আব্বুর সাথে দূরত্ব শূন্য আবার অসীম

প্রকাশঃ জুন ২১, ২০১৫

ফারজানা ফায়জা পুর্ণি
আজ সবার বাবা দিবস, আর আমার আব্বু দিবস। অবশ্য আমার কোন সপ্তাহে দুইদিন, কোন সপ্তাহে একদিন আব্বু দিবস।

 

 

কারণ সপ্তাহে খুব বেশি হলে দুইবার কথা হয়। আব্বুর সাথে আমার দূরত্ব শূন্য আবার অসীম। আমি সবসময়ই আব্বুর প্রতি বেশি দুর্বল, প্রত্যেক মেয়েই এমনই হয়তোবা। আম্মুর সবসময়ই নালিশ-আমি আব্বুর পক্ষে।

 

 

আব্বুর অতি আদরের আমি, কিন্তু তা কখনোই অন্য কারও সামনে এমনি আম্মুর সামনেও প্রকাশ্য নয়। আমি আর আব্বু আলাদা কথা বললেই সেটা প্রকাশ্য, বিশেষ করে যখন ফোনে কথা হয়।
আমার অনেক চাওয়া আছে যা আমি কখনো আব্বুর কাছে আমার চাওয়া হবে না। তাই টার্গেট এখন আমার ভবিষ্যৎ শ্বশুর। সেও তো আর একজন আব্বুই। বাবা দিবসে আব্বুকে কিছু বলার নাই। কারণ বাবা দিবস বলে আলাদা করে কিছু নাই।
বাবাকে বাবা দিবসে কিছু বলতে হবে কেন? বাকি দিনগুলো কি না বলে থাকবো। আব্বুর আমার কাছে চাওয়া ছিলো আমি ডাক্তারি পড়বো। সেটা আমি পূরণ করি নাই। কারণ আমার দাদার একই চাওয়া আব্বু পূরণ করে নাই। নিজের মতো চলা আমার জিনগত সমস্যা, কিছু করার নাই।

 

আপাতত আব্বু চায় আমি পড়ালেখা করবো, এতটুকুই। জীবনেও আমার রেজাল্টে খুশি হয়নি-দুঃখও পায়নি। সুতরাং আমি পড়ালেখা চালিয়েই যাচ্ছি।

 

আম্মু বলছে আমার বাপের মতোই আমার ভবিষ্যৎ শূণ্য। দেখা যাক কি হয়। আমি সবসময় আম্মুর থেকে আপনাকে মিস করি আব্বু , কিন্তু আপনি কখনোই বোঝেন না।

Advertisement

কমেন্টস