তারুয়া বিচে লাল কাকড়ার লুকোচুরি

প্রকাশঃ জানুয়ারি ৯, ২০১৭

এস আই মুকুল, ভোলা প্রতিনিধি-

শীতের আগমনে প্রকৃতিতে লেগেছে তার নান্দনিক ছোঁয়া। ভোলার চরফ্যাশনে ম্যানগ্রোভ বনাঞ্চল ঢালচর, কুকরি-মুকরি ও পর্যটন কেন্দ্র তারুয়ার ৭ কিলোমিটার বিচ জুড়ে হরেক রকম পাখির কল কাকলী ও বালুর বুকে লাল কাকড়ার লুকোচুরি।

প্রতিদিন কয়েক হাজার পর্যটক প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করতে ভিড় করছে এখানে। দূর-দূরান্ত থেকে আসা প্রকৃতিপ্রেমী পর্যটকদের বিচরণে মুখরিত এ দ্বীপ। পর্যটকদের পছন্দের স্পট হিসেবে সম্প্রতি বেশ আলোচিত হচ্ছে। একদিকে সমুদ্র সৈকত অন্যদিকে লাল কাকড়া প্রকৃতি প্রেমীদের খুবই আকর্ষণ করে।

ভোলা জেলার চরফ্যাশন উপজেলা সদর থেকে প্রায় ৩৫ কিলোমিটার দূরত্বে ঢালচর ইউনিয়ন। বঙ্গোপসাগর ঘেঁষে ঢালচর থেকে পূর্বদিকে চর শাহজালাল ও চর আশরাফের মাঝামাঝি বিছিন্ন তারুয়া দ্বীপ।

তারুয়া বিচে লাল কাকড়ার লুকোচুরি

এ দ্বীপের বালুতটে ছোট ছোট লাল কাকড়ার খেলা পর্যটকদের কাছে এক অন্যরকম আকর্ষণ। দূর থেকে দেখলে মনে হবে যেন সৈকত জুড়ে লাল কার্পেট বিছিয়ে রাখা হয়েছে।

দ্বীপটি এরই মধ্যে পর্যটকদের দৃষ্টি আকর্ষণে সক্ষম হয়েছে। এ দ্বীপের সৌন্দর্যের কথা জেলার বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে পড়ায় হাজারো মানুষ এখানে বেড়াতে আসছেন।

তবে জনমানবহীন তারুয়া পর্যটন এলাকায় সরকারিভাবে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হলে পর্যটকদের আরো সমাগম হবে। শীতের এ মৌসুমে পর্যটন পিপাসুরা ইতোমধ্যে তারুয়া সহ ঢালচর ও কুকরি মুকরি পর্যটন এলাকায় আসতে শুরু করেছে।

Advertisement

কমেন্টস