‘মালিকরা গাড়ি বন্ধ করে দিলে আপনারাই বলেন সরকার কেন কড়াকড়ি হতে গেল?’

প্রকাশঃ এপ্রিল ১৮, ২০১৭

বিডিমর্নিং ডেস্কঃ

যাত্রীদের সঙ্গে পরিবহন শ্রমকদের আচরণে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। মালিকরা বাস বন্ধ রেখে কৃত্রিম সংকট তৈরি করছে।অপরদিকে কিছু মানুষ সরকারকে এই পরিস্থিতির জন্য দোষারোপ করছে। আর এই বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘আমরা অভিযানে নামলে মালিকরা গাড়ি বন্ধ করে দেয়। সে সময় আপনারাই বলেন, সরকার কেন কড়াকড়ি হতে গেল? তখন বজ্রআঁটুনি ফোসকা গেড়োতে পড়ি আমি।’

মঙ্গলবার (১৮ এপ্রিল) সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ মন্তব্য করেন সড়ক পরিবহন মন্ত্রী।

তিনি বলেন, যার‍া ফিটনেসের কথা বলেন, তারাই আবার অন্যায়ভাবে ফিটনেসবিনহীন গাড়ি চালান। এসবের বিরুদ্ধে সরকার ব্যবস্থা নিলে তারাই গাড়ি বন্ধ করে নৈরাজ্য সৃষ্টি করেন। তখন সরকারের অভিযান ব্যর্থ প্রমাণিত হয়।

মন্ত্রী আক্ষেপের সুরে বলেন, গাড়ি মালিকদের ডাকলেও তারা প্রাথমিক ভাবে আসেন না, অনেক পড়ে আসেন। এর সঙ্গে অনেক স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট বিষয় রয়েছে। তবে আগের চেয়ে পরিস্থিতি অনেক ভালো বলে মত দেন ওবায়দুল কাদের।

পরিবহন মালিকরা কি সরকারের চেয়ে প্রভাবশালী? সাংবাদিকদের এমন এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘না, তারা সরকারের চেয়ে প্রভাবশালী না। তাদের ডাকলে প্রথমে আসেন না, কিন্তু পরে ঠিকই আসেন। কারণ এর সঙ্গে অনেকের স্বার্থ জড়িত আছে।’

পরিবহন খাতের অনিয়ম বন্ধ করতে আপনি ব্যর্থ কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন,  ‘আই অ্যাম নট ইনফ্লুয়েনশিয়াল, আই এম অ্যাকটিভ, নন রিঅ্যাকটিভ।’

তিনি প্রশ্ন ছুড়ে দিয়ে বলেন, ‘আমি ব্যর্থ হলাম কিভাবে? তাহলে আপনারা কি বলতে চাইছেন আমি পদত্যাগ (রিজাইন) করবো? এ খাতের কি কোনও উন্নতি হয়নি? বিভিন্ন সড়কে চার লেন হয়েছে, পদ্মা সেতু হচ্ছে এগুলো কি চোখে পড়ে না? এখন কি রাস্তায় খানা-খন্দ আছে? এগুলো কি সাফল্য নয়? আপনারা একটু পজেটিভলি লেখেন।’

এসময় ১৯৯১ সালে সড়ক দুর্ঘটনায় বিআরটিসি বাসের ধাক্কায় নিহত হন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের ছাত্রী নাফিয়া গাজীর পরিবারকে চার কিস্তিতে ১০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণের প্রথম চেক হস্তান্তর করেন।

কমেন্টস