Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৯ বুধবার, সেপ্টেম্বার ২০১৮ | ৩ আশ্বিন ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

সৌদিতে ফ্যাশন শো আয়োজন করায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তুলকালাম

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৩ মার্চ ২০১৮, ০৯:১৫ PM আপডেট: ১৩ মার্চ ২০১৮, ০৯:১৫ PM

bdmorning Image Preview


আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

পবিত্র শহর মদিনায় ফ্যাশন শো’র আয়োজন করায় তুমুল প্রতিবাদ শুরু হয়েছে। সৌদিতে রাষ্ট্রীয়ভাবে বিক্ষোভ, প্রতিবাদ সমাবেশের অনুমোদন নেই তাই আন্দোলনকারীরা বেছে নিয়েছেন অভিনব পদ্ধতি।

তারা এক্ষেত্রে শক্তিশালী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটার ব্যবহার করছেন। সামাজিক যোগাযোগ ব্যবহারকারীরা ফ্যাশন শো’র আয়োজকদের নিন্দা জানিয়ে বলছেন, এসব লোক প্রিয় নবী মুহাম্মাদ সা. এর শহরের পবিত্রতাকে ধূলোয় মিশিয়ে দিয়েছে।

একজন টুইটকারী বলেছেন, যারা রাসুলের পবিত্র শহরের সম্মানহানি করেছে তাদের ওপর আল্লাহ, ফেরেশতা ও সাধারণ মুসলমানদের অভিশাপ নাযিল হবে! আরেকজন বলেছেন, এই পবিত্র শহর সাহাবায়ে কেরামকে দেখেছে।

আর রাসুলুল্লাহ সা. রওজা আতহারে শুয়ে আছেন। এই শহরে ফ্যাশন শো’র আয়োজন করে শহরের পবিত্রতা নষ্ট করার অধিকার কাউকে দেয়া হয় নি।

উল্লেখ্য, গত ডিসেম্বরে সৌদির রাজধানী রিয়াদের কাছে ফ্যাশন শো’র আয়োজন করা হয়। মিডিয়ার ভাষ্য মতে সৌদি বাদশাহ শাহ সালমান এটা পছন্দ করেননি এবং একারণে বাণিজ্যমন্ত্রীর উপদেষ্টাকে বরখাস্তও করেছিলেন।

কিন্তু এর পরও গত ফেব্রুয়ারির শেষ দিকে জেদ্দায় নারীদের জন্য ফ্যাশন শো’র আয়োজন করা হয়। এখানে দেশি বিদেশি প্রায় ১৬০টি কোম্পানি অংশগ্রহণ করে।

ধারণা করা হচ্ছে, ৩৩ বছর বয়সী যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন সালমান সৌদিতে মুক্তমনা ও নারী স্বাধীনতার যে মিশন শুরু করেছেন এটা তারই গুরুত্বপূর্ণ অংশ। অনেকেই মনে করছেন, ফ্যাশন শো’র প্রতিবাদে চলমান টুইটার আন্দোলন সৌদিতে ব্যাপক প্রভাব ফেলবে।

Bootstrap Image Preview