জাপানে বৌদ্ধ ভিক্ষুর ভূমিকায় রোবোট!

প্রকাশঃ আগস্ট ২৫, ২০১৭

আন্তর্জাতিক ডেস্ক-

রক্তমাংসের বৌদ্ধ মঙ্কের চেয়ে যান্ত্রিক মঙ্কই ভালো। এমনটি হলে পার্থিব ভোগ বিলাসের আর কোন ঝামেলাই থাকেনা। অন্তত জাপানীরা তেমনটিই ভাবছে। দেশটিতে ইতোমধ্যেই একটি রোবট ধর্মগুরু মঙ্কের দায়িত্ব পালন করছে। রাজধানী টোকিওর একটি প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান এই মঙ্ককে তৈরী করেছে। কোন শেষকৃত্যানুষ্ঠানে ধর্মীয় আচার পালনে সক্ষম এই রোবট মঙ্ক। নির্ধারিত সময়ে এটিকে চালু করলেই মন্ত্র জপে ধর্মীয় ভাব গাম্ভির্য্যরে মধ্য দিয়ে এটি দায়িত্ব পালন করে।

ইভনিং স্ট্যান্ডার্ডের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, কোন শেষকৃত্যের অনুষ্ঠান সম্পন্ন করতে ‘পিপার’ নামের ওই রোবট মঙ্ককে ৩৫০ পাউন্ড পরিমান জাপানি মুদ্রা দিয়ে ভাড়া করতে হয়। এক্ষেত্রে কোন মানুষ মঙ্ককে ভাড়া করতে চাইলে খরচ পড়বে প্রায় ১৭০০ পাউন্ড।

জানা গেছে, রোবট মঙ্ক পিপারের বিরোধীতা শুরু করেছেন অনেক মানুষ মঙ্ক। বৌদ্ধ ধর্মগুরু তেসুগি মাতসু ইতোমধ্যেই পিপারের সঙ্গে দেখা করেছেন। সাক্ষাত শেষে সংবাদসংস্থা রয়টার্সকে তিনি বলেন, ‘পিপার মন্ত্র পড়তে পারলেও, সে হৃদয় থেকে তা পড়তে পারেনা। ধর্মীয় আচারে হৃদয় থাকা অত্যাবশ্যক।’

জাপানের প্লাস্টিক কোম্পানি নিশেই ইকো কোং পিপারকে তৈরী করেছেন। মঙ্ক ছাড়াও এই কোম্পানি দোকান কর্মচারী, গৃহকর্মী এবং রেস্তোরাঁ বয় রোবটও তৈরী করেছে। জাপানের জনসংখ্যা দিন দিন কমে যাচ্ছে। তাই সর্বক্ষেত্রে

Advertisement

কমেন্টস