মন্ত্রী, এমপি, পিয়ন, পরিচ্ছন্নতাকর্মী ও গাড়িচালককে হজে প্রেরণে খরচ ৫ কোটি টাকা

প্রকাশঃ জুন ২৮, ২০১৮

বিডিমর্নিং ডেস্ক-

প্রতিবছর সরকারিভাবে একটি অংশকে হজে পাঠানো হয়ে থাকে। গত ২০১৭ সালে মন্ত্রী, এমপি, সংসদীয় কমিটির সদস্য, প্রশাসনের শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তা থেকে শুরু করে পিয়ন, পরিচ্ছন্নতাকর্মী ও গাড়িচালক এবং দলীয় লোকদের হজে পাঠানো হয়। আর তাতে খরচ হয়েছে ৫ কোটি ৮ লাখ ৯৯ হাজার ৫২০ টাকা।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, গত বছর (২০১৭ সালে) রাষ্ট্রীয় খরচে পবিত্র হজ পালনের জন্য ৩২০ জনকে সৌদি আরবে পাঠানো হয়েছিল। এই হাজিদের প্রত্যেকের পেছনে সরকারের খরচ হয় ১ লাখ ৫৯ হাজার ৬১ টাকা। ঢাকা-জেদ্দা-ঢাকা বিমান ভাড়া ও খাওয়া-খরচ বাবদ এ খাতে সরকারের মোট ব্যয় হয় ৫ কোটি ৮ লাখ ৯৯ হাজার ৫২০ টাকা।

২৭ জুন সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির ৩৬তম বৈঠকে উপস্থাপিত বৈঠকের কার্যপত্র থেকে এ তথ্য জানা যায়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন কমিটির সভাপতি বজলুল হক হারুন।

কমিটির সদস্য সাধন চন্দ্র মজুমদার, এ.কে.এম এ আউয়াল (সাইদুর রহমান), সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী, মোহাম্মদ আমির হোসেন এবং দিলারা বেগম অংশ নেন। বৈঠকে বিশেষ আমন্ত্রণে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান অংশ নেন।

বৈঠক শেষে কমিটির সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী সাংবাদিকদের বলেন, এই খরচ শুধু থাকা ও বিমান ভাড়া। এছাড়া বাড়ি ভাড়াও সরকার দেয়। তবে আগেই বাড়ি ভাড়া দেয়া হয়েছিল বলে এই হিসাবে আসেনি।

কার্যপত্র থেকে জানা যায়, রাষ্টীয় খরচে পবিত্র হজ পালনের জন্য সরকারি প্রতিনিধি দলের সদস্যদেও মধ্যে ছিলেন মন্ত্রী, এমপি, সংসদীয় কমিটির সদস্য, প্রশাসনের শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তা থেকে শুরু করে পিয়ন, পরিচ্ছন্নতাকর্মী ও গাড়িচালক। এছাড়া ক্ষমতাসীন দলের নেতা-কর্মীরাও এই সুযোগ পান।

এর মধ্যে ধর্মমন্ত্রী মতিউর রহমানের নির্বাচনী এলাকার লোকই বেশি সুযোগ পেয়েছেন বলে জানা যায়। বৈঠকে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আনিছুর রহমানসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

কমেন্টস