ফেরেশতাগণের আকাশে তর্ক

প্রকাশঃ অক্টোবর ১৩, ২০১৭

বিডিমর্নিং ডেস্ক-

মুয়ায ইব্ন জাবাল (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, একদা ফজর নামাজে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বিলম্ব করলেন, আমরা প্রায় সূর্যের অগ্রভাগ দেখার কাছাকাছি ছিলাম, অত:পর তিনি দ্রুত বের হলেন, নামাজের ঘোষণা দেয়া হল, তিনি দ্রুত নামাজ আদায় করলেন। যখন সালাম ফিরালেন উচ্চ:স্বরে আমাদেরকে বললেন, ‘তোমরা তোমাদের কাতারে থাক যেরূপ আছ’। অত:পর আমাদের দিকে ফিরে বললেন, ‘আমি অবশ্যই তোমাদের বলব কি কারণে আজ আমার বিলম্ব হয়েছে। আমি রাতে উঠে ওজু করেছি অত:পর যা তাওফিক হয়েছে সালাত আদায় করেছি, নামাজে আমার তন্দ্রা এসে যায় তাই আমার কষ্ট হচ্ছিল।

হঠাৎ দেখি আমার রব আমার সামনে সর্বোত্তম আকৃতিতে। তিনি আমাকে বললেন, হে মুহাম্মদ ! আমি বললাম, লাব্বাইক (উপস্থিত) আমার রব। মহান আল্লাহ বললেন,

: ঊর্ধ্বজগতের ফেরেশতারা কি নিয়ে তর্ক করছে?

: আমি বললাম, হে আমার রব আমি জানি না।

: মহান আল্লাহ তা তিনবার বললেন।

: রাসূল রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন, আমি দেখলাম তিনি (মহান আল্লাহ) নিজ হাতের তালু আমার ঘাড়ের ওপর রাখলেন, এমনকি আমি তার আঙ্গুলের শীতলতা আমার বুকের মধ্যে অনুভব করেছি, ফলে আমার সামনে প্রত্যেক বস্তু প্রকাশ হল ও আমি চিনলাম। অতঃপর বললেন, হে মুহাম্মদ ! আমি বললাম, লাব্বাইক (উপস্থিত) হে আমার রব। তিনি বললেন, ঊর্ধ্ব জগতের ফেরেশতারা কি নিয়ে তর্ক করছে? আমি বললামঃ কাফফারা সম্পর্কে। তিনি বললেন, তা কি? আমি বললাম, জামাতের জন্য হাঁটা, সালাতের পর মসজিদে বসে থাকা, কষ্টের সময় পূর্ণরূপে ওজু করা। তিনি বলেন, অত:পর কোন বিষয়ে? আমি বললাম, পানাহার করানো, সুন্দর কথা বলা, মানুষের ঘুমিয়ে থাকাবস্থায় রাতে নামাজ আদায় করা। তিনি (মহান আল্লাহ) বললেন, তুমি চাও, আমি বললাম,

اللَّهُمَّ إِنِّي أَسْأَلُكَ فِعْلَ الْخَيْرَاتِ وَتَرْكَ الْمُنْكَرَاتِ وَحُبَّ الْمَسَاكِينِ وَأَنْ تَغْفِرَ لِي وَتَرْحَمَنِي وَإِذَا أَرَدْتَ فِتْنَةَ قَوْمٍ فَتَوَفَّنِي غَيْرَ مَفْتُونٍ، أَسْأَلُكَ حُبَّكَ وَحُبَّ مَنْ يُحِبُّكَ، وَحُبَّ عَمَلٍ يُقَرِّبُ إِلَى حُبِّكَ

‘হে আল্লাহ! আমি আপনার কাছে কল্যাণের কাজ করার তৌফিক চাই। খারাপ কাজ ছেড়ে দেয়ার তৌফিক চাই। অভাবীদের জন্য ভালোবাসা, আর আপনি যেন আমাকে ক্ষমা করেন ও আমার প্রতি রহম করেন। আর যখন আপনি কোন জাতিকে ফিতনা তথা পরীক্ষায় নিপতিত করতে চান, তখন আমাকে পরীক্ষায় নিপতিত না করে মৃত্যু দিন। আমি আপনার কাছে আপনার ভালোবাসা, আপনাকে যে ভালোবাসে তার ভালবাসা এবং এমন আমলের ভালোবাসা চাই যা আমাকে আপনার ভালোবাসার নিকটে নিয়ে যাবে।’ রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বললেন, নিশ্চয় এ বাক্যগুলো সত্য, তোমরা এগুলো শিখ ও শিক্ষা দাও’। (সুনানে তিরমিজি)

Advertisement

কমেন্টস