বৃষ্টিস্নাত তুমুল রোম্যান্সে উষ্ণতা বাড়িয়েছেন এই নায়িকারা (ভিডিও)

প্রকাশঃ এপ্রিল ২৯, ২০১৮

 বিডিমর্নিং বিনোদন ডেস্ক-

বৃষ্টিতে ভেজা নায়িকা! এখনকার যুগের এটা খুব সাধারণ হলেও ৮০’ এর দশকে এটি ছিল বেশ সাহসিকতার ব্যাপার। তবুও ৩৮ বছর ধরে বৃষ্টিস্নাত তুমুল রোম্যান্সে উষ্ণতা বাড়িয়ে চলেছেন বলিউড নায়িকারা। রূপালি পর্দায় নায়িকাদের বৃষ্টিস্নাত ভেজা শরীরে দেখেই মোহিত রোমাঞ্চিত হয় সবাই।

শাহরুখ খান ও কাজল অভিনীত ‘কুছ কুছ হোতা হেয়’

রাজ কাপুর থেকে শুরু করে বর্তমান ছবির পরিচালকরা প্রায় সবাই রোমান্টিক গানের দৃশ্যে নায়িকাদের ভিজিয়েছেন বৃষ্টিতে।

এক ‘লড়কি ভিগি ভাগি সি’, ‘পেয়ার হুয়া ইকরার হুয়া’ থেকে শুরু করে হালফিলের ‘তুম হি হো’ বৃষ্টির ফোঁটায় ফোঁটায় রয়েছে রোমান্টিসিজমের মাদকতা। আর বৃষ্টির রোমান্টিক গানে নায়িকার পরনে শাড়ির থেকে সেক্সি আর কী-ই-বা হতে পারে।

সেই ৮০’র দশকে একজন প্রিয় বৃষ্টির দৃশ্য ছবি ‘রাম তেরি গঙ্গা মইলি’ এর পরিচালক রাজ কাপুর ছবির নায়িকা মন্দাকিনী নায়কের সঙ্গে প্রেম করতে করতে হঠাৎ ঝরনার জলে ভিজতে শুরু করে৷ পরনে তার পাতলা ফিনফিনে সাদা শাড়ি৷ এই শাড়ি যেন এক্সরে মেশিনকেও ছাপিয়ে যায়৷ রোমান্টিক গানের সঙ্গে মন্দাকিনী বিভিন্ন ভঙ্গে নাচে।

‘শ্রী ৪২০’ ছবিতে রাজ কপূর ও নার্গিস।

যৌন আবেদনের আরেক নাম জিনাত আমান৷ সেই সময়ের নায়িকাদের মধ্যে তিনি সাহসী ছিলেন বেশ। ‘সত্যম শিবম সুন্দরম’ ১৯৭৮ সালের সিনেমা এতে তিনি মন্দাকিনীর মতো ভরাট স্বাস্থ্যের না হলেও তার পোশাক আর বেশভূষায় তিনি বেশ রোমাঞ্চ তৈরি করেছিলেন। হাঁটুর ওপর পর্যন্ত সাদা কাপড়ে মোড়ানো ছিপছিপে আবেশ আর সুরের ছন্দে নেচে মোহিত করেছিলেন দর্শকদের।

‘মোহরা’ ছবির সেই বিখ্যাত দৃশ্যে অক্ষয় কুমার ও রবিনা ট্যান্ডন।

১৯৯০ সালে ‘কিষেণ কানাইয়া’ ছবিতে নায়িকা শিল্পা শিরোদকা একইরকম দৃশ্যে কাজ করার সাহসিকতা দেখিয়েছিলেন। আগের নায়িকাদের মতো একটি সাদা স্বচ্ছ শাড়িতে একটি ঝরনার তলায় গানের দৃশ্যে নেচেছিলেন তিনি। সেই গান সে সময়ে বেশ জনপ্রিয়তা পায়।

‘নমক হলাল’ ছবিতে অমিতাভ বচ্চন ও স্মিতা পাতিল।

১৯৯৪ সালে ‘গজ মুক্তা’ ছবিতে বলিউড এবং টলিউডের হট নায়িকা ওই রকমই একটি দৃশ্যে মুনমুন সেন যেন সৌন্দর্যে যৌন আবেদনে ছাপিয়ে গেলেন অাগের সবাইকে।

বলিউডের একসময় হিট ডিভা রবিনা ট্যান্ডনের ‘মোহরা’ সিনেমার আইটেম নাম্বার ‘টিপ টির বরসা পানি’ আজও বলিউডে উত্তাপ ছড়ায়। ১৯৯৮ সালে ‘কিমত’ ছবিতে একইরকম আরও একটি দৃশ্যে অভিনয় করলেন রবিনা৷ এরপর তিন বছর পরে রামগোপালের ‘দাউদ’ এ সাহসী দৃশ্যে এলেন ‘ঊর্মিলা’৷ জলে ভেজার দৃশ্যে বেশ আবেদন গড়ে তুলতে সক্ষম হয়েছিলেন।

‘অগ্নিপথ’ ছবিতে হৃতিক রোশন ও প্রিয়াঙ্কা চোপড়া।

মল্লিকা শেরাওয়াত প্রথম ছবি ‘খোয়াইশ’ করেন এবং এরপর একটি গানের দৃশ্যে ঝরনার জলে ভিজে শুটিং করলেন ২০০৩ এ৷

২০০৯ সালে ক্যাটরিনা কাইফ ‘দে দনা দন’ ছবিতে অক্ষয়কুমারের বিপরীতে এরকম একটি সেমি হট সিনে অভিনয় করেন৷ পরবর্তীকালে এরকম দৃশ্যই বলিউডের ছবিগুলিতে আর সেভাবে দেখা যায়নি৷

‘৩ ইডিয়টস্’ ছবিতে আমির খান ও করিনা কপূর।

‘আশিকি ২’ ছবিতে অর্জুন রায় কপূর ও শ্রদ্ধা কপূর।

চলুন দেখে নেওয়া যাক ৩৮ বছর ধরে বলিউডে চলা সেইসব রোমান্টিক গানে যেখানে স্ক্রিনের উষ্ণতা বাড়িয়েছেন বৃষ্টিস্নাত নায়িকারা-

জিনাত আমান : ভারতের সর্বকালের সেরা অভিনেত্রীদের মধ্যে তিনি অন্যতম, না শুধু অভিনয়ের জোড়ে নয়, তার সেক্স অ্যাপিল সহজেই পেছনে ফেলে দিয়েছে তার সমসাময়িক অভিনেত্রীদের। এমনকি আজকের দিনেও যেকোনো অভিনেত্রীকে মাত দিতে পারেন জিনাত আমান।

স্মিতা পাতিল : বলিউডের অন্যতম সেনসেশন স্মিতা পাতিল। তার যৌন আবেদনকে টেক্কা দেওয়া এককথায় ছিল অসম্ভব। ‘আজ রপট যায়ে’ গানে বৃষ্টিতে স্মিতার সেই রোমান্টিক আবেদন থেকে মুখ ফেরানো প্রায় অসম্ভব ছিল ভারতীয় দর্শকদের।

শ্রীদেবী : মিস্টার ইন্ডিয়ার এই গানে রোমান্স করার জন্য কোনো হিরোর দরকার পড়েনি শ্রীদেবীর। হিরো অনিল কাপুরের কথা ভেবেই নীল শাড়িতে কাঁপিয়ে দিয়েছিলেন বৃষ্টিস্নাত শ্রীদেবী।

মাধুরী দীক্ষিত : তিনি গান গাইলেই নাকি বৃষ্টি আসে, না এ দাবি আমার নয়, ‘দিল তো পাগল হে’ ছবিতে এই দাবি করেছেন শাহরুখ খান। তিনি বলিউডের কিংবদন্তি নায়িকা মাধুরি দীক্ষিত।

রাভিনা ট্যান্ডন : বলিউডের রেইন কুইন বললে বোধ হয় ভুল হবে না রাভিনা ট্যান্ডনকে। হলুদ শাড়িতে বৃষ্টিতে ভেজা রাভিনার যৌন আবেদনে ভরপুর ‘টিপ টিপ বরসা পানি’ বলিউডের অলটাইম হিট গান।

সোনালী বেন্দ্রে : আমির খান ও সোনালী বেন্দ্রে যে এতটা রোমান্টিক জুটি, তা বোধ হয় এই গানটা না দেখলে ভাবাই যেত না।

কাজল : ‘কুচ কুচ হোতা হে’ ছবিতে শাহরুখ কাজলের রোমান্সের সেই দৃশ্য মনে আছে নিশ্চয়! বৃষ্টিই মিটিয়ে দিয়েছিল রাহুল-অঞ্জলির মধ্যকার দূরত্ব।

ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন : ‘গুরু’ ছবির ‘বরসো রে মেঘা’, বলিউডের অন্যতম সেরা বৃষ্টির গান। পুরো গানজুড়েই ঐশ্বরিয়ার মোহময় আবেদন ছিল নজরকাড়া।

বিদ্যা বালান : তবে এদের কারোর থেকে কম যান না বিদ্যা বালান। অফস্ক্রিন থেকে অনস্ক্রিন তার শাড়ি পরা ছবি ভক্তদের মনে গাঁথা হয়ে গেছে। বলিউডের তিনি একমাত্র যিনি বুঝিয়ে দিয়েছেন ওয়েস্টার্ন নয়, শাড়িতেই মেয়েদের আবেদন সবচেয়ে বেশি। ‘ডার্টি পিকচার’ এ তার সেই লাল শাড়ি তারই প্রমাণ।

করিনা কাপুর খান : ‘চামেলী’ ছবিতে বৃষ্টিতে করিনার সেই নাচ ভোলা প্রায় অসম্ভব। তার কেরিয়ারের অন্যতম সেরা এই ছবির গানে তিনি ছিলেন মোহময়ী।

ক্যাটরিনা কাইফ : বলিউডে তার অভিনয় নিয়ে নানা সমালোচনার মুখে পড়তে হলেও সেক্স অ্যাপিলে তিনি মাত দিয়েছেন বহু অভিনেত্রীকে। ‘দে দন দনা দন’ ছবিতে বৃষ্টিস্নাত ক্যাটরিনার সঙ্গে অক্ষয়ের রোমান্স বাড়িয়েছে উষ্ণতার পারদ।

কমেন্টস