সুন্দর ও স্বাস্থ্যোজ্জ্বল চুলের জন্য ৬ খাবার

প্রকাশঃ অক্টোবর ২৯, ২০১৬

বিডিমর্নিং ডেস্ক-

চুলের যত্নে নিয়মিত মাথায় তেল দেওয়া, শ্যাম্পু করা, এছাড়া বিভিন্ন হেয়ার প্যাক ব্যবহার করা হয়। কিন্তু এসবের পাশাপাশি পুষ্টিকর খাবার গ্রহণে উদাসীন হলে চলবে না। স্বাস্থ্যোজ্জ্বল চুলের জন্য পানি-তেলের পরিচর্যা তো চাইই, সঙ্গে চাই প্রয়োজনীয় খাবার। চুল যদি শরীর থেকে প্রয়োজনীয় পুষ্টি জোগাড় করতে না পারে, তাহলে মাথায় কেবল তেল মেখে আর শ্যাম্পু করে চুল ঠিকঠাক রাখা যাবে না। চুল পড়া রোধ করতে এবং সুন্দর চুলের জন্য খাদ্যতালিকায় সহজলভ্য কিছু খাবার রাখতে পারেন।

জেনে নিন এমনই ৬টি খাবার সম্পর্কে-

১। পালংশাক

ভিটামিন ও নানা খনিজ উপাদানে সমৃদ্ধ পালংশাকে রয়েছে  প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম, ক্যালসিয়াম, লৌহ ও ওমেগা ফ্যাটি অ্যাসিড। এই শাক হালকাভাবে সিদ্ধ করে একটু নুন-মরিচ দিয়ে যেমন খাওয়া যায়, তেমনি বাহারি নানা পদে রান্না করেও খাওয়া যায় । আর কেবল পালংশাকই নয়, এমন নানা শাকই চুলের জন্য ভালো।

২। ওট

ঝটপট নাশতায় দুধে ভিজিয়ে কিংবা কেবল পানিতে ভিজিয়েই ওট খেতে পারেন। দস্তা, তামা, ভিটামিন-বি এবং ভালো মানের প্রোটিনে সমৃদ্ধ ওট নিয়মিত খাবার তালিকায় রাখলে বাড়ন্ত চুলের পাশাপাশি অনেক স্বাস্থ্য সুফলও পেতে পারেন।  

৩। ডিম

ডিমের পুষ্টি উপাদান দুইভাবে চুলের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় কাজ করতে পারে। ডিম খাওয়ার পাশাপাশি চুলে ডিম মাখলেও উপকার পাবেন। ডিমের সমৃদ্ধ জৈব প্রোটিন শরীরের পুষ্টি চাহিদা মেটানোর মতো চুলকেও পুষ্টি জোগায়। ডিমের সাদা অংশের মতো কুসুমসহ পুরো ডিমও চুলে মাখা যায়। চুলের যত্নে ডিম খুবই উপকারী।

৪। গাজর

প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন-এ সমৃদ্ধ গাজর নিয়মিত খাদ্যতালিকায় রাখা জরুরি। এটি চুলের বৃদ্ধিতে দারুণ উপকারী। গাজরের এই ভিটামিন মাথার ত্বকে ‘সিবাম’ নামের একটা তৈলাক্ত রাসায়নিক উৎপাদনে সাহায্য করে। এটা চুলের গোড়াসহ মাথার শুষ্কতা রোধে কাজ করে। কাঁচা খাওয়ার পাশাপাশি গাজর রান্না করেও খেতে পারেন।

৫। বাদাম

বাদামে নানা ধরনের গুরুত্বপূর্ণ পুষ্টি উপাদান পাওয়া যায় এবং এর তেল ত্বক, চুল, মস্তিষ্ক ও হৃৎপিণ্ডের জন্য দারুণ উপকারী। সাধারণ চীনাবাদাম থেকে শুরু করে কাজুবাদাম, আখরোট ও অ্যালমন্ড- সবই দারুণ উপকারী খাবার। প্রতিদিনই হালকা খাবার হিসেবে বাদাম খেতে পারেন।

৬। মটরশুঁটি

চুলের জন্য খুবই প্রয়োজনীয় উপাদান কেরাটিন। মটরশুঁটি ও ডালে প্রচুর পরিমাণে কেরাটিন পাওয়া যায়। চুলের গোঁড়া শক্ত করতে নিয়মিত মটর ও ডাল খেতে পারেন। এতে চুলের বৃদ্ধি যেমন হবে, তেমনি চুল থাকবে স্বাস্থ্যোজ্জ্বল ও ঝলমলে।

Advertisement

কমেন্টস