জন্ম আমার ডাস্টবিনে!

প্রকাশঃ এপ্রিল ২০, ২০১৮

গোলাম মোস্তফা ( দুঃখু )

কুকুরের চিৎকার এত রাতে !
কেন আসে ঘরে ,
সারাদিন কাজ করি
হাটে মাঠে ঘাটে।

আমি হলাম রাস্তার মানুষ,
রাস্তা আমার বাবা ।
রাস্তা আমায় কোলে রাখে ,
মায়ের আদরে।

ঘর দেখবে!  ভাই ঘর!
আমার ঘর ডাস্টবিন ,
আমার খাবার ফেলে দেওয়া
ময়লা পঁচা রুটি !
না হয় পঁচা ভাতের প্যাকেট।

আমার কষ্ট কাকে বলবো ,
কঠিন পৃথিবীর মাঝে।
আমার বাবা কোথায় থাকে ,
জানি নাতো আমি।

কোন মায়ের সন্তান আমি ,
জানি না তো আমি।
রাতের মাঝে কুকুর আমায়,
জীবন বাঁচায় মানুষ ডেকে।

ডাস্টবিনে পেয়েছে আমায় ,
লোকের মুখে শুনি ।
তাই তো আমি খাবার খাই,
ডাস্টবিনের পঁচা ময়লা ভাত।

আমার সুখের সেন্ট,
ডাস্টবিনের গন্ধের মাঝে।
ওরা আমার মায়ের আদর ,
জীবন গল্পে বাবার পরশ।

ডাস্টবিনের পঁচা চারপাশ,
আমাকে জীবন দিয়েছে
কঠিন পৃথিবীর বুকে।

আচ্ছা আমি কার ,
ঘরের আলোর পথিক!
বলবে তোমরা আমায়।
নীরব কেন বলো তোমরা ?
আমার জীবন ঠিকানা।

বছর আসে দিবস পালন,
লোক দেখানোর নাচন।
আমরা মানুষ তো !
এই কঠিন পৃথিবীর মাঝে।

রাস্তায় থাকি রাস্তায় ঘুমাই ,
রাস্তা আমার পরিবার।
তোমরা সাহেব এবার আসো ,
আমাদের তোমরা থাকতে দাও
ডাস্টবিনের ময়লার নীরব ঘরে।

ম্যাম সাহেব আপনি অনেক সুন্দর,
রাস্তার ছেলে বলে কি!
এত সাহস পেলি কোথায়?

রাতের কুকুর আমায় পেয়েছে,
ডাস্টবিনের প্যাকেটে।
হাশেম বুড়ো কোলে নিলো,
কুকুর মামা চলে গেলো।

আট নয় বছর বয়স হলো,
হাশেম বুড়ো বলে গেলো।
রাতের অন্ধকার চার পাশ,
দামী গাড়ীর দামী সাহেব- ম্যাম।

প্যাকেট খানা ফেলে দিলো ,
ডাস্টবিন নামক ঘরে।
কুকুর মামা পাশে এলো,
হাশেম বুড়ো কোলে নিলো।

আমার মা হয়তো  ,
এমন আধুনিকতার আকাশ।
মন যে আমার কান্না করে,
বাবা- মায়ের পরশের জন্য।

পঁচা ভাত- পঁচা রুটি,
খাবো আজ সারাবেলা ।
মনের কষ্ট থাকবে মনে,
বিশাল পৃথিবীর বুকে।

জন্ম আমার ডাস্টবিনে,
বিশাল আকাশের নিচে।
আমি শিশু ফেলো না,
এমন কঠিন জায়গার দেশে।

এমন কঠিন পৃথিবীর ,
মানুষ রূপী শয়তান!
আমার বাবা- মা।

কমেন্টস