‘রাষ্ট্রভাষা বাংলা চাই’

প্রকাশঃ ফেব্রুয়ারি ২১, ২০১৮

বিডিমর্নিং ডেস্ক-

বাঙালির মুখের ভাষা কেড়ে নেওয়া এবং বাংলাকে বাদ দিয়ে উর্দুকে রাষ্ট্রভাষা করার ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদেই তো এই একুশের জন্ম। আজ অমর একুশে। বাঙালির গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাসের, এমনকি মানব ইতিহাসের এক অন্যতম দিন। ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ১৯৫২ সালের এই দিনে মায়ের ভাষার অধিকার রক্ষার জন্য রাজপথে বুকের রক্ত ঢেলে দিয়েছিল বাঙালি। দিনটি তাই বিশ্বজুড়েও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে স্বীকৃত।

৬৬ বছর আগের এই দিনে বাঙালির মায়ের ভাষা প্রাণের ভাষা বাংলা ভাষার অধিকার রক্ষার দাবিতে ঢাকার রাজপথ হয়ে উঠেছিল উত্তাল। উর্দুভাষী পাকিস্তানি শাসকদের হুমকি-ধমকি, রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে ১৪৪ ধারা ভেঙে রাজপথে নেমে এসেছিল বাংলার ছাত্র-শিক্ষক, নারী-শিশুসহ নানা বয়সী অসংখ্য মানুষ। আকাশ-বাতাস কাঁপিয়ে তারা বজ্রকণ্ঠে আওয়াজ তুলেছিল ‘রাষ্ট্রভাষা বাংলা চাই’। পুলিশ গুলি চালিয়েছিল ওই মিছিলে। অসীম সাহসী বাঙালি তরুণরা বুক পেতে দিয়েছিল সেই বুলেটের সামনে। গুলিতে লুটিয়ে পড়েন রফিক, বরকত, সালাম, জব্বার, শফিউরসহ অনেকে।

অমর একুশের সেই শহীদদের স্মরণে তাই প্রতিবছর দেশের সব কণ্ঠে বেজে ওঠে- ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি ,আমি কি ভুলিতে পারি…’ ঢাকাসহ সারা দেশের শহীদ মিনারগুলো ফুলে ফুলে ছেয়ে যায় মধ্যরাত থেকেই। ভাষা শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানাতে ভোরের শিশির মাড়িয়ে নগ্ন পায়ে শহীদ মিনার অভিমুখে এগিয়ে যায় সব বয়সের সব স্তরের অগণিত মানুষ।

কমেন্টস