সৌন্দর্যের গোপন রহস্য কয়লা!

প্রকাশঃ মে ১৩, ২০১৮

বিডিমর্নিং ডেস্কঃ

এক সময় রূপচর্চার বাজারে কয়লার ভালো দর ছিল। কয়লা মানেই কালি! কয়লা মানেই ময়লা! কিন্তু সেই কয়লাই আপনার রূপের জৌলুস খুলে দেয় সেটা হয়ত অনেকের জানা নেই। কেমিক্যাল প্রোডাক্টের মিথ্যে দাপটে যদি আপনার ত্বক পালাবার পথ খোঁজে, তা হলে চোখ বন্ধ করে কয়লার শরণাপন্ন হন। এক মাস টানা চারকোল দেওয়া প্রোডাক্ট ব্যবহার করে দেখুন, আয়নায় নিজেকে দেখে নিজেই চমকে যেতে বাধ্য।

নিজের ওজনের থেকে ১০০ থেকে ২০০ গুণ বেশি ওজনের ময়লা ত্বক থেকে শোষণ করতে পারে এক একটা চারকোল কণা। গায়ের দুর্গন্ধ তাড়াতেও ভারী কার্যকরী এটি। ব্রণর অব্যর্থ দাওয়াইও। সময় তো আটকানো যায় না, কিন্তু চারকোলের গুণে চামড়ায বয়সের ছাপ পড়ে না। কয়লার কণা অ্যাড্রিনাল গ্ল্যান্ডের কোষের ক্ষতি আটকে দেয়। শরীর থেকে টক্সিন এবং ক্ষতিকর রাসয়ানিক পদার্থ দূর করে।

ডাক্তার এবং রূপ বিশেষজ্ঞরা তাই আজকাল প্রায়শই এমন ক্রিম, ফেস ওয়াশ বা ফেস প্যাক ব্যবহার করতে বলেন, যাতে চারকোল থাকে। চারকোল চামড়ার কুঁচকে যাওয়া আটকে দেয়। বলিরেখা পড়তে দেয় না। এই মুহূর্তে যে বিভিন্ন প্রোডাক্টে কয়লার দাপুটে উপস্থিতির তালিকাঃ

টুথপেস্ট: টুথপেস্টে চারকোল মানে আপনার মাড়ি নিয়ে নিশ্চিত থাকুন। দূর হবে দাঁতের হলদেটে ছাপ।

ফেস ওয়াশ: এখন একটার পর একটা ফেস ওয়াশে শুধুই চারকোলের ছড়াছড়ি। সব ধরনের ত্বকে অ্যাকনে আর পিগমেন্টেশন আটকাতে সবার পছন্দের তালিকায় এখন এক নম্বরে কয়লার কণা মেশানো ফেস ওয়াশই।

সাবান: স্নানের সময় নিয়মিত চারকোল দেওয়া সাবান ব্যবহার করুন। ত্বকের বহু সমস্যা, র‌্যাশ বিনা আয়াসেই চলে যাবে। এমন কী দু্র্গন্ধের জন্য আর কারও নাক সিঁটকানিও সহ্য করতে হবে নয়।

তা হলে আর দেরি কেন? জীবনে নিয়ে আসুন কয়লার ব্ল্যাক ম্যাজিক। চাহারা পরিবর্তন করে নিজের চাহারায় নিয়ে আসুন সুন্দর্যের ছোঁয়া।

কমেন্টস