চূড়ান্ত গোপনে চলচ্চিত্রের শুটিং হওয়ার কথাঃ ফারুকী

প্রকাশঃ ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০১৮

নিয়াজ শুভ।।

মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর মানেই আলোচনা-সমালোচনা আর নতুন কিছু দেখার অপেক্ষা। তার সর্বশেষ চলচ্চিত্র ‘ডুব’ নিয়ে কম সমালোচনা হয়নি। সেই রেশ কাটতেই ফের শুরু হয়েছে ‘শনিবার বিকেল’ সমালোচনা।

একটি জিম্মি ঘটনাকে কেন্দ্র করেই ‘শনিবার বিকেল’ ছবির গল্প। হলি আর্টিজান ঘটনা থেকেই কাহিনী নেওয়া হলেও সেই ঘটনার হুবহু পুনর্নির্মাণ নয় এই ছবি। গল্পের একাগ্রতা ধরে রাখতে ‘শনিবার বিকেল’কে এক শটে নির্মাণ করা হচ্ছে।

‘শনিবার বিকেল’ নিয়ে শুরু হওয়া এমন সমালোচনায় মুখ খুলেছেন নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী। শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসের মাধ্যমে নিজের মতামত তুলে ধরেছেন তিনি।

ফারুকী লিখেছেন, ‘একটা কথা না বলে পারাই গেলো না। প্রথমেই ধন্যবাদ জানাই বাংলাদেশের সাংবাদিক ভাই বোনদেরকে আমাদের কাজ কর্মের খবর ভালোবাসা এবং গুরুত্বের সাথে তুলে ধরার জন্য।

এবার সেই কথাটা বলি যেটা না বলে পারা গেলো না। নাহলে পরবর্তীতে এটা ভুল স্ট্যান্ডার্ড সেট করবে। বেশিরভাগ কাগজেই দেখলাম “শনিবার বিকেল” সম্পর্কে বলা হচ্ছে “সিক্রেট প্রজেক্ট”, “গোপনে শুটিং করা হয়েছে”, “কাউকে কিছু জানতে দেয়া হয়নি” এইরকম আরো আরো লাইন।

আমি ঠিক বুঝতে পারলাম না, যে ছবির জন্য সমস্ত সরকারী প্রটোকল মেনে অনুমতি নেয়া হইছে, ছবির পাত্র পাত্রীদের জন্য যথাযথ ওয়ার্ক পারমিট নেয়া হইছে, ছবির কাস্টিং বা শুটিং শুরুর খবর প্রেসে আসছে সেটা সিক্রেট হয় কেমনে?’

তিনি আরো লিখেছেন, ‘শুটিং গোপনে করা হইছে? তো শুটিং তো গোপনেই করা হবে। এটাতো চূড়ান্ত গোপনীয় জিনিস হওয়ারই কথা। সেজন্যই তো ছবির কলাকুশলীরা পর্যন্ত নন ডিসক্লোজার অ্যাগ্রিমেন্ট সাইন করেন। নাকি আমরা ফেসবুক লাইভে শুটিং করবো?

সিনেমা তো প্রকাশ্য হবে পর্দায়। এর আগ পর্যন্ত তো সবই গোপন থাকার কথা, বা ততটুকুই প্রকাশ হওয়ার কথা যতটুকু প্রোডাকশন কোম্পানী চায়।

আমার তো মনে হয় আমার সব সিনেমাই এই রকম গোপনীয়তার মধ্যেই করেছি। সাংবাদিক ভাই/বোনদেরও এই গোপনীয়তাকে সহযোগিতা করা উচিত, নাকি?’

কমেন্টস