যে ২৭ চলচ্চিত্রের নায়ক ‘অমর সালমান শাহ্‌’

প্রকাশঃ সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৭

বিডিমর্নিং বিনোদন ডেস্ক-

আজ ৬ সেপ্টেম্বর সালমান শাহ্‌ ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় নায়কের ২১তম মৃত্যুবার্ষিকী। সালমান শাহের আদ্যোপান্ত জানতে হলে জানতে হবে তার শুরু থেকে শেষ। সালমান শাহ্‌ ওরফে ইমন নির্মাতা সোহানুর রহমান সোহানের হাত ধরে ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে ১৯৯২ সালে চলচ্চিত্র জগতে পদার্পণ করেন। প্রথম ছবিতেই জনপ্রিয়তা অর্জন করতে সক্ষম হন। তারপর একেরপর এক বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে সুন্দর সুন্দর সিনেমা উপহার দেন তিনি। নব্বই দশকের অন্যতম শ্রেষ্ঠ ও সুদর্শন নায়ক ছিলেন তিনি। মাত্র চার বছরের চলচ্চিত্র জীবনে ছুঁয়ে গেছেন জনপ্রিয়তা সর্বোচ্চ শিখরে।

পুরো নাম : শাহরিয়ার চৌধুরী ইমন
জন্ম : ১৯ সেপ্টেম্বর ১৯৭১, রোববার
বাবা : কমর উদ্দিন চৌধুরী
মা : সাবেক এমপি নীলা চৌধুরী
স্ত্রী : সামিরা
উচ্চতা : ৫ ফুট ৬ ইঞ্চি
রাশি : বৃশ্চিক
প্রথম ছবি: কেয়ামত থেকে কেয়ামত
শেষ ছবি: বুকের ভেতর আগুন
প্রথম নায়িকা : মৌসুমী
সর্বাধিক ছবির নায়িকা : শাবনূর (১৪টি)
মোট ছবি : ২৭টি
বিজ্ঞাপনচিত্র : মিল্ক ভিটা, জাগুয়ার কেডস, গোল্ড স্টার টি, কোকা-কোলা, ফানটা
ধারাবাহিক নাটক : পাথর সময়, ইতিকথা
একক নাটক : আকাশ ছোঁয়া, দোয়েল, সব পাখি ঘরে ফেরে, সৈকতে সারস, নয়ন, স্বপ্নের পৃথিবী।
বিয়ে : ২০ ডিসেম্বর, ১৯৯২
স্ত্রী : সামিরা শাহ
মৃত্যু : ৬ সেপ্টেম্বর ১৯৯৬, শুক্রবার।

সালমান শাহ ২৭টি ছবিতে অভিনয় করেছিলেন। সেগুলি দেখে নিন এক নজরে-

সিনেমা

কেয়ামত থেকে কেয়ামত (১৯৯৩ সালের ২৫ মার্চ), তুমি আমার (১৯৯৪ সালের ২২ মে), অন্তরে অন্তরে (১৯৯৪ সালের ১০ জুন), সুজন সখী (১৯৯৪ সালের ১২ আগস্ট), বিক্ষোভ (১৯৯৪ সালের ৯ সেপ্টেম্বর), স্নেহ (১৯৯৪ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর), প্রেমযুদ্ধ (১৯৯৪ সালের ২৩ ডিসেম্বর), কন্যাদান (১৯৯৫ সালের ৩ মার্চ), দেনমোহর (১৯৯৫ সালের ৩ মার্চ), স্বপ্নের ঠিকানা (১৯৯৫ সালের ১১ মে), আঞ্জুমান (১৯৯৫ সালের ১৮ আগস্ট), মহামিলন (১৯৯৫ সালের ২২ সেপ্টেম্বর), আশা ভালোবাসা (১৯৯৫ সালের ১ ডিসেম্বর), বিচার হবে (১৯৯৬ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি), এই ঘর এই সংসার (১৯৯৬ সালের ৫ এপ্রিল), প্রিয়জন (১৯৯৬ সালের ১৪ জুন), তোমাকে চাই (১৯৯৬ সালের ২১ জুন), স্বপ্নের পৃথিবী (১৯৯৬ সালের ১২ জুলাই), সত্যের মৃত্যু নেই (১৯৯৬ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর), জীবন সংসার (১৯৯৬ সালের ১৮ অক্টোবর), মায়ের অধিকার (১৯৯৬ সালের ৬ ডিসেম্বর), চাওয়া থেকে পাওয়া (১৯৯৬ সালের ২০ ডিসেম্বর), প্রেম পিয়সী (১৯৯৭ সালের ১৮ এপ্রিল), স্বপ্নের নায়ক (১৯৯৭ সালের ৪ জুলাই), শুধু তুমি (১৯৯৭ সালের ১৮ জুলাই), আনন্দ অশ্রু (১৯৯৭ সালের ১ আগস্ট), বুকের ভেতর আগুন (১৯৯৭ সালের ৫ সেপ্টেম্বর)।

নাটক

আকাশ ছোঁয়া (১৯৮৫), দোয়েল (১৯৮৫), সব পাখি ঘরে ফেরে (১৯৮৫), সৈকতে সারস (১৯৮৬), পাথর সময় (১৯৯০), ইতিকথা (১৯৯৪), নয়ন (১৯৯৬), স্বপ্নের পৃথিবী (১৯৯৬)।

বিজ্ঞাপন

ইস্পাহানি গোল্ডস্টার টি (১৯৮৩), জাগুয়ার কেডস (১৯৮৪), মিল্ক ভিটা (১৯৮৮), কোকা-কোলা (১৯৮৯), ফানটা (১৯৯১)।

Advertisement

কমেন্টস