মায়ানমার সিমান্তে যুদ্ধজাহাজ- ফাইটার জেট মোতায়েন করেছে বাংলাদেশ

প্রকাশঃ সেপ্টেম্বর ৩, ২০১৭

বিডিমর্নিং ডেস্ক-

বাংলাদেশ-মায়ানমার সীমান্তে ক্রমশ তৈরি হচ্ছে জটিলতা। গত কয়েকদিন ধরে লাগাতার বাংলাদেশের আকাশসীমা লঙ্ঘন করেছে মায়ানমার এয়ারফোর্সের একটি সামরিক হেলিকপ্টার। এরপরেই বাংলাদেশের পক্ষ থেকে পাল্টা ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

বিভিন্ন সূত্র পাওয়া খবরের ভিত্তিতে ঢাকা ট্রিবিউন জানিয়েছে, মায়ানমার সীমান্তের কাছে চিটগাঁও এলাকাতে বাংলাদেশ এয়ারফোর্স এবং নেভির তৎপরতা দেখা গিয়েছে। ঢাকা ট্রিবিউনের ওই রিপোর্টে বলা হয়েছে, , মিগ-২৯ এস এবং এফ-৭ যুদ্ধবিমান মোতায়েন করা হয়েছে চট্টগ্রাম সীমান্তে। পাশাপাশি বাংলাদেশ নেভির সবথেকে শক্তিশালী যুদ্ধজাহাজ BNS Bangabandhu-ও মোতায়েন করা হয়েছে। একই সঙ্গে আরও সাত থেকে আটটি ড্রেস্ট্রোয়ারও মোতায়েন করা হয়েছে। ফলে, বাংলাদেশ-মায়ানমার সীমান্তে রীতিমত সামরিক সজ্জা সাজাচ্ছে বাংলাদেশ সামরিক বিভাগ।

Dhaka Tribune
প্রসঙ্গত, বাংলাদেশের আকাশসীমা লঙ্ঘন করল মায়ানমার এয়ারফোর্স। একবার নয়, একাধিকবার বাংলাদেশের আকাশসীমা লঙ্ঘন করে সীমান্তের এপারে ঢুকে পড়ে সামরিক হেলিকপ্টার। এমনটাই অভিযোগ বাংলাদেশ সরকারের। ইতিমধ্যে এর বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ সরকার। অন্যদিকে, বাংলাদেশের বিদেশ দফতর এক বিবৃতিতে জানিয়েছে ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে ইতিমধ্যে মায়ানমারকে চিঠি দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২৭ ও ২৮শে অগাস্ট এবং ১লা সেপ্টেম্বর মায়ানমারের হেলিকপ্টার বেশ কয়েকবার আকাশসীমা লংঘন করে বাংলাদেশের সীমানায় চলে আসে। উখিয়ার কাছে তিনবার মিয়ানমারের হেলিকপ্টার আকাশ সীমা লংঘন করে।

বাংলাদেশ মিয়ানমারের সঙ্গে নিরাপত্তার ক্ষেত্রে সহযোগিতা দিয়ে যাচ্ছে সেকথা উল্লেখ করে বিবৃতিতে বলা হয়, যদি এরকম আকাশসীমা লংঘনের ঘটনা ঘটতে থাকে, তা দুদেশের বোঝাপড়া এবং সহযোগিতার সম্পর্ককে ক্ষুন্ন করবে।

সূত্র- ঢাকা ট্রিবিউন

কমেন্টস