হ্যামিলনের বাঁশি দরকার ,ইঁদুর শেষ করছে ঢাকার সংসার! (পর্ব- ১) ·

প্রকাশঃ আগস্ট ১৮, ২০১৭

মেরিনা মিতু।।

ইঁদুরে ভরেছে রাজধানী, একথা বাস্তবিকই ঠিক। অশুভের নীল ইঙ্গিতে মস্তিষ্কের ডান পাশ টা অবশ বোধ হয়। ওযু করে পাক হয়ে ঢুকি সেখানে। এখানে যে হত্যা আর এবাদত দুই ই হয়। হুহুহুহুহু…………

আমাদের ঘর বাড়ি, গলি, অর্থাৎ চতুর্দিকে ইঁদুরের অধিকারের অরাজকতা। টেবিলের উপরে ও নিচে, বইয়ের ভিতরে, বাক্সে, আলমারি, পেয়ালা, পিরিচে ইঁদুরের বসবাস। বাবার লুঙ্গি, চাচীর পেটিকোট, বোনটার বাটিক ওড়নায়, হুহুহুহু ……… সর্বত্রই আজ ইঁদুরের দখলে। কোনটি খেলনা আর কোনটি পুতুল তা বুঝে উঠতে খেলনাপ্রিয় শিশুদেরও ভুল হয়ে যায়।

একসময় নারীদের শিরে ছিলো মনোলোভা খোপা, এখন সেখানে শুধু ধেড়ে ইঁদুরের শোভা। ট্রাউজার আর জ্যাকেটের ভিতর থেকে অতিকায় ইঁদুর বেরিয়ে আসে, মেয়েদের ব্লাউজেও ঢুকে থাকে ইঁদুরেরা, নিরুপায় সব, কে করবে সাহায্য??

আমাদের রাজধানী আজ ইঁদুরের সাম্রাজ্য। আমাদের বস্তুলোক জুড়ে ইঁদুরের আধিপত্য, স্বপ্নেও আমরা ইঁদুর দেখি, এও যথার্থই সত্য। শুধু ইঁদুরই বা কেনো?? কতো না বিচিত্র জন্তু ঘুরে চারদিকে, আর আমাদের স্নায়ু, পেশি, তন্তু ছিড়ে ফেলে খুশিমতো। কতো বাঘ, খট্টাস, গন্ডার প্রবল প্রতাপে চলে রাজপথে। পথে পথে কত অজগর , তাদের দয়াতেই তো বেঁচে আছি কোনরকম।

শুধু রাজধানী কেন?? আমাদের সংখ্যাহীন গ্রামে,শস্যক্ষেতে, আর কৃষকের ঘরে দলে দলে নামে ইঁদুরবাহিনী। কৃষাণী ও কৃষক কন্নার চুলে নষ্ট শসার মত অদিনরাত সারি সারি ঝুলে থাকে ইঁদুরেরা। সব আজ ইঁদুরের দখলে। সব আজ ইঁদুরের কবজায়। এমনকি আকাশটাকেও বিশাল ইঁদুর মনে হয়। তারা অশুভপ্রবন……..

কমেন্টস