সিনেমা করতে আমি ভীষণ ভয় পাচ্ছিঃ সানজিদা তন্ময়

প্রকাশঃ জানুয়ারি ২০, ২০১৮

ছবিঃ আবু সুফিয়ান জুয়েল

বাংলাদেশের চলচ্চিত্র শিল্পে গৌরবোজ্জ্বল ও অসাধারণ অবদানের জন্য ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০১৫’ আসরে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্রের সম্মাননা পেয়েছে মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক ছবি ‘বাপজানের বায়োস্কোপ’। ছবিটির পানাই চরিত্রটি সকলের নজর কাড়ে। এই ছবির মাধ্যমেই বড় পর্দায় অভিষেক হয় তার। ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই বেশ যাচাই বাছাই করে কাজ করতে অভ্যস্ত এই অভিনেত্রী। তিনি আর কেউ নন, সকলের প্রিয়মুখ সানজিদা তন্ময়। তার কাজের পরিধি ও বর্তমান ব্যস্ততা জানতে কথা হলো বিডিমর্নিং এর সাথে। সাক্ষাতে ছিলেন নিয়াজ শুভ-

কেমন আছে?

সানজিদা তন্ময়ঃ ভালো।

বর্তমান ব্যস্ততা কি নিয়ে?

সানজিদা তন্ময়ঃ এখন আমি সব সিরিয়ালের কাজ করছি। বেশ কিছু নাটক প্রচারিত হচ্ছে। এছাড়া হাতে আরো কিছু নাটকের কাজ আছে। বাপ্পির সাথে একটি সিনেমার কথা চলছে।

নতুন কোন ছবিতে আপনাকে দেখবো?

সানজিদা তন্ময়ঃ সিনেমা করতে আমি ভীষণ ভয় পাচ্ছি। কারণ বাপজানের বায়োস্কোপ যেমন সাড়া পেয়েছে তাতে আমার প্রতি সকলের আশা বেড়ে গেছে। সত্যি বলতে এরপর অনেক ছবির অফার এসেছে। কিন্তু সব ছবিতেই ছিলো নতুন হিরো। আমি এখন কোন নতুন হিরোর সাথে কাজ করতে চাই না।

সিনিয়র কোন হিরোর সাথে কাজ করতে চান?

সানজিদা তন্ময়ঃ আরিফিন শুভ।

‘পানাই’ চরিত্র নিয়ে কিছু বলুন…

সানজিদা তন্ময়ঃ সেটি আমার প্রথম অভিনয় ছিলো। এর আগে আমি কোন সিরিয়ালেও কাজ করিনি। শুধু কয়েকটি সিকুয়েন্সে কাজ করা হয়েছিলো। পানাই চরিত্রের জন্যই আমার এই ছবিটি করা। অন্য কোন চরিত্র হলে হয়তো আমার এই ছবিটা করা হতো না। কাজটা আমার জন্য খুব চ্যালেঞ্জিং ছিলো। বাসার মানুষও জানতো না আমি শুটিংয়ে যাচ্ছি। সবাই জানতো ক্লাস শেষে আমি গ্রুপ স্টাডি করছি।

মিডিয়ায় কাজের ব্যাপারে পরিবারের সমর্থন ছিলো না?

সানজিদা তন্ময়ঃ শুরুতে বেশ সমস্যা হয়েছে। আমি ভিটে যাওয়ার পর যখন টপ সেভেনে চলে আসি তখন থেকে বাসায় ভয়াবহ রকমের সমস্যা শুরু হয়। সবাই ভেবেছিলো ভিট থেকে বের হয়ে হয়তো আমি আর কাজ করবো না। ২০১২-২০১৩ আমার কাজে টানা বিরতি ছিলো। এর মধ্যে আমার অনার্স শেষ করি।

এখন আপনার পরিবার বিষয়টিকে কিভাবে দেখছে?

সানজিদা তন্ময়ঃ এখন আলহামদুলিল্লাহ্‌, খুব ভালো সাপোর্ট করে। তারা আমাকে উৎসাহ দেয়, যেন বাপজানের বায়োস্কোপের মতো আমি আরো ছবিতে কাজ করতে পারি। কিন্তু এখন আমাদের দেশে এই ধরণের ছবি খুব কম হয়। এটা অনেক সাহসের ব্যাপার। এমন ছবি বানাতে সবাই সাহস পায় না।

 

মিডিয়ার বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে আপনার কি মতামত?

সানজিদা তন্ময়ঃ আমাদের এখানে বেশ ভালো ভালো সিনেমা হচ্ছে। বাংলা সিনেমা মানুষ হলে গিয়ে দেখছে। এখন বেশিরভাগ হলই হাউজফুল থাকছে। সামনেও আরো ভালো সিনেমা হবে।

নতুন বছরে কাজের প্রত্যাশা কেমন?

সানজিদা তন্ময়ঃ এই বছর আমি সিনেমা নিয়ে কিছু ভাবতে চাচ্ছি না। আমি এখন যেমন কাজ করছি এবছরও যেন তেমন কিছু ভালো কাজ করতে পারি।

কোন চরিত্রে নিজেকে দেখতে চান?

সানজিদা তন্ময়ঃ একটা চরিত্র আমার খুব পছন্দের। শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের ‘বিলাসী’। ইচ্ছা আছে যদি কখনো সম্ভব হয় সেই চরিত্রে কাজ করবো।

আপনার একটি ভালো গুণ…

সানজিদা তন্ময়ঃ আমার যখন যেটা করতে ইচ্ছা করে, যা বলতে ইচ্ছা করে, যা পরতে ইচ্ছা করে আমি তাই করি। এ নিয়ে আমার মধ্যে কোন দ্বিধা-দ্বন্দ্ব কাজ করে না।

কোন খারাপ দিক…

সানজিদা তন্ময়ঃ (হেসে) আমি খুব অলস। এই অলসতার কারণেই আমার জিমে যাওয়া হয় না। শুটিং শেষ করে বাসায় এসেই কিছু খেয়ে ঘুম দেই। এটা শুধু খারাপ না জঘন্যতম খারাপ দিক।

বিবাহিত জীবন কেমন কাটছে?

সানজিদা তন্ময়ঃ ভালো যাচ্ছে। ভালো না গেলে আমি কাজ করতে পারতাম না।

সানজিদা তন্ময়ের এমন কোন কথা বা ঘটনা যা সকলের অজানা…

সানজিদা তন্ময়ঃ না, এখনো তেমন কিছু ঘটেনি।

 

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কি?

সানজিদা তন্ময়ঃ আমি অভিনয় পাগল একজন মানুষ। আমি কাজ করতে এসেছি। আমার কাজটা ভালোমত করতে চাই। আমি টপ নায়িকা হতে চাই না, কিন্তু মরার আগ পর্যন্ত কাজ করতে চাই।

এতক্ষণ সময় দেয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

সানজিদা তন্ময়ঃ আপনাকেও ধন্যবাদ।

কমেন্টস