা সংবাদপত্র সাপ্তাহিক বাংলামেইলের উদ্যোগে আগামী ১৩ ও ১৪ মে ১৯০ রেলসাইড রোডের টরন্টো প্যাভিলিয়নে তৃতীয় বারের মতো অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ‘বাংলাদেশ ফেস্টিভ্যাল’। এই ফেস্টিভ্যাল উপলক্ষে কানাডার প্রধানমন্ত্রি জাস্টিন ট্রুডো অফিসিয়াল শুভেচ্ছাবার্তা পাঠিয়েছেন।

কানাডার প্রধানমন্ত্রী শুভেচ্ছাবার্তায় বলেন, ‘বাংলাদেশ ফেস্টিভ্যাল ২০১৭ তে যোগদানকারী সকলকে জানাচ্ছি আমার আন্তরিক শুভেচ্ছা। এই আয়োজন বাংলাদেশী কানাডিয়ানদের সমৃদ্ধ সাংস্কৃতিক চর্চার সুযোগ করে দেবে এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য সম্মান জানানো হবে।

ফেস্টিভ্যালে অংশগ্রহনকারীরা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, আলোচনা, ট্রেড শোসহ নানা ধরনের আয়োজন উপভোগ করবে।’ কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো আরো বলেন, ‘এ বছর আমরা কানাডার কনফেডারেশনের ১৫০ বছর পূর্তি উদযাপন করতে যাচ্ছি। বিভিন্ন সংস্কৃতি, ঐতিহ্য এবং বিশ্বাসের প্রতি সম্মান জানানোর সুযোগ সৃষ্টিই কানাডাকে বসবাসের মহান যোগ্য দেশে পরিণত করেছে। আর তাই বাংলাদেশ ফেস্টিভ্যালের সঙ্গে সংশ্লিস্ট সকলকে, বিশেষ করে ভলান্টিয়ার, স্পন্সর, শিল্পী এবং অসাধারণ এই আয়োজনের জন্য সাপ্তাহিক বাংলামেইল সংবাদপত্রকে অভিনন্দন জানাচ্ছি।’

কানাডার প্রধানমন্ত্রীর এই শুভেচ্ছাবার্তায় ফেস্টিভ্যাল কমিটির সকল সদস্যের মনে আনন্দের জোয়ার বইছে। বাংলাদেশ ফেস্টিভ্যালের কনভেনর শহিদুল ইসলাম মিন্টু বললেন, আমাদের এই আয়োজন উপলক্ষে শুভেচ্ছাবার্তা দেয়ায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। এটা আমাদের জন্য অনেক সম্মানের। তার এই শুভেচ্ছাবার্তা আমাদের আরো উৎসাহিত করবে।

চীফ কনভেনর আব্দুল হালিম মিয়া বললেন, কানাডা-বাংলাদেশের সংস্কৃতি, কৃস্টি এবং ঐতিহ্যের মধ্যে সেতুবন্ধন রচনা করাই এই আয়োজনের মূল লক্ষ্য। হাজার হাজার দর্শকের উপস্থিতি এই আয়োজনের মূল প্রাণ।

কমিটি চেয়ারম্যান রেজাউল কবির বলেন, বাংলাদেশ ফেস্টিভ্যালকে সফল করার জন্য ৭০ সদস্যের ভলান্টিয়ার টীম কাজ করে যাচ্ছে। সকলের সহযোগিতায় এবারের আয়োজনও সফল হবে।

এবারের বাংলাদেশ ফেস্টিভ্যালের মঞ্চ মাতাতে আসছেন বাংলা সঙ্গীতের জীবন্ত কিংবদন্তী সাবিনা ইয়াসমীন, ঢাকাই চলচ্চিত্রের স্বর্ণালী যুগের প্লেব্যাক সম্রাট সৈয়দ আব্দুল হাদী, টিভি মিডিয়ার আকাশচুম্বি জনপ্রিয় মুখ মোশাররফ করিম, এভারগ্রীণ হিরো ফেরদৌস এবং টিভি নায়িকা রোবেনা রেজা জুই।

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন টরন্টো সিটি মেয়র জন টরি। উদ্বোধন করবেন কানাডাস্থ বাংলাদেশ হাই কমিশনার মিজানুর রহমান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন অন্টারিও’র ইমিগ্রেশন ও সিটিজেনশীপ মিনিস্টার ল্যরা এ্যালবেনিজ, টরন্টো পুলিশের সাবেক চীফ বিল ব্লেয়ার এমপি, বাংলাদেশী অধ্যুষিত বিচেস-ইস্টইয়র্ক রাইডিংয়ের ন্যাথানিয়েল এরিস্কিন-স্মিথ এমপি ও টানা তিনবারের বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সাবেক সদস্য মুক্তিযোদ্ধা মনিরুল ইসলাম মনি।

 

Advertisement

কমেন্টস