আমি তাসফিয়ার রক্ত বলছি

প্রকাশঃ মে ৫, ২০১৮

গোলাম মোস্তফা

আমার সাগরের ঢেউ ভালো লাগে,

রাতের নীরব আকাশের নিচে।

আমার চোখ পছন্দ করে,

সাগরের ঢেউয়ের নাচন দেখতে।

মনের ঘরে স্বপ্ন দেখি,

তোমার ছবি দেখে।

দেখা হবে সাগর পাড়ে,

মনের ঘরের মাঝে।

এই কি করছো তোমরা?

রক্তের খেলা হবে এখন,

তোমার লাশের মাঝে।

নিষ্ঠুরতা করো না তোমরা,

আমাকে বাঁচতে দাও।

বাবার মুখের হাসি আমি,

মায়ের বুকের মানিক আমি।

বাবা আমায় এমন দেখলে,

বাঁচবে কেমন করে।

আমার মুখের হাসি খানি,

মায়ের প্রাণের ধ্বনি।

রক্ত দেখলে মা আমার,

মরে যাবে আমার সাথে।

তোমরা আমাকে লাশ করো না!

আমি মায়ের আদরের তাসফিয়া,

বাবার রাতের ঘুমের তাসফিয়া।

আমার দেহের রক্তে দেখে,

সাগর কান্না করে।

সাগর আমি তাসফিয়া,

ওরা আমাকে বাঁচতে দিলো না!

তোমার সুখের বুকে।

আমি সাগর বলছি,

তাসফিয়ার রক্ত আমার পানিতে আছে

ওদের বিচার করো।

না হয় আমি সাগর,

সুনামি সৃষ্টি করবো।

ধ্বংস করে দিবো,

মানুষ নামক জানোয়ারদেরকে।

ওরা আমার বন্ধু তাসফিয়াকে হত্যা করেছে,

আমার বুকের উপরে।

আমি সাগর কথা বলতে পারি না বলে!

রক্তের বন্যা ভাসিয়ে দিলো,

আমার লবণ পানির বুকে।

আমি তাসফিয়ার রক্ত বলছি,

বিচার করো বাংলার বুকে।

নিয়ম কানুন দেখে,

ফাঁসি দাও জানোয়ারদের!

সাগর পাড়ে এনে।

বাবা ও বাবা, আমি তোমার তাসফিয়া।

এই দিকে দেখ! আমি তোমার মেয়ে!

বাবা তুমি শুনতে পারছো না,

আমার দেহের কথা।

বিদায় সাগর! বিদায় চট্টগ্রাম!

আমি তাসফিয়া চলে গেলাম,

অন্ধকার তিন হাত ঘরে।

কমেন্টস