‘সামবডি এর মধ্যে ইনভলভড’ : রাঙ্গা

প্রকাশঃ মার্চ ১, ২০১৭

বিডিমর্নিং ডেস্ক-

সরকারের দুই মন্ত্রী শাজাহান খান ও মশিউর রহমান রাঙ্গা স্থগিত হওয়া পরিবহন ধর্মঘটের সঙ্গে নিজেদের সম্পৃক্ততার কথা অস্বীকার করেছেন।

আজ বুধবার দুপুরের দিকে ধর্মঘট প্রত্যাহারের পর তাঁরা এ কথা বলেন।

আদালতের রায়ে দুই চালকের সাজার প্রতিবাদে দেশজুড়ে পরিবহন ধর্মঘটে চরম দুর্ভোগের শিকার হয় মানুষ। আজ রাজধানীর মতিঝিলে সড়ক পরিবহন সমিতির কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা দেওয়া হয়।

সকালে সচিবালয়ে চার মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী ও এক পরিবহন নেতার সংক্ষিপ্ত বৈঠকেই মূলত ধর্মঘট প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত হয়।

শাজাহান খান স্বীকার করেছেন, তাঁর বাসায় বৈঠক হয়, তবে তাতে ‘গাড়ি চলবে’ বলে সিদ্ধান্ত হয়। অন্যদিকে মশিউর রহমান রাঙ্গা বলেছেন, ‘সামবডি এর মধ্যে ইনভলভড (কেউ জড়িত)।’

নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান ও স্থানীয় সরকার প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গা দুজনই পরিবহন ও পরিবহন শ্রমিক সংক্রান্ত দুটি সংগঠনের সভাপতি।

এর মধ্যে সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের কার্যকরী সভাপতি এবং মশিউর রহমান বাস ও ট্রাক মালিকদের সংগঠন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন সমিতির সভাপতি।

এ ব্যাপারে নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান বলেন, ‘আমি শ্রমিক রাজনীতি করি। আমার বাসায় অনেক মিটিং হতে পারে। ওই মিটিংয়ের সিদ্ধান্ত কী ছিল? ওই মিটিংয়ের সিদ্ধান্ত ছিল যে আগামীকাল থেকে গাড়ি চলবে।’

এদিকে মশিউর রহমান রাঙ্গা বলেন, ‘যদি আমরা নির্দেশ দিতাম তাহলে সকাল থেকে বন্ধ হয়ে যেত। কিন্তু সকালে গাড়ি চলেছে, দুপুরেও গাড়ি চলেছে, বিকেলে দিকে আস্তে আস্তে শ্রমিকরা গাড়ি বন্ধ করে দিয়েছে। কোনো দলের কথা আমি বলতে চাই না। তবে সামবডি এর মধ্যে ইনভলভড।’

মশিউর রহমান আরো বলেন, ‘আইন আইনের গতিতে চলবে। আইনের গতিতে চললে শ্রমিকদের কোনো সমস্যা হওয়ার কথা নয়। যদি কেউ ইচ্ছাকৃত মার্ডার করে তাকে শাস্তি দেওয়া হোক। আমাদের কোনো অসুবিধা নাই এখানে।’

আদালতের রায় নিয়ে আপত্তি থাকলে বিষয়টি নিয়ে আদালতেই যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। তিনি বলেন, ‘তাঁরা (শ্রমিক ও চালক) যদি মনে করেন শুধু আইনের কঠোর ধারায় তাদের এভাবে শাস্তি দিয়েই সড়ক দুর্ঘটনা বন্ধ করা যাবে না, অন্যভাবে আলাপ আলোচনা করে তাদের ব্যবস্থা নিতে হবে সে আলাপ-আলোচনার জন্য তো দ্বার খোলা আছে। এটা যখন আদালতের রায়, আপনারা আদালতে যান। আদালত যাতে ন্যায়বিচার করে সেটা নিশ্চয়ই সরকার দেখবে।’

এ ব্যাপারে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের বলেন, ‘দুর্ভোগ আজ যে অসহনীয় পর্যায়ে চলে গেছে আমি দায় এড়াতে পারি না। সে কারণে আমি আমাদের পরিবহন মালিক-শ্রমিক নেতৃবৃন্দের কাছে অনুরোধ জানিয়েছি।’

মানিকগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় চলচ্চিত্রকার তারেক মাসুদ, সাংবাদিক মিশুক মুনীরসহ পাঁচজন নিহত হওয়ার মামলায় বাসচালক জামির হোসেনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দেওয়ার প্রতিবাদে গত ২৬ ফেব্রুয়ারি ধর্মঘটের ডাক দেওয়া হয়।

খুলনা বিভাগীয় আঞ্চলিক সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন ওই ধর্মঘটের ডাক দেয়। ওই দিন থেকেই ধর্মঘটে স্থবির হয়ে যায় দক্ষিণাঞ্চল।

এ ছাড়া ২০০৩ সালে সাভারের ঝাউচার এলাকায় এক নারীকে ট্রাকচাপায় হত্যা করায় ট্রাকচালক মীর হোসেন মিরুকে মৃত্যুদণ্ড দেন ঢাকার পঞ্চম জেলা ও দায়রা জজ। গত ২৭ ফেব্রুয়ারি ওই রায়ের পরই দেশব্যাপী পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দেয় পরিবহন শ্রমিকরা।

 

কমেন্টস