অসংযত মুত্র নিয়ন্ত্রনের সমস্যাকে বাড়িয়ে তুলে যে ৭ টি জিনিস

প্রকাশঃ অক্টোবর ২২, ২০১৭

বিডিমর্নিং ডেস্ক-

মূলত বয়স্ক নারীদের হয়ে থাকে অসংযত মূত্রত্যাগের সমস্যা বা প্রস্রাবের বেগ অধিমাত্রায় বৃদ্ধি জনিত সমস্যা। তবে তরুণীদেরও হতে পারে অস্বস্তিকর এই সমস্যাটি। সাধরাণত পুরুষের তুলনায় নারীদের মধ্যেই এই সমস্যা বেশি দেখা যায়। মূলত স্ট্রেস  এবং তাড়না এ দুই ধরণের হতে পারে মুত্রত্যাগের সমস্যা। তবে মূত্রত্যাগের এই অসংযত অবস্থাকে নিয়ন্ত্রনের বাইরে নিয়ে যায় খাবারের কিছু অনিয়মের জন্য। চলুন তাহলে দেখে আসি কোন কোন বিষয়গুলো অসংযত মুত্রত্যাগের সমস্যাকে আরো বাড়িয়ে দেয়। খানিকটা সচেতনতায় পারে আমাদের এই সমস্যা থেকে বের হওয়ার সমাধান দিতে।

 ১। অ্যালকোহল

যেহেতু অ্যালকোহল মূত্রবর্ধক তাই অ্যালকোহল পান করার ফলে অনেকবেশি মূত্র উৎপন্ন একিসাথে প্রস্রাবের তাড়না তৈরি  হয়। ফলে মূত্রাশয় উত্তেজিত হয় এবং অতিসক্রিয় মূত্রাশয়ের সমস্যায় আক্রান্তদের সমস্যাটিকে আরো বাড়িয়ে দেয়।

২। তরল গ্রহণ

প্রতিদিনের ডায়েটে দুধ কিংবা পানীয়জাত খাবারগুলো আমাদের প্রয়োজনীয়। তবে এই খাবারগুলো অতিরিক্ত গ্রহণ অস্বাভাবিক মূত্রত্যাগের সমস্যা বৃদ্ধি করত পারে।

৩। কফি

কফি মূত্র বর্ধক এবং মূত্রাশয়কে উত্তেজিত করতে পারে। মূত্রাশয়ের প্রাচীরের যন্ত্রণা সৃষ্টি  করতে পারে কফি। কফি গ্রহণের মাত্রা কমিয়ে দিলে সমস্যা কিছুটা কমবে।

৪। চিনি ও সে জাতীয় খাবার

মূত্রাশয়ের সমস্যাকে নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য আপনার মিষ্টি জাতীয় খাবার খাওয়ার প্রতি নিয়ন্ত্রণ আনতে হবে। যেমন চকলেটে ক্যাফেইন বা মিষ্টি উপাদান থাকে যা সমস্যার মাত্রা বাড়িয়ে তুলে। মিষ্টি জাতীয় যে খাবারগুলোতে মধু, কর্ণ সিরাপ এবং ফ্রুকটোজ থাকে তা অনিয়ন্ত্রিত মূত্রাশয়ের সমস্যাকে বাড়িয়ে দিতে পারে।

৫। ঠান্ডা পানীয়

কোমল পানীয় ব্লাডারের জন্য ক্ষতিকর । অনিয়ন্ত্রিত মূত্রত্যাগের সমস্যাকে বৃদ্ধি করে দিতে পারে এ সকল কার্বোনেটেড ড্রিংক। তাই চেষ্টা করুন এ ধরণের পানীয় এড়িয়ে চলার, বিশেষ করে বাইরে থাকা অবস্থায়।

৬।মশলাযুক্ত খাবার

বিভিন্ন গবেষণায় গোল মরিচ ও মরিচের গুঁড়ার মত মশলা এড়িয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়। ফলে অস্বাভাবিক মূত্রত্যাগের লক্ষণ কমে। এগুলো মূত্রাশয়কে অতি সক্রিয় করে তুলে।

৭। ঔষধ

মূত্রবর্ধক ঔষধ শরীর থেকে অতিরিক্ত তরল বের করে দেয়, যাতে হৃদপিণ্ড ও অন্যান্য অঙ্গগুলো ভালোভাবে কাজ করতে পারে। কিন্তু এর ফলে মুত্রাশয়ে অতিরিক্ত তরল জমা হয়। হৃদরোগের ঔষধ, রক্তচাপ কমানোর ঔষধ, পেশী শিথিল করার ঔষধ, ঘুমের ঔষধ  ইত্যাদি ঔষধগুলো অসংযত মূত্রাশয়ের সমস্যাকে বাড়িয়ে দিতে পারে।

কমেন্টস