Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৯ বুধবার, সেপ্টেম্বার ২০১৮ | ৩ আশ্বিন ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

বিমান দুর্ঘটনা নিয়ে যা বলেছেন তারা

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২ মার্চ ২০১৮, ১০:৪৯ PM আপডেট: ১২ মার্চ ২০১৮, ১০:৪৯ PM

bdmorning Image Preview


বিডিমর্নিং বিনোদন ডেস্ক-

নেপালের রাজধানীর কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের(টিআইএ) ইউএস বাংলার বিমান দুর্ঘটনার পর থেকেই দেশজুড়ে চলছে রীতিমতো শোকের মাতম। এ তালিকা থেকে বাদ যাননি দেশের শোবিজ অঙ্গনের মানুষেরাও। নিহত ও আহতদের জন্য প্রার্থনা করছেন তারাও।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ টেলিভিশনের মাধ্যমে নেপালের দিকে তাকিয়ে আছেন তারকারাসহ অসংখ্য মানুষ। এমনকি তাদের শোকবার্তায় ভারি হয়ে উঠছে টাইমলাইন।

বিমান দুর্ঘটনার খবর চাউড় হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই নেপাল ভিত্তিক একটি ইংরেজি খবরের লিঙ্ক শেয়ার করে নির্মাতা ফারুকী বিস্ময় প্রকাশ করেন।

নির্মাতা অমিতাভ রেজা ফেসবুকে লিখেছেন,‘আয়নাবাজি খ্যাত  নির্মাতার চাওয়া তাই, এমন রাত যেনো না আসে আর আমার বাংলাদেশে।’

‘বাংলাদেশের উড়োজাহাজ নেপালে বিধ্বস্ত’-এমন শিরোনামের একটি সংবাদ নিজের ওয়ালে শেয়ার করে ‘ঢাকা অ্যাটাক’ খ্যাত নির্মাতা দীপঙ্কর দীপন লিখেন: ইশশ ..মেইনটেন্স নিয়ে আমি কতবার আশঙ্কার কথা বলেছি.. কতবার । আমাদের রক্ষা করুন।

বিধ্বস্ত বিমান আর লাশের সারির দুটি ছবি পোস্ট করে ফেসবুকে অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী লিখেন: আমরা মর্মাহত, শোকাহত।

বিমান বিধ্বস্তের খবর শোনা মাত্রই অভিনেতা ইরেশ যাকের লিখেন: যাত্রী ও ইউএস বাংলার বিধ্বস্ত বিমানটির ক্রু এবং তাদের পরিবারের জন্য ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা।

‘জাগো’ খ্যাত নির্মাতা খিজির হায়াত খান লিখেন: নিশ্চয় আল্লাহ দুর্ঘটনা কবলিত ইউএস-বাংলার সকল যাত্রীদের সাথে আছেন।

কাজী নওশাবা আহমেদ একটি নিউজ লিঙ্ক শেয়ার করে লিখেন: প্লিজ, প্রে!

চিত্রনায়িকা তানহা তাসনিয়া ইসলাম: Feeling too bad.. কাঠমান্ডুতে বিমান দুর্ঘটনায় আমরা শোকাহত।

ছোট পর্দার জনপ্রিয় নির্মাতা তানিম রহমান অংশু বলেন: বিমান দুর্ঘটনায় সকলের প্রতি শান্তি বর্ষিত হোক। তখনো বিমান দুর্ঘটনায় হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। সবার মতোই অনিশ্চিত ছিলেন দেশের তারকারাও। বিমান দুর্ঘটনার খবর শুনেই তিনি লিখেছিলেন, প্রার্থনা! সবাই যেন সুস্থ থাকে।

প্রসঙ্গত, ঢাকা থেকে নেপালের উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়া বেসরকারি বিমান সংস্থা ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের একটি উড়োজাহাজ কাঠমান্ডুতে বিধ্বস্ত হয়ে অন্তত ৫০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

সোমবার দুপুর ১২টা ৫১ মিনিটে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ৭৮ যাত্রী নিয়ে ছেড়ে যায় বিমানটি।

নেপাল টাইমস-এর খবরে বলা হয়েছে, ৭৮ জনকে ধারণে সক্ষম ওই বিমানে চার ক্রু ও ৬৭ যাত্রী মিলে ৭১ জন আরোহী ছিল। বিমানের ৩২ আরোহী বাংলাদেশি এবং ৩৩ জন নেপালি।

Bootstrap Image Preview