একটি বিজ্ঞান উৎসব এবং ক্রসিয়ানদের নেতৃত্ব চর্চা

প্রকাশঃ অক্টোবর ১০, ২০১৭

আফলাতুন কাইসার জিলানী-

কিছুদিন আগেও নেতৃত্ব এবং নেতা এ ধরণের শব্দগুলো শুনলেই আমাদের চোখের সামনে বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতাদের ছবি ভেসে আসত। এখন ধারণাটা পাল্টেছে। এখন তরুণরা নেতৃত্বকে একটা লাইফ স্কিল হিসেবে দেখে। আর ক্লাব পরিচালনা, ফেস্ট অর্গানাইজ করা এ রকম বিভিন্ন সহশিক্ষা কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করে কিশোর-কিশোরী এবং তরুণ-তরুণীরা নেতৃত্বের চর্চা করছে।

গত ২২ থেকে ২৪ সেপ্টেম্বর এক ঝাঁক তরুণীর নেতৃত্বে হলিক্রস কলেজে অনুষ্ঠিত হল আন্তঃকলেজ বিজ্ঞানউৎসব। এই বিজ্ঞানউৎসবের বাহিরের চিত্রটা সবার কাছে ধরা পড়লেও এই আয়োজনের পেছনের মানুষগুলোর অক্লান্ত পরিশ্রম খুব একটা সামনে আসে না। ক্লাবের এক্সিকিউটিভ মেম্বাররা ফেস্টের আগে স্পন্সর, মিডিয়া পার্টনার, অতিথি নিশ্চিত করতে হয়। আর এর মধ্য দিয়ে তাদের মধ্যে কর্মজীবনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ যোগাযোগের দক্ষতার বিকাশ ঘটে।তারা টিমে কাজ করা শিখে।

তিন দিনব্যাপী এই বিজ্ঞান উৎসবের প্রথমদিনের অন্যতম আকর্ষণ ছিল বুয়েটের তড়িৎ প্রকৌশল বিভাগের অধ্যাপক ড. ফারসীম মান্নান মোহাম্মদীর মহাশূন্যবিষয়ক কর্মশালা। এই কর্মশালা শেষে কোন তরুণ কিংবা তরুণী হয়ত নিজেকে মহাশূন্যের মায়ায় জড়িয়ে ফেলেছে। কেউ হয়ত নাসায় চাকরি করার স্বপ্ন দেখছে। কারো মনে হয়ত প্রশ্ন জেগেছে, পৃথিবী ভিন্ন অন্য কোন গ্রহে কি প্রাণের বিকাশ সম্ভব? আদৌ কি এলিয়েনের অস্তিত্ব আছে?

বিজ্ঞানউৎসবের প্রথমদিন বিভিন্ন ধরণের অলম্পিয়াড অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে গণিত অলম্পিয়াড, পদার্থবিজ্ঞান অলম্পিয়াড, জীববিজ্ঞান অলিম্পিয়াড, জ্যোতিঃর্বিজ্ঞান অলম্পিয়াড অন্যতম। ক্ষুধে বিজ্ঞানীরা তাদের বিজ্ঞানভিত্তিক অসাধারণ প্রকল্পগুলো তুলে ধরে সাইন্স প্রজেক্ট কম্পিটিশনে।

দ্বিতীয়দিন ছিল বাংলায় উপস্থিত বক্তৃতা, সুডুকু, কুইজ প্রতিযোগিতার প্রথম পর্ব, আর ব্যবসা শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে বিজনেস কম্পিটিশন।

তৃতীয়দিন ছিল কুইজের চূড়ান্ত পর্ব। আর তিনদিনই ছিল ওয়াল ম্যাগাজিন প্রদর্শনী। তরুণ বিজ্ঞানী, তরুণ উদ্ভাবক, ভবিষ্যৎ বিজনেস লিডার এবং কুইজারদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণের মধ্য দিয়ে বিজ্ঞানউৎসবের সমাপ্তি ঘটে।

পুরস্কার বিতরণী উৎসবে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক আখতারুজ্জামান, আরো উপস্থিত ছিলেন বুয়েটের কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের প্রফেসর ড. মোহাম্মদ কায়কোবাদ।
এই পুরো আয়োজনে মিডিয়া পার্টনার হিসেবে ছিল বিডিমর্নিং।

হলিক্রস কলেজের প্রিন্সিপাল সিস্টার শিখা বিডিমর্নিং এর সাথে সাক্ষাৎকারে বলেন, বর্তমান সময়ে সহশিক্ষা কার্যক্রম অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের ক্লাবগুলো সহশিক্ষা কার্যক্রমের সুযোগ সৃষ্টির মাধ্যমে নেতৃত্বের গুণাবলী সম্পন্ন নাগরিক তৈরিতে ভূমিকা পালন করছে। স্পিকার শিরীন শারমীন চৌধুরী, সাবেক পররাষ্ট্র মন্ত্রী দীপু মণি তার প্রকৃষ্ট উদাহরণ।

কমেন্টস