রাজবাড়ীতে অটোরিকশা থেকে নামিয়ে নারী চিকিৎসককে গণধর্ষণ

প্রকাশঃ ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০১৮

বিডিমর্নিং নারী ডেস্কঃ

রাজবাড়ীতে এক নারী চিকিৎসককে (২৪) সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করায় ৩ ধর্ষকে আটক করা হয়েছে। জেলা সদরের বসন্তপুর ইউনিয়নে  এ ঘটনা ঘটে।

 শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) রাত ৯টার দিকে মজলিশপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযোগকারী ওই চিকিৎসক বাদী হয়ে আজ রবিবার সকালে রাজবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। র‍্যাবের সহযোগিতায় অভিযুক্ত তিন যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তাররা হলো রাজবাড়ী সদর উপজেলার খানখানাপুর ইউনিয়নের দত্তপাড়া গ্রামের আরশাদ মোল্লার ছেলে মামুন মোল্লা (২০), সদর উপজেলার বসন্তপুর ইউনিয়নের মজলিশপুর গ্রামের মৃত মুন্নাফ সরদারের ছেলে হান্নান সরদার (৩০) ও একই মৃত আবুল মোল্লা ছেলে রানা মোল্লা (২৫)।

ওই চিকিৎসক জানান, শুক্রবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে গোয়ালন্দ মোড়ে ফরিদপুরের যাওয়ার গাড়ি খুঁজছিলেন তিনি। এ সময় এক অটোরিকশা চালক তাকে জানান, শিবরামপুর গেলে তিনি ফরিদপুরের গাড়ি পাবেন।

পরে ওই চিকিৎসক তার অটোরিকশায় ওঠেন। তখন অটোচালকের পাশে আরো একটি ছেলে বসা ছিলো। বেশকিছু দূর যাওয়ার পর আরো একটি ছেলে অটোতে ওঠে।

এরপর একটি নির্জন জায়গায় অটোটি দাঁড় করিয়ে চালকসহ তিনজন ওই চিকিৎসকের মোবাইলসহ ব্যাগপত্র কেড়ে নিয়ে যায়। পরিস্থিতি খারাপ বুঝে চিৎকার করলে তারা রাস্তার ঢালে জঙ্গলের মধ্যে নিয়ে তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

পরে আরো চারজন এসে তাকে ধর্ষণ করে। এভাবে মোট সাতজন তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে আবার রাস্তার পাশে এনে ফেলে দিয়ে চলে যায়। এরপর সেই তরুণী সেখান থেকে পালিয়ে স্থানীয় একটি বাড়িতে আশ্রয় নেন। পরে ওই বাড়ির মালিক স্থানীয়দের সহযোগিতায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে খবর দেয়। পরে এ ঘটনায় স্থানীয়দের সহযোগিতায় তিনজনকে আটক করে ।

রাজবাড়ী থানার ওসি তারিক কামাল বলেন, ওই ঘটনায় আজ দুপুরে চিকিৎসক নিজেই বাদী হয়ে রাজবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। ঘটনায় জড়িত তিনজনকে ইতিমধ্যে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে ওসি জানান।

কমেন্টস