করলার বীজ সংগ্রহে কৃষকের মুখে হাসি

প্রকাশঃ জুন ৩০, ২০১৬

বিডিমর্নিং ডেস্ক-
রংপুর জেলার মিঠাপুকুরের রানীপুকুর ইউনিয়নের একটি গ্রামের নাম নয়াপাড়া গ্রাম। এই গ্রামের প্রধান কৃষি ফসল সবজি চাষ। এ গ্রামের কৃষি পরিবারগুলো সারা বছর ধরে সবজি চাষ করেন। তারা ওই সবজি বিক্রি করে পরিবারের দৈনন্দিন খরচ মিটিয়ে আর্থিক সঞ্চয় করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছেন।

এ গ্রামের সবজি চাষিরা সবজি উৎপাদনের সঙ্গে নানামুখি কার্যক্রমেও জড়িত। এমনি একটি কার্যক্রম করলা বীজ উৎপাদন। নয়াপাড়া গ্রামের কৃষি পরিবারগুলোর মাঝে করলা বীজ উৎপাদনে এক নয়া দিগন্ত সূচিত হয়েছে। শুধু নয়াপাড়া গ্রাম নয়, রানীপুকুর ও লতিবপুর ইউনিয়নের ৬টি গ্রামের কৃষি পরিবারগুলো করলা বীজ উৎপাদনের সঙ্গে জড়িত। তাদের সংখ্যা এখন প্রায় এক হাজার।

এমনি ক’জন করলা বীজ উৎপাদন চাষি তাদের মধ্যে নয়াপাড়া গ্রামের হায়দার আলী (৫৫)। তিনি জানান, ১০ একর জমিতে করলা চাষ করেছেন। তিনি সবজি হিসেবে বাজারে বিক্রি না করে বীজ করেন সবটুকু ক্ষেতের করলা। শুধু হায়দার আলীই নয়, তার ছেলে রবিউল ইসলাম, নাজমুল হকসহ নয়াপাড়া, পাইকান, আফজালপুর ও হাবিবপুরসহ ৬টি গ্রামের প্রায় এক হাজার কৃষক করলা বীজ উৎপাদনের জন্য করলা চাষ করেছেন। এ সব এলাকায় উচ্চা, জংলি ও স্থানীয় রানীপুকুর নামের করলার জাত চাষাবাদ করা হয়।

 

Advertisement

কমেন্টস