কার্টুনিস্টদের দৃষ্টিতে অং সান সুচি’র নোবেল ও রোহিঙ্গা নির্যাতন

প্রকাশঃ সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৭

বিডিমর্নিং ডেস্ক- 

ইরানসহ বিভিন্ন দেশের কার্টুনিস্টরা মিয়ানমারে মুসলিম-বিরোধী সেনা অভিযানে নিরীহ রোহিঙ্গাদের হত্যা, ঘর-বাড়ী জ্বালিয়ে দেয়া, জীবন বাঁচাতে পলায়নপর রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ-শিশু-বৃদ্ধদের দলেদলে দেশত্যাগ, শান্তিতে নোবেলজয়ী নেত্রী অং সান সু চি’র বিতর্কিত ভূমিকা এবং সার্বিক মানবিক বিপর্যয় নিয়ে কার্টুন এঁকেছেন।

গত ২৪ আগস্ট রাখাইনে বেশ কয়েকটি তল্লাশিচৌকিতে কথিত হামলার পর রোহিঙ্গাদের ওপর হত্যা-নির্যাতন শুরু করে মিয়ানমারের সেনা ও পুলিশ। তারা সন্ত্রাসী আখ্যা দিয়ে রোহিঙ্গা যুবকদের ধরে নিয়ে হত্যা করছে। জ্বালিয়ে দেওয়া হচ্ছে ঘরবাড়ি। রাখাইন রাজ্যের মংগদু জেলার ঢেকিবুনিয়া, চাকমাকাটা, ফরিকরাবাজার, তুমব্রু, কুমিরখালী, বলীবাজার, টংবাজার, সাহাববাজারসহ রোহিঙ্গা–অধ্যুষিত অন্তত ২৫টি গ্রাম এখন মানুষশূন্য। ইতোমধ্যে কয়েকশ রোহিঙ্গা প্রাণ হারিয়েছেন।

রাখাইনে রোহিঙ্গা মুসলিমদের বিরুদ্ধে ব্যাপক মাত্রায় মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনায় কার্যকর অবস্থান নিতে ব্যর্থ হওয়ায় মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী অং সাং সু চি’র নোবেল শান্তি পুরস্কার ফিরিয়ে নেয়ার জন্য বিভিন্ন মহল থেকে দাবিও উঠেছে। এ বিষয়টিও তুলে ধরেছেন কার্টুনিস্টরা।

নির্বিচারে হত্যা ও বাড়িঘর জ্বালিয়ে দেয়ায় প্রাণে বাঁচতে মিয়ানমারের সংখ্যালঘু রোহিঙ্গারা দলে দলে বাংলাদেশে ঢুকছে। জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা ইউএনএইচসিআর জেনেভায় গতকাল এক ব্রিফিংয়ে জানিয়েছে, গত মাস থেকে এ পর্যন্ত বাংলাদেশে ১ লাখ ২৩ হাজার রোহিঙ্গা আশ্রয় নিয়েছে।

কিন্তু অং সান সুচি রাখাইনে হত্যা, ধর্ষণ, নির্যাতন, জ্বালাও-পোড়াওয়ের কথা অস্বীকার করে বলেছেন, রাখাইন রাজ্যে সবার নিরাপত্তা বিধান করা হচ্ছে। তার এ মিথ্যাচার এবং ন্যক্কারজনক ভূমিকার প্রতিবাদে দেশে দেশে বিক্ষোভ হচ্ছে। বিক্ষোভ থেকে শান্তিতে এই নোবেলজয়ীর পুরস্কার ফিরিয়ে নেয়ার দাবিও তোলা হয়েছে।

কমেন্টস